Comm Ad 2020-LDC Haringhata Meet

মিম অথৈ জলে, আব্বাস বাম-কংগ্রেসের পথে! সূর্যের মন্তব্যে জল্পনা

Share Link:

মিম অথৈ জলে, আব্বাস বাম-কংগ্রেসের পথে! সূর্যের মন্তব্যে জল্পনা

নিজস্ব প্রতিনিধি: তৃণমূল তো ধাক্কা দিছিলই, এবার ধাক্কা দিতে তৎপর হল বামেরাও। ধাক্কা দেওয়া হচ্ছে বিজেপি বান্ধব মিমকে মানে অল ইন্ডিয়া মজলিশে ইত্তেহাদুল মুসলেমিন যার প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়েইশি। ফুরফুরা শরিফের যে পীরজ্বাদা আব্বাস সিদ্দিকির ওপর ভরসা করে বাংলায় ডানা মেলতে চাইছেন ওয়েইশি সেই ডানাকে এবার নিজেদের পালে আনতে তৎপর হয়েছে বামেরা। আলিমুদ্দিন সূত্রে জানা গিয়েছে, ওয়েইশি ফুরফুরা শরিফে আসার আগে থেকেই বামেরা আব্বাসের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিলেন। ওয়েইশি আসার পরে বামেদের তরফে আব্বাসকে স্পষ্ট বার্তা দেওয়া হয় বিজেপিবান্ধব মিমের সঙ্গে কোনওভাবেই হাত মেলাবে না বামেরা। আর সম্ভবত বামেদের এই বাররার জেরেই আব্বাস মিম নিয়ে এখন আর কোনও উৎসাহ দেখাচ্ছেন না। পরিবর্তে তিনি নিজের নতুন দল গড়তে চাইছেন। আর সেই দল নিয়েই তিনি যোগ দিতে পারেন বাম-কংগ্রেস জোটে। আর এই সম্ভাবনাকে রীতিমত উস্কে দিয়েছেন সিপিআই(এম)’র রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। আর এইসব মিলিয়ে এখন বঙ্গ রাজনীতিতে কার্যত অথৈ জলে পড়ে গিয়েছে ওয়েইশির মিম।
 
বাংলায় সংখ্যালঘু ভোট রয়েছে ৩০ শতাংশের। এর মধ্যে আবার কিছুটা উর্দুভাষীরাও রয়েছেন। রাজ্যের সামগ্রিক ভোটব্যাঙ্কের হিসাবে তাঁদের সংখ্যা ৬ শতাংশের মতন। এরা মূলত উত্তর দিনাজপুর, মালদা, মুর্শিদাবাদ, উত্তর ২৪ পরগনা, পশ্চিম বর্ধমান, হুগলি, হাওড়া ও কলকাতায় বসবাস করেন। আর এই উর্দুভাষী সংখ্যালঘু ভোটারদের নিয়েই হয়দরাবাদে ছড়ি ঘোরান মিম প্রধান ওয়েইশি। এখন তিনি উঠে পড়ে লেগেছেন দেশের অনান্য রাজ্যেও তাঁর দলটিকে ছড়িয়ে দিতে। কিন্তু তা দিতে গিয়ে তাঁর গায়ে লেগেছে বিজেপি বান্ধবের তকমা। বিহারের নির্বাচনী ফলাফল সেই তকমাকে কার্যত কঠিন সত্যে পরিণত করেছে। তাই বাংলায় মিম পা রাখার সময় থেকেই সজাগ হয়ে উঠেছে অবিজেপি দলগুলি। তৃণমূল তো ধাক্কা দেওয়া শুরুই করেছে একের পর এক মিম নেতাকে নিজেদের দিকে টেনে নিতে শুরু করায়। তার জেরে রাজ্যে মিমের সংগঠন কার্যত মুথ থুবড়ে পড়েছে। এই অবস্থায় ওয়েইশি নিজেও বুঝেছিলেন বাংলায় কল্কে পেতে হলে বাংলারই কোনও জনপ্রিয় সংখ্যালঘু নেতাকে দলে টানতে হবে। সেই লক্ষ্যেই তাঁর ফুরফুরা যাত্রা ও আব্বাসের সঙ্গে বৈঠক। সেই বৈঠক শেষে ওয়েইশি জানিয়েও দিয়েছিলেন তাঁরা আব্বাসের হাতেই রাজ্য সংগঠন তুলে দিতে চান। আব্বাস যেমন চাইবেন তেমন ভাবেই মিম বাংলার পথে চলবে।
 
কিন্তু আব্বাস এখনও অবধি জানাননি তিনি মিমে যোগ দিচ্ছেন কী দিচ্ছেন না। বরঞ্চ সামনে এসেছে তার নিজ দল তৈরির কথা। আব্বাস চানন আতঁর গায়ে বিজেপি বান্ধব তকমা পড়ুক। তাই নিজ দল গড়ে বাম-কংগ্রেসের জোটে যোগ দিতে পারেন বলেই এখন রাজ্যের ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে। আর সেই সম্ভাবনাকে উস্কে দিয়ে সূর্যকান্ত মিশ্র আব্বাসকে নিয়ে বেশ প্রশংসা করতেও শোনা গিয়েছে। সূর্য বলেছেন, ‘আব্বাস কখনও একটি ধর্মের কথা বলেননি। ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে নিপীড়িত মানুষের কথা বলেছেন। তিনি তাঁদের জন্য লড়াই করবেন বলেছেন। এতে অপরাধ কী আছে।’ যদিও কংগ্রেসের তরফে এখনও পর্যন্ত আব্বাসের বিষয়ে প্রকাশ্যে কোনও মন্তব্য কেউ করেননি। তবে আব্বাস জোটে যোগ দিতে চাইলে কংগ্রেস আপত্তি করবে এমনও নয়। তবে সেক্ষেত্রে ৩ শিবিরের মধ্যে আসন বন্টনের সূত্র কী হবে তার ওপর জোটের সাফক্য অনেকটাই নির্ভর করবে। তবে ওয়াকিবহাল মহলের ধারনা কোনও ভাবে এই জোট দাঁড়িয়ে গেলে বিজেপির কাছে তা বড় ধাক্কা হয়ে উঠবে। সেক্ষেত্রে মমতার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠতে পারে এই জোট। বিজেপিকে সেক্ষেত্রে তৃতীয় স্থানে চলে যেতে হবে। আর মিম তাঁরা কার্যত বাংলায় পা রাখার জমিও খুঁজে পাবে না।

corona 01

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-LDC Momo

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 026 BM

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC

Editors Choice

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC