এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




জানেন কী, বিগ বি পরিবারকে নিষিদ্ধ করেছিল মিডিয়া, কিন্তু কেন?




নিজস্ব প্রতিনিধি: বলিউডে তাঁদের খ্যাতির শেষ নেই। বচ্চন পরিবার থাকে একেবারে শীর্ষে। তার একটাই কারণ, মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন এবং তাঁর পরিবার। তাঁদের যেকোনও খবর জানতে সাংবাদিকরাও ওত পেতে থাকে। কিন্তু জানেন কি, একসময় সেই সাংবাদিকরাই নিষিদ্ধ করে দেয় অমিতাভ বচ্চন পরিবারকে। কিন্তু কেন? অমিতাভ বচ্চনের ছেলে অভিষেক বচ্চন এবং ঐশ্বর্য রাই বিয়ে হয়েছিল ২০০৭ সালের ২০ এপ্রিল। তাঁদের বিয়ে হয়েছিল মুম্বইয়ে অমিতাভ বচ্চনের বাড়ি প্রতিক্ষায়। একটি ছোট, ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাঁদের প্রতিজ্ঞা বিনিময় হয়েছিল। তবে হেভিওয়েট দম্পতির বিয়েতে সাংবাদিকরা তো যাওয়ার চেষ্টা করবেই। কিন্তু যাদেরকে এই জমকালো অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি, তারাও সেখানে হাজির হন। কিন্তু সেদিন অমিতাভ পুত্রের বিয়েতে নিমন্ত্রিত ছিলেন বচ্চন পরিবারের ঘনিষ্ঠ প্রয়াত রাজনীতিবিদ অমর সিং।

তাই তাঁর নিরাপত্তার কারণে সাংবাদিকদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়। একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে, বিখ্যাত পাপারাজ্জো বীরেন্দ্র চাওলা পুরো পর্বটি বর্ণনা করে বলেন যে, অভিষেক-ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের বিয়ের পরে গোটা মুম্বই সাংবাদিকরা অমিতাভ বচ্চন এবং তার পরিবারের বিরোধিতা করেছিলেন এবং অমিতাভ পরিবারের যেকোনও অনুষ্ঠানের ছবি তুলতে নিষিদ্ধ করা হয়। সম্প্রতি একটি ইউটিউব চ্যানেলের সঙ্গে সাক্ষাৎকারের সময়, বীরেন্দ্র চাওলা বলেন যে, “আমি তাদের বাড়ির বাইরে অবস্থান করছিলাম। আমরা কোথায় থেকে ছবি পেতে পারি তা জানতাম, যেমন প্রবেশের জায়গা, কিন্তু তারা সেখানে একটি বাঁশ দিয়ে ঘিরে রেখেছিল। সুতরাং, মিডিয়ার সম্পূর্ণ দৃশ্য অবরুদ্ধ করা হয়েছিল। এরপর বিয়ের পর অভিষেক-ঐশ্বর্য যখন তাদের অন্য বাংলো থেকে প্রতিক্ষায় আসছিলেন, তখন নিরাপত্তায় তাঁদের মুড়ে ফেলা হয়। কিন্তু ব্যারিকেড ভেঙ্গে মিডিয়া ছুটে আসে অভিষেক-ঐশ্বর্যকে দেখার জন্যে। কিন্তু সেই সময় নিরাপত্তাকর্মীরা সাংবাদিকদের সঙ্গে খুব খারাপ ব্যবহার করে এবং মিডিয়ার উপর হামলা চালায়। অনেক গণমাধ্যমকর্মী আহত হন। এই বিব্রতকর পর্বের পরেই বিখ্যাত পরিবারের সদস্যরা বচ্চন পরিবারের আর কোনও অনুষ্ঠানের ছবি তুলতে অস্বীকার করেন। কোনও ছবি তুলতে অস্বীকার করেছিলেন।”

চাওলা আরও বলেন, “আমি এত বড় মিডিয়া নিষেধাজ্ঞা কখনও দেখিনি। তারা অমিতাভ জি, জয়া জি, অভিষেক থেকে ঐশ্বরিয়া সবাইকে নিষিদ্ধ করেছিল। বচ্চন পরিবার যখন কোনো অনুষ্ঠানের জন্য আসতেন, ফটোগ্রাফাররা প্রতিবাদের চিহ্ন হিসেবে ক্যামেরা নিচে বা উপরে বাতাসে রেখে দিতেন। বচ্চন স্যার যদি কোনো ইভেন্টে থাকতেন এবং গ্রুপ ছবির জন্য ডাক দেওয়া হয়, যে মুহূর্তে তিনি সামনে আসতেন, ফটোগ্রাফাররা তাদের ক্যামেরা তুলে ধরতেন। তারা বচ্চন সাহেবের পাশের লোকটিকে ক্লিক করতে পারতো, কিন্তু তাঁর নয়।” তবে বচ্চন পরিবারের এই সমস্যাটি কীভাবে সমাধান হল, তাও প্রকাশ করেছেন বারিন্দর। তিনি এই বলে চালিয়ে যান যে বচ্চন স্যার পুরো মিডিয়াকে জেডব্লিউ ম্যারিয়ট হোটেলে একটি প্রাইভেট কনফারেন্সে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন যে এটি তার কাজ এবং ব্যক্তিগত ভাবমূর্তি উভয়ের জন্যই খারাপ – তখনই নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে ফেলা হয়।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোয় গ্রেফতার মার্কিন পপ তারকা জাস্টিন টিম্বারলেক

২০ জুন সোনাক্ষী-জাহিরের হলদি, অভিনেত্রীর বাড়িতেই হবে অনুষ্ঠান, অতিথি ৫০

দিল্লি মেট্রোতে শ্লীলতাহানির শিকার, জোয়ার বাড়ি পর্যন্ত ধাওয়া গুণ্ডাদের

রেস্তরাঁ মোছার কাজ থেকে তিনটি বিল্ডিংয়ের মালিক, সুনীলের বাবার কঠিন জীবনযুদ্ধ

মেয়ের সঙ্গে অঙ্কন প্রতিযোগিতায় মাতলেন অনুষ্কা

রেণুকাস্বামী হত্যা মামলায় নয়া মোড়! দর্শনের ফার্মহাউস থেকে উদ্ধার ম্যানেজারের মৃতদেহ

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর