স্ত্রীর শেষইচ্ছাকে সম্মান জানিয়ে পাঁচ কোটির সম্পত্তি দান চিকিৎসকের

Published by:
https://www.eimuhurte.com/wp-content/uploads/2021/09/em-logo-globe.png

Rupendu Das

15th January 2022 6:41 pm | Last Update 15th January 2022 6:46 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি, হামিরপুর (হিমাচলপ্রদেশ):  সন্তানের গলায় মা-ডাক না শুনেই কাটাতে হয়েছে জীবন। স্বামী একজন বড়ো মাপের চিকিৎসক। সে সুবাদে বিশাল সম্পত্তির মালিক। সম্পত্তির পরিমাণ পাঁচ কোটি টাকা। কিন্তু কে ভোগ করবে সম্পত্তি? উত্তরাধিকার বলে তো আর কেউ নেই। তাই, মৃত্যুর আগে স্বামী-স্ত্রী যৌথভাবে সিদ্ধান্ত নেন, বিশাল-পরিমাণ বাড়ি দান করে দেবেন। জীবনবন্ধুর ইচ্ছাপূরণ করেছেন চিকিৎসক। ওই রাজপ্রাসাদ সরকারের হাতে তুলে দিয়েছেন। হামিরপুর গ্রামে এখন তিনিই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু।

মানবদরদী এই চিকিৎসকের নাম রাজেন্দ্র কানওয়ার। বয়স ৭২ বছর। ডা. রাজেন্দ্র কানওয়ারের বাড়ি নাদাউন গ্রামের জোলসাপ্পড় গ্রামে। ভদ্রলোক কাজ করতেন রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরে। স্ত্রী রাজ্য সরকারে শিক্ষা দফতরের কর্মী ছিলেন। এক বছর আগে ডা. কানওয়ারের স্ত্রীর মৃত্যু হয়। মৃত্যুর আগে স্ত্রীর শেষইচ্ছার কথা স্বামীকে জানিয়ে দিয়েছিলেন। ডা. কানওয়ার পরে বিষয়টি নিয়ে আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে পরামর্শ করেন।

একটি বৈদ্যুতিন চ্যানেলের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ডা. কানওয়ার বলেন, ‘কর্মজীবনে দেখেছি, অর্থের অভাবে বহু মানুষ চিকিৎসার সুযোগ পান না। থাকার জায়গায় নেই। বহু মানুষকে খোলা আকাশের নীচে রাত কাটায়। তাদের কথা ভেবে আমি এবং আমার স্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, এই অট্টালিকা সরকারকে দান করে দেব।’

কর্মজীবন থেকে অবসর নিলেও রোগী দেখা বন্ধ হয়নি। সকাল-বিকেল দুবেলা বিনা পয়সায় নিজের বাড়িত রোগী দেখেন।‘জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত রোগী দেখেই কাটাব’, হাসতে হাসতে জানালেন ডা. কানওয়ার।

More News:

Leave a Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

নজরকাড়া খবর

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

Subscribe to our Newsletter

134
মিশন দিল্লি, পিকের চাণক্যনীতি কতটা কাজ দিল মমতার?

You Might Also Like