৭৬-এ পা সমাপ্তির! পুরুষতন্ত্রকে ধাক্কা দিয়ে অপর্ণা আজও অনন্যা

Published by:
https://www.eimuhurte.com/wp-content/uploads/2021/09/em-logo-globe.png

Srabanti Ghosh

25th October 2021 6:20 pm | Last Update 25th October 2021 9:05 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি: ‘তিনি অপর্ণা, তিনিই আস্ত একটি ইন্ডাস্ট্রি’। অভিনেত্রী, পরিচালক, নাট্যকার একই রুপে এত গুণ তাঁর। আর তাই অপর্ণা সেনকে এক কথায় ব্যাখ্যা করতে গেলে ‘অটোগ্রাফ’ সিনেমার জনপ্রিয় ডায়ালগটি না বললেই নয়। অভিনেত্রী অপর্ণা সেনকে নিয়ে কথা বলতে গেলে সেই লেখার কোনও সীমা পরিসীমা থাকবে না। তাই পরিচালক অপর্ণা সেনকে নিয়ে কথা বলাই বরং একটু সহজ। আর সত্যি কথা বলতে গেলে অভিনেত্রী অপর্ণা সেনের থেকেও পরিচালক অপর্ণা সেনের গুরুত্ব ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে অনেক বেশি। সিনেমা পরিচালনার ক্ষেত্রে সত্তরের দশকে যখন পুরুষতান্ত্রিকতা জগদ্দল পাথরের ন্যায় বিরাজ করত ভারতীয় চলচ্চিত্রে সর্বস্তরে, তখন সেই পুরুষতান্ত্রিকতার জগদ্দল পাথরকে এক লহমায় চূর্ণ-বিচূর্ণ করে দিয়েছিলেন যে মহিলা পরিচালক তিনিই বাঙালির গর্ব, আমাদের অপর্ণা সেন। যদিও অপর্ণা সেনের পরে ভারতীয় চলচ্চিত্র একাধিক মহিলা পরিচালক পেয়েছে কিন্তু অভিনেত্রী এবং পরিচালক হিসেবে অপর্ণা সেনের জনপ্রিয়তার যে ব্যাপ্তি এখনও পর্যন্ত তার ধরেকাছেও আসতে পারেননি কেউই। সোমবার, ২৫ অক্টোবর সেই অপর্ণা সেনের জন্মদিন। ৭৬-এ পা দিলেন বাঙালির ‘অপু’। 

ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতে দেবতারুপে পুজিত হন যে পরিচালক সেই সত্যজিৎ রায়ের হাত ধরেই পথচলা শুরু হয় অপর্ণার। প্রথম ছবি ‘তিন কন্যা’। মাত্র ১৫ বছর বয়সে সত্যজিৎবাবুর হাত ধরে সিনেমা জগতে পা রাখেন অপর্ণা। প্রথম কাজেই বাজিমাত। এরপর আর কোনওদিনই পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। একে একে মেমসাহেব, জীবন সৈকতে, বসন্ত বিলাপ, সোনার খাঁচা, কাজললতা, রাগ অনুরাগ, একান্ত আপন, শ্বেত পাথরের থালার মতো বক্সঅফিস হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি। উত্তম কুমার থেকে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে মিঠুন চট্টোপাধ্যায় বাংলা সিনেমার স্বনামধন্য প্রায় সব নায়কের বিপরীতেই দেখা গিয়েছে তাঁকে। অন্যদিকে সত্যজিতের হাত ধরে যে যাত্রা তিনি শুরু করেছিলেন অপর্ণা পরে সেই যাত্রাপথেই পাশে পেয়েছিলেন মৃণাল সেন, তপন সিনহা, ঋতুপর্ণ ঘোষের মতো খ্যাতনামা পরিচালকদের। 

সাল ১৯৮১। এই বছরটি যেমন ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে, তেমনই এই সালটি অপর্ণা সেনের জীবনেও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বছর। কারণ এই বছরেই অপর্ণা সেনের খ্যাতির মুকুটে যুক্ত হল নতুন এক পালক। অভিনেত্রী অপর্ণা সেন হয়ে উঠলেন পরিচালক অপর্ণা সেন। ১৯৮১ সালেই মুক্তি পায় অপর্ণা সেন পরিচালিত প্রথম সিনেমা, ‘৩৬ চৌরঙ্গী লেন’। প্রথম বলেই ছক্কা। প্রথম সিনেমা পরিচালনা করেই অপর্ণা পকেটস্থ করেছিলেন সেরা পরিচালকের জাতীয় পুরষ্কার। শুধু তাই নয়, আশির দশকে যখন কমার্শিয়াল সিনেমা ছাড়া বাঙালি হলমুখো হতেন না সেই সময়ে কিন্তু বানিজ্যিক দিক থেকেও যথেষ্ট সফলতা পায় ‘৩৬ চৌরঙ্গী লেন’। তাঁর দ্বিতীয় সিনেমা ‘পরমা’-ও শ্রেষ্ঠ সিনেমা হিসাবে জাতীয় পুরষ্কার পেয়েছিল। এরপর সাল ২০০০। মুক্তি পেল অপর্ণা সেন পরিচালিত এবং অভিনীত সিনেমা ‘পারমিতার একদিন’। অপর্ণা সেনের এই পারিবারিক সিনেমার সঙ্গেই দেশ জুড়ে মুক্তি পেয়েছিল ‘কহো না প্যায়ার হে’। ঋত্বিক-আমিসা জুটির এই হিন্দি সিনেমা যখন দেশজুড়ে আলোড়ন ফেলে দিয়েছিল তখন কিন্তু ‘পারমিতার একদিন’-এর জন্য হাউজফুল বাংলার সমস্ত সিনেমা হল। দেখতে গেলে দেশজুড়ে যে বিজয়রথ চালিয়েছিল ‘কহো না প্যায়ার হে’, বাংলায় সেই রথই থামিয়েছিল অপর্ণার ‘পারমিতার একদিন’। টানা কয়েক মাস হাউজফুল ছিল এই সিনেমার সবকটি সো। শুধু তাই নয়, এই সিনেমা পরিচালনা করে একগুচ্ছ জাতীয় পুরষ্কার পকেটস্থ করেছিলেন অপর্ণা। সেরা সিনেমা, সেরা পরিচালনা, সেরা অভিনেত্রীর মতো একাধিক পুরষ্কার ঝুলিতে ভরেছিল ‘পারমিতার একদিন’। এরপরেও অপর্ণা সেন একাধিক সিনেমা জাতীয় পুরষ্কার পায়। ‘যুগান্ত’, ‘১৫ পার্ক অ্যাভেনিউ’, ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস আইয়ার’ তার মধ্যে অন্যতম। তবে শুধু সম্মানের দিক থেকে নয়, বানিজ্যিক দিক থেকেও সফল অপর্ণার একাধিক সিনেমা। আর্ট ফিল্মও যে হলে দর্শক টানতে পারে তা একমাত্র অপর্ণা সেনই প্রমাণ করতে পেরেছিলেন। আর তাই তাঁর পরিচালিত ‘গয়নার বাক্স’, ‘জাপানিজ ওয়াইফ’, ‘ইতি মৃণালিনী’ বানিজ্যিক দিক থেকেও এতটা সফল।

অপর্ণা সেনের সর্বশেষ পরিচালিত সিনেমা হল ‘দ্য রেপিস্ট’। ২০২১ সালের ৭ অক্টোবর মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমা। করোনাকালে বক্স অফিসে সেভাবে সাড়া না ফেলতে পারলেও ইতিমধ্যেই অর্জুন রামপাল পরিচালিত এই সিনেমা ২৬তম বুসান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সেরা সিনেমার জন্য মনোনীত হয়েছে। 

More News:

Leave a Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

নজরকাড়া খবর

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

Subscribe to our Newsletter

86
মিশন দিল্লি, পিকের চাণক্যনীতি কতটা কাজ দিল মমতার?