এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




জিতে ফেরা হল না, ঐন্দ্রিলার প্রয়ানে শোকস্তব্ধ টলিউড




নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মাত্র ২৪ বছর বয়সে দুবার মারণব্যাধি ক্যান্সারকে হারিয়েছিলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। হয়ে উঠেছিলেন ফিনিক্স পাখি। গত ১ নভেম্বর ব্রেনস্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার পর তাই অগনিত ভক্ত অনুরাগী থেকে সহকর্মীদের সকলেরই বিশ্বাস ছিল এবারের লড়াইও জিতে ফিরবেন অভিনেত্রী। কিন্তু লক্ষ মানুষের প্রার্থনা ভালোবাসা ও বিশ্বাসকে ব্যর্থ করে দিয়ে রবিবার দুপুরে চির ঘুমের দেশে পাড়ি দিয়েছেন বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী (Tollywood actress) ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma)। তাঁর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ বাংলা বিনোদন জগত।

গত ১ নভেম্বর ঐন্দ্রিলা শর্মা ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই হাসপাতালে সব্যসাচীর সঙ্গে সর্বক্ষনের সঙ্গী ছিলেন অভিনেত্রীর প্রিয় বন্ধু অভিনেতা সৌরভ দাস। কিন্তু কাজের সুত্রে গত সপ্তাহতেই থাইল্যান্ডে চলে যেতে হয় সৌরভকে। বন্ধুর চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছেন না অভিনেতা। থাইল্যান্ডে বসেই সৌরভ দাস তাঁর ফেসবুকে লিখছেন, “ও জিতে গিয়েছে। ঐন্দ্রিলা খুব ভাল মানুষ। এই পৃথিবীর থেকে একটা অনেক ভাল জায়গায় ও শান্তিতে আছে”। এরপরই বন্ধুর উদ্দেশে সৌরভ লিখেছেন, “মিষ্টি তোকে ভালবাসি। যেমন চিরকাল সবাই ভালবেসেছি। আমি আমার ভাই, এবং তোর সব্যর খেয়াল রাখব”। এখানেই না থেমে নেটিজেনদের উদ্দেশে সৌরভ লিখেছেন, “এখন সব্যসাচীকে দয়া করে কেউ ফোন করবেন না। সবাইকে ধন্যবাদ আমাদের সঙ্গে লড়াই করার জন্য। ঐন্দ্রিলার সঙ্গে লড়াই করার জন্য”।

অন্যদিকে কর্মজীবনে ঐন্দ্রিলার সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়ে পরেছিলেন অভিনেতা জয় মুখোপাধ্যায়। অভিনেত্রীর মৃত্যুর খবরে জয় মুখোপাধ্যায় বলেন, “খুবই দুঃখজনক। আমরা একসঙ্গে কাজ করেছিলাম। ওর আগেও শরীর খারাপ হয়েছিল। ও লড়াই করে ফিরে এসেছিল। আমরা আশা করেছিলাম এবারও ফিরে আসবে। ওর পরিবারের জন্য খুব খারাপ লাগছে”।

অভিনেতা নীল চট্টোপাধ্যায় বলেন, ঐন্দ্রিলার প্রয়ানে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে একটি বৈদুতিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “আমি এখন শুটিংয়ে। এবং ঘটনাচক্রে আমি এমন একটা স্টুডিওতে রয়েছি, যেখানে ঐন্দ্রিলার সঙ্গে কাজ করেছি। আমার খুব ভালো বন্ধু ছিল। কী বলব বুঝতে পারছি না। ওর এই লড়াইটা অনেকের কাছে ইন্সপিরেশন। ওর হেরে যাওয়াটা তাঁদের কাছেও ধাক্কা”।

ঐন্দ্রিলার সঙ্গে এক সঙ্গে কাজ করেছেন অভিনেত্রী পূর্বাশা রায়। বৈদুতিন সংবাদমাধ্যমকে পূর্বাশা বলেন, “আমি কী বলব আমি জানি না। আমাদের একটা অদ্ভুত বন্ডিং ছিল। আমরা মিব়্যাকল আশা করেছিলাম। ওঁর আত্মাকে শান্তি পাক”।

অভিনেত্রী রাজশ্রী ভৌমিক বলেন, “ও এত লড়াকু। আশা করেছিলাম শেষপর্যন্ত যুদ্ধে জয়ী হবে। আমরা ভেবেছিলাম এই মিব়্যাকল ঘটে যাবে। খবরটা যখন শুনলাম। তখন মনে হয়েছিল আর কি আশা নেই”?

অভিনেত্রী মানসী সেনগুপ্ত বলেন, “প্রতিটা মুহূর্তে খোঁজ নিচ্ছিলাম। কাজের মধ্যে যখন খবরটা পেলাম, হাত-পা চলছিল না। ওঁর থেকে শেখার আছে যে জীবনের শেষদিন অবধি কীভাবে লড়াইটা চালিয়ে যাওয়া যায়”। 

অভিনেত্রীর প্রয়াণে শোকস্তব্ধ অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে অভিনেতা লিখেছেন, “ভালো থেকো ঐন্দ্রিলা। তোমার ইচ্ছেশক্তি অনুপ্রেরণা হয়ে থাকুক”। 

অভিনেত্রী চৈতি ঘোষাল ঐন্দ্রিলার প্রয়াণে শোক জ্ঞাপন করে বৈদুতিন সংবাদমাধ্যমকে জানান, “ঐন্দ্রিলাদের প্রয়ান হয়না তাঁরা যুগে যুগে ফিরে আসে ভালোবাসার শিক্ষা দিতে”।

অভিনেতা খরাজ মুখ্যপাধায় বৈদুতিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “সব্যসাচীর সঙ্গে আমরা সকলেই আশা করেছিলাম ফিরে আসবে। কিন্তু এই ঘটনার পর কি বলব কাকেই বা দোষ দেব বুঝতে পারছি না”।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

সুস্থ সন্ধ্যা রায়, ছ’দিন পর হাসপাতাল থেকে হাসিমুখে বাড়ি ফিরলেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী

গুজরাত হাইকোর্টের আদেশের পরেই ওটিটিতে মুক্তি পেল আমির পুত্রের ‘মহারাজ’

প্রথম ভারতীয় হিসেবে ‘Dior’s Haute Couture’ শোয়ে অংশ নিচ্ছেন সোনম কাপুর

‘ফুলকি’, ‘নিম ফুলের মধু’-র মধ্যে জোর টক্কর, শীর্ষস্থান কার দখলে?

‘হিন্দুদের আঘাত করে ছবি তৈরি নয়’, রণবীরকে উপদেশ রামানন্দ সাগরের নাতির

রেণুকাস্বামীর দেহ লোপাটের জন্য ৩০ লাখের সুপারি, স্বীকারোক্তি দর্শনের

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর