এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




পরিচারিকাকে নির্যাতনের দায়ে শিল্পপতি প্রকাশ হিন্দুজার সাড়ে চার বছরের জেল

courtesy google




আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বাড়ির পরিচারকদের অত্যাচারের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হলেন ব্রিটেনের অন্যতম ধনকুবের ‘হিন্দুজা পরিবারের’ চার সদস্য। সুইৎজারল্যান্ডের একটি আদালত তাঁদের দোষী সাব্যস্ত করে চার সদস্যকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে।তবে মানব পাচারের অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে আদালত। শুক্রবার (২১ শে জুন)জেনেভার একটি আদালত এই রায় দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, সুইস আদালত প্রকাশ হিন্দুজা ও তাঁর স্ত্রী কমল হিন্দুজাকে সাড়ে ৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে। ছেলে অজয় ​​হিন্দুজা এবং তাঁর স্ত্রী নম্রতা হিন্দুজাকে ৪ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

যদিও অভিযুক্তদের আইনজীবী জানিয়েছেন, এই আদেশের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন। তবে রায় ঘোষণার সময় আদালতে হিন্দুজা পরিবারের কোনো সদস্য উপস্থিত ছিলেন না। তাঁদের বিরুদ্ধে জেনেভার ওই আদালতে বিভিন্ন অভিযোগে মামলা চলছিল। কারণ হিসেবে প্রকাশ হিন্দুজা এবং কমল হিন্দুজা জানিয়েছে যে, অসুস্থ থাকার কারণে আদালতে হাজির হতে পারে নি।

তবে মানব পাচারের অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে আদালত। এর কারণ হিসেবে আদালত জানিয়েছে, শ্রমিকরা জানত তারা কোথায় যাচ্ছে এবং সেখানে তাদের কী কাজ করার কথা। সেখানে গিয়ে তাঁরা কি করবে। তাই এই অভিযোগ খারিজ করা হয়েছে।

আদালত আরও জানিয়েছে যে, হিন্দুজা পরিবারের সদস্যরা তাঁদের গৃহকর্মীদের একপ্রকার শোষণ করত। এবং তাঁদের তেমনই কোন সুবিধা দেওয়া হত না। খুব সামান্য সুবিধে দেওয়া হত তাঁদের। এই পরিবার তাঁদের কাজের জন্য যে বেতন দিচ্ছিল তাও সুইৎজারল্যান্ডে এই ধরনের চাকরির ক্ষেত্রে যা বেতন হওয়া উচিত তার এক দশমাংশেরও কম।

ব্রিটেনের সবচেয়ে ধনী হিন্দুজা পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল যে, তাঁদের পরিচারিকার পাসপোর্ট আটকে রাখা হয়। এটাও অভিযোগ ছিল যে এই পরিবার একজন কর্মচারীর বেতনের চেয়ে কুকুরের জন্য বেশি ব্যয় করেছে। শুধু তাই নয় দিনে ১৮ ঘন্টা পর্যন্ত কোন ছুটি ছাড়াই কাজ করতে হত গৃহকর্মীদের। এমনকী বাড়ির বাইরেও যেতে পারত না তাঁরা। তাঁদের ঘরে কাজ করতে বাধ্য করা হত।

যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে হিন্দুজা পরিবারের আইনজীবীরা। তাঁরা জানিয়েছেন যে, তিন কর্মচারী অভিযোগ করেছেন, তা সত্য নয়। বরং পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা পেয়েছেন। তাঁদের আলাদা করে রাখা হয়নি। তাঁদের ঘর থেকে বের হওয়াতেও বিধিনিষেধ ছিল না।

উল্লেখ্য,হিন্দুজা পরিবার আশির দশকের শেষের দিকে ভারত ছেড়ে সুইজারল্যান্ডে  চলে আসে। সেখানেই থাকতে শুরু করে তাঁরা। হিন্দুজা গ্রুপের আইটি, মিডিয়া, ইলেক্ট্রিসিটি, রিয়েল এস্টেট এবং স্বাস্থ্যসেবার মত সেক্টর রয়েছে তাঁদের। এছাড়াও বিশ্বের ৩৮টি দেশে হিন্দুজা পরিবারের তেল, গ্যাস, ব্যাংকিং ও স্বাস্থ্য খাতের ব্যবসা রয়েছে। পরিবারটির মোট সম্পদের অর্থমূল্য প্রায় ৪ হাজার ৭০০ কোটি ডলার।বিশ্বজুড়ে কর্মচারীর সংখ্যা প্রায় দুই লক্ষ।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

আফগানিস্তানে ভারী বর্ষণে নিহত ৩৫, আহত ২৪৯

ভাইস প্রেসিডেন্ট  পদপ্রার্থী  হিসাবে জেডি ভ্যান্সকে বেছে নিলেন ট্রাম্প

ইমরানের দল পিটিআইকে নিষিদ্ধ করল পাক সরকার

নির্বাচনের আগেই যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর মৃত্যু হলে কী ঘটে

সোমালিয়ায় গাড়িবোমা বিস্ফোরণে নিহত ৯, আহত ২০

নেপালের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন কে পি শর্মা ওলি

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর