এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




কঙ্গনা রানাউতকে চড় মারার শাস্তি, বরখাস্ত CISF মহিলা জওয়ান, মামলা দায়ের




নিজস্ব প্রতিনিধি: কঙ্গনা রানাউতকে চড় মারার জেরে বরখাস্ত করা হল অভিযুক্ত CISF মহিলা জওয়ানকে। কৃষকদের ‘খালিস্তানি’ বলার মন্তব্যের জেরে গতকাল চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে এক CISF মহিলা জওয়ানের হাতে থাপ্পড় খেয়েছেন হিমাচল প্রদেশের ভাবী বিজেপি সাংসদ তথা অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। বিপুল ভোটে জয়লাভ করলেও চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে এসেই সব প্রেস্টিজ একেবারে ধুলোয় লুটিয়ে পড়ে কঙ্গনার। ১৮ বছর বলিউডে রাজত্বের পর প্রথম রাজনীতিতে ডেবিউ করলেন অভিনেত্রী। যদিও এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হয়ে অনেক আওয়াজ তুলেছেন তিনি, আর সেই কারণেই মাঝে মধ্যেই বিপাকে পড়েছেন কঙ্গনা। নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছিল তাঁর একাধিক সোশ্যাল অ্যাকাউন্ট। তাঁর এই ঠোঁটকাটা বিতর্কিত মন্তব্যের জেরেই গতকাল ভুগতে হল। ৪ বছর আগে কঙ্গনা কৃষক বিরোধী মন্তব্যে বলেছিলেন, কৃষকরা খালিস্তানি আর সেই রাগটাই গতকাল উজার করে দিয়েছিলেন ওই CISF মহিলা জওয়ান কুলবিন্দর কৌর।

গতকাল চণ্ডীগড় বিমানবন্দর থেকে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেন কঙ্গনা রানাউত। ঠিক দুপুর ৩ টে নাগাদ যখন চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে প্রবেশ করেন অভিনেত্রী, ঠিক সেই সময়েই বিমানবন্দরে ডিউটিতে ছিলেন কুলবিন্দর কৌর নামক ওই মহিলা জওয়ান। তিনি কঙ্গনাকে দেখা মাত্রই সপাটে চড় মারার চেষ্টা করেন অভিনেত্রীকে। আর জানান, তিনি কৃষকদের খালিস্তানি বলেছেন। আর কৃষক আন্দোলনে তাঁর মাও ছিল এবং তাঁর পরিবার ব্যপক আহত হয়েছিলেন। এরপরেই সে কঙ্গনাকে মারতে যায় এবং ঘটনায পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। এবং ওই মহিলা জওয়ানের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়ে চলে যান কঙ্গনা রানাউত। এই ঘটনার ঠিক একদিন পরেই ওই মহিলা জওয়ানকে সাসপেন্ড করা হল। সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স (সিআইএসএফ) কনস্টেবলকে কঙ্গনা রানাউতকে থাপ্পড় মারার অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে, পুলিশ জানিয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানায় মামলাও দায়ের হয়েছে। কঙ্গনা রানাউতের বিতর্কিত মন্তব্যটি ছিল, “কৃষকরা সেখানে ১০০ টাকায় বসে আছে। তিনি কি সেখানে গিয়ে বসবেন?”

আর এই মন্তব্যের সময় কুলবিন্দরের মা সেখানে বসে প্রতিবাদ করেছিলেন। কঙ্গনা আরও বলেছিলেন, ওই বয়স্ক মহিলাকে ১০০ টাকার বিনিময়ে কৃষক আন্দোলনে সামিল করা হয়েছে। ২০২০ সালে কেন্দ্র কর্তৃক পাস করা তিনটি খামার আইনের বিরুদ্ধে। এই মন্তব্যটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পরেই অভিনেত্রী ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার মুখোমুখি হন এবং তিনি এটি মুছে দেন। কিন্তু এই রাগ পুষে রেখেছিলেন কুলবিন্দর। বিমানবন্দরে প্রত্যক্ষদর্শীরদের দ্বারা রেকর্ড করা ভিডিওতে দেখা যায়, মান্ডি এমপি বিমানবন্দরে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে তর্ক শুরু হয় এবং তারপরে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় নিরাপত্তা চেকপয়েন্টে। কিন্ত ভিডিওতে কথিত চড়ের দৃশ্য ধরা পড়ে নি। ঘটনার কয়েক ঘন্টা পরে, কঙ্গনাও এক্স-এ গিয়ে জানান, “ঘটনাটি ঘটেছিল নিরাপত্তা চেক-ইন-এ। মহিলা গার্ড আমার পার হওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তারপর তিনি এসে আমাকে আঘাত করলেন। ছুরিকাঘাত শুরু করলেন। আমি (তাকে) জিজ্ঞেস করলাম কেন সে আমাকে আঘাত করেছিল। সে বলল, ‘আমি কৃষকদের সমর্থন করি। ‘আমি নিরাপদ… কিন্তু আমার উদ্বেগ হল পাঞ্জাবে সন্ত্রাস বাড়ছে?’ কঙ্গনা বিক্ষোভকারীদের “সন্ত্রাসী” হিসাবে পোস্টে আঘাত করেছিলেন।

তিনি বলেছিলেন, “কেউ এটা নিয়ে কথা বলছে না কারণ তারা কৃষক নয়, তারা সন্ত্রাসী যারা ভারতকে বিভক্ত করার চেষ্টা করছে, যাতে চীন আমাদের দুর্বল ভাঙ্গা দেশটি দখল করতে পারে এবং এটিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো একটি চীনা উপনিবেশে পরিণত করতে পারে।” ২০২০-২১ সালে শুরু হওয়া কৃষকদের বিক্ষোভ ভারতে এবং সারা বিশ্বে শিরোনাম হয়েছিল। কঙ্গনা রানাউত বিক্ষোভের নিন্দা জানিয়ে আন্দোলনের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন, যা প্রতিবাদকারীদের উপর আঘাত করেছিল।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

৫৪ পেরিয়ে ৫৫-এ পা, রাহুলকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা খাড়গে-স্ট্যালিন-কমল হাসানের

‘দ্য ব্লাফ’-এর সেটে গুরুতর জখম প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দিলেন রক্তাক্ত মুখের ছবি

দিল্লিতে তীব্র গরম, হিটস্ট্রোকে মৃত্যু ৫

অসমে ভয়াবহ বন্যায় মৃত ২৬, বানভাসি কয়েক লক্ষ বাসিন্দা

হরিয়ানায় জোর ধাক্কা কংগ্রেসের, দল ছাড়লেন বংশীলালের পুত্রবধূ ও নাতনি

মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোয় গ্রেফতার মার্কিন পপ তারকা জাস্টিন টিম্বারলেক

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর