বিপ্লব-রাজ্যে পুরভোটে গেরুয়া গুণ্ডামি, চলল ছাপ্পা

Published by:
https://www.eimuhurte.com/wp-content/uploads/2021/09/em-logo-globe.png

Rupendu Das

25th November 2021 5:35 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা:  বাংলায় যারা শাসকদলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে চিলচিৎকার জুড়ে দেয়, ঘুম ভাঙলেই যে দলের নেতার শাসক-বিরোধী বক্তব্য পেশ না করলে তাঁর দিন ভালো কাটে না, কটাক্ষ না করলে বাদশাহি মেজাজ আসে না, তাঁর দল বিজেপি আগরতলা পুরভোট দেখিয়ে দিল গুণ্ডামি কাকে বলে। যে গুণ্ডামির কাছে হার মানছে বাম আমলের সন্ত্রাস।  

আর ভোট শেষ হতে না হতেই পুনর্নির্বাচনের দাবি তুলল বামেরা। সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে, গেরুয়া বাহিনী বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঘাসফুল শিবির। রাজনৈতিকমহলের একাংশের মতে, পুরভোটে বেনজির সন্ত্রাস হতে পারে আশঙ্কা করেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল ঘাসফুল শিবির। বুধবার সেই মামলার রায় দিতে গিয়ে শীর্ষ আদালত সাফ জানিয়ে দেয়, ভোট অবাধ ও সুষ্ঠু করতে রাজ্য সরকারকে নিতে হবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। কড়া হতে রুখতে হবে অপ্রীতিকর ঘটনা। কিন্তু ভোটের দিন দেখা গেল ঠিক উল্টো ছবি। নীরব দর্শকের ভূমিকায় দেখা গেল পুলিশকে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তপ্ত ছিল ছিল আগরতলা। নানা প্রান্ত থেকে ঘাসফুল শিবিরের প্রার্থীদের ওপর হামলা চলে। ৫৯ নম্বর ওয়ার্ডে আক্রান্ত হন তৃণমূল প্রার্থী তপন বিশ্বাস। ভোট দিতে গেলে গেরুয়া বাহিনী আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁর ওপর চড়াও হয়। আঘাত করা হয় চোখে। যদিও এই খবর লেখা পর্যন্ত পদ্ম শিবিরের তরফ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় না।হামলা, ধমকি-চমকি শুধুমাত্র একটি ওয়ার্ডের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল না। বলা যেতে পারে প্রতিটি ওয়ার্ডেই গেরুয়া বাহিনীর হার্মাদরা নির্বিবাদে হামলা চালিয়েছে। বিরোধীদের অভিযোগ তেমনই।হামলা তো ছিল। পাশাপাশি ছিল অবাধে ছাপ্পা।

বিরোধীদের তোলা অভিযোগ যে একেবারে ফেলে দেওয়ার নয়, সেটা গেরুয়া শিবিরের বিধায় সুদীপ রায় বর্মণের বয়ানেই স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-সহ রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন।

More News:

Leave a Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

নজরকাড়া খবর

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

Subscribe to our Newsletter

86
মিশন দিল্লি, পিকের চাণক্যনীতি কতটা কাজ দিল মমতার?