2020 New Ad HDFC 04

মমতার সিআরপিএফ ঘেরাও প্রসঙ্গে রিপোর্ট তলব কমিশনের

Share Link:

মমতার সিআরপিএফ ঘেরাও প্রসঙ্গে রিপোর্ট তলব কমিশনের

নিজস্ব প্রতিনিধি: তৃণমূলের তোলা যাবতীয় অভিযোগ একধার থেকে খণ্ডন করে চলেছে নির্বাচন কমিশন। কার্যত রাজ্যের শাসক দলের অভিযোগগুলিকে কোনও মান্যতাই দেওয়া হচ্ছে না। অথচ বিজেপি যখনই কিছু অভিযোগ জানাচ্ছে সঙ্গে সঙ্গে তা নিয়ে নড়েচড়ে বসছে কমিশন। অন্তত এমনটাই অভিযোগ উঠেছে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে। এবার সেই অভিযোগকে আরও শক্তপোক্ত করে দিল কমিশনের অপর এক সিদ্ধান্ত। গতকাল কোচবিহার জেলায় নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করার মন্তব্যের জেরে কমিশনের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিল বিজেপি। এবার সেই অভিযোগের জেরেই এদিন কোচবিহার জেলা প্রশাসনের কাছ থেকে রিপোর্ট তলব করল কমিশন।
 
বুধবার উত্তরবঙ্গের কোচবিহার জেলায় প্রচারে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই তিনি কোচবিহার উত্তর বিধানসভা এলাকায় সভা করতে গিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সমালোচনায় সরব হন। বলেন, ‘রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা অশান্তি করছে। বহু গ্রামে ঢুকে মহিলাদের ভোট দিতে বাধা দিচ্ছে। কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা অশান্তি করতে এলে একদল ওদের ঘিরে ফেলুন। আরেক দল ভোট দিতে যান। কারা এই কাজ করছে, তাদের নাম লিখে রাখুন। ভোট নষ্ট করবেন না। আপনি যদি শুধু ঘেরাও করে রাখেন তাহলে ওরা ভাববে ভালই তো, ভোটটা তো পড়ল না। ওদের এটাই কিন্তু চাল। ঘেরাও ওইভাবেও করতে হবে না। কথা বলবেন মানেই ঘেরাও। দেখে নেবেন পরিস্থিতি অনুযায়ী।’ মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্য নিয়েই সমালোচনায় সরব হয়েছে বিজেপি। গতকালই এই নিয়ে কলকাতায় দলের কার্যাল্যে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, ‘কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক দলের সম্পর্ক থাকে না। ওঁরা দেশের জন্য পরিবার-পরিজন ছেড়ে মানুষের স্বার্থে কাজ করে চলেছেন। আর সেই জওয়ানদের এভাবে আক্রমণ করা অন্যায়। এমন আচরণ আজ পর্যন্ত কেউ করেননি।’ এরই পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্য নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছেও অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি। শুধু তাই নয়, তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যকে ‘দেশবিরোধী’ মন্তব্য হিসাবে দাবি করে তৃণমূলের স্বীকৃতি বাতিল করার দাবিও কমিশনের কাছে জানিয়েছে বিজেপি।


যদিও বিজেপির এই পালটা দাবির বিপক্ষে গিয়ে তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়েছে, মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায় আধাসেনাকে নিয়ে তুচ্ছ রাজনীতি করেন না। তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায় এই বিষয়ে জানিয়েছেন, ‘অমিত শাহ ছত্তিসগঢ়ের ঘটনায় হাসপাতালে গিয়েছিলেন। তিনি সেখানে গিয়ে হাসিমুখে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে আসেন। যেন আনন্দদায়ক বলে মনে হচ্ছে। দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কীভাবে এত অমানবিক এত অসংবেদনশীল হতে পারেন! মানুষের প্রাণ আগে না কি ভোট আগে। আমরা অবাক হইনি, কারণ বিজেপির এই ধরনের চেহারা আগেই দেখেছি। মমতা এই ধরনের তুচ্ছ রাজনীতি করেন না।’ তবে বিজেপির অভিযোগের পরে পরেই এবার এই ঘটনা নিয়ে কোচবিহার জেলা প্রশাসনের কাছ থেকে রিপোর্ট তলব করল নির্বাচন কমিশন। এদিন কোচবিহারের জেলাশাসকের কাছে এব্যাপারে রিপোর্ট তলব করেছে কমিশন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী বলেছেন, তা ইংরাজি তর্জমা করে জানাতে বলা হয়েছে কমিশনকে।

Comm Ad 2020-tantuja-body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

corona 02

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 008 Myra

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC
Comm Ad 2020-himalaya RC