Comm Ad 2020-LDC Haringhata Meet

অ্যান্টিবডিতে স্বস্তি বঙ্গের! তবুও উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মৃত্যু

Share Link:

অ্যান্টিবডিতে স্বস্তি বঙ্গের! তবুও উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিনিধি: রিপোর্ট দেখে মনে হবে ভালই আছে বাংলা। কিন্তু চোরাস্রোত বাড়িয়ে চলেছে মৃত্যুর হার। এই দুই বিপরীতমুখী চিত্রে বাড়তি উদ্বেগ জুগিয়েছে ভাইরাসের নয়া ভ্যারিয়েন্ট। অনুমান করা হচ্ছে তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়লে ভাইরাসের এই নয়া ভ্যারিয়েন্টই ত্রাস হয়ে দাঁড়াবে বঙ্গের জনজীবনে। নজরে কোভিড ও তার তৃতীয় ঢেউ। সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চ বা আইসিএমআরের চতুর্থ সেরো সার্ভে রিপোর্ট। সেখানেই বলা হয়েছে বাংলার প্রায় ৬১ শতাংশ মানুষের দেহেই ইতিমধ্যেই কোভিডের অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গিয়েছে। তার জেরে রাজ্য আপাতত হার্ড ইমিউনিনিটির দিকেই ধীরে ধীরে এগিয়ে চলেছে। কিন্তু সেই সঙ্গে এটাও সত্যি যে বৃহস্পতিবার রাতে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর যে কোভিড রিপোর্ট পেশ করেছে সেখানে বিগত ২৪ ঘন্টায় ১৪জনের মৃত্যুর কথাও বলা হয়েছে। একই সঙ্গে এবারে এটাও সামনে এসেছে যে শিলিগুড়ির পরে পূর্ব মেদিনীপুর জেলাতেও মিলেছে কোভিডের নয়া ভ্যারিয়েন্টের নমুনা। চিন্তা বাড়ার জায়গা তাই থেকেই যাচ্ছে।
 
ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চ বা আইসিএমআরের চতুর্থ সেরো সার্ভে রিপোর্ট বলছে যে, রাজ্যের প্রায় ৫৫ শতাংশের বেশি মানুষ ইতিমধ্যে কোভিড পজিটিভ হয়েছেন। কেউ উপসর্গ থেকে বুঝতে বা টেস্ট করিয়ে জানতে পেরেছেন আবার কেউ বা কিছুই বুঝতে পারেননি। আবার ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে যে লাগামছাড়া সংক্রমণ ছড়িয়েছিল কোভিডের প্রথম ঢেউয়ের সময়ে তা কার্যত গোষ্ঠী সংক্রমণের জেরেই হয়েছিল। তবে এই রিপোর্টে কিন্তু এটাও বলা হয়েছে যে বাংলার জনসমাজ আস্তে আস্তে হার্ড ইমিউনিটির দিকে এগিয়ে যাওয়ার কারনেই হোক কী জনসচেতনতা বৃদ্ধির কারনেও হোক, কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে কিন্তু গোষ্ঠী সংক্রমণ ঘটতে এ রাজ্যে কোথাও দেখা যায়নি। যদিও দেশে সে নিদর্শন রয়েছে বিস্তর। আর তাই জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ থেকে চিকিৎসকেরা বার বার সতর্ক করছেন বাংলার বুকে কোভিডের তৃতীয় ঢেউ ঠেকাতে হলে মাস্কের ব্যবহার বাড়াতে হবে। শারীরিক দূরত্ব মেপে চলতে হবে। একইসঙ্গে স্যানিটাইজেশনের ওপরেও জোর দিতে হবে। তাঁরা টিকাকরণের ওপরেও জোর দিতে বলেছেন। কিন্তু ঘটনা হচ্ছে পর্যাপ্ত টিকা মিললে তবেই তো টিকাকরণে জোর দিতে পারবে সরকার। দেশের বিজেপি সরকারকে তো এই ক্ষেত্রে বাংলাকে পুরো বঞ্চিতের জায়গায় ফেলে রেখে দিয়েছে। কেন্দ্রের রিপোর্টেই সামনে এসেছে দেশে সবচেয়ে বেশি টিকা পেয়েছে বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিই।
 
তবে বাংলায় অ্যান্টিবডি তৈরির বিষয়টি আশার আলো হয় তবে উদ্বেগের ছবি ২৪ ঘন্টার মধ্যে কোভিডে ১৪জনের মৃত্যুর ঘটনা। এই ১৪জনের মধ্যে ৪জন করে মারা গিয়েছেন জলপাইগুড়ি ও উত্তর ২৪ পরগনা জেলায়। ৩জন মারা গিয়েছেন কলকাতায় ও ১জন করে মারা গিয়েছেন দার্জিলিং, হুগলি ও দক্ষিন ২৪ পরগনা জেলায়। অর্থাৎ প্রথম দুটি ঢেউয়ের মতোই সম্ভবত কোভিডের তৃতীয় ঢেউয়েও মূল এপিক সেন্টার হয়ে উঠতে চলেছে সেই বৃহত্তর কলকাতা ও হাওড়া-হুগলি জেলা। এর পাশাপাশি নয়া এপিক সেন্টার হিসাবে মাথা তুলছে জলপাইগুড়ি জেলা। সঙ্গে দোসর দার্জিলিং জেলাও। বিশেষজ্ঞরা কিন্তু সতর্ক করেই দিয়েছেন বাংলায় কোভিডের তৃতীয় ঢেউ পা রাখতে চলেছে উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও দার্জিলিং জেলার মধ্যে দিয়ে। সেই হিসাবে শেষ ২টি জেলায় বিগত ২৪ ঘন্টায় ৫জনের মৃত্যু কিন্তু সেই সতর্কবার্তার বাস্তবতারই নিদর্শন তুলে ধরছে।
 
উদ্বেগ আরও বাড়িয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় কোভিডের নয়া ভ্যারিয়েন্টের সন্ধান মেলায়। কিছুদিন আগেই উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়িতে ৭জনের দেহে এই নয়া ভ্যারিয়েন্টের সন্ধান মিলেছিল। ডেল্টা প্লাস স্ট্রেইন ছিল সেই নয়া ভ্যারিয়েন্ট। এবার সেই একই ভ্যারিয়েন্টের নমুনা মিললো পূর্ব মেদিনীপুর জেলায়। সেখানে ২জনের শরীরে ওই নয়া ভ্যারিয়েন্টের সন্ধান মিলেছে। তাই কোনওভাবেই রাজ্যবাসী যাতে কোভিড বিধিকে অবহেলা না করেন সেই বিষয়েই এখন জোর দিতে বলছেন বিশেষজ্ঞ থেকে চিকিৎসকেরা।

Comm Ad 2020-LDC Haringhata Meet

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

corona 02

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 006 TBS

নিউ ইয়র্কে শুরু হল মেট গালা ২০২১। নিউইয়র্কে এই অনুষ্ঠানে ছিল তারকাদের ভিড়। ফ্যাশন, স্টাইল ও দুর্দান্ত ডিজাউনে সব তারকারা হাজির হয়েছিলেন বিচিত্র সব পোশাক পরে। মেট গালার রেড কার্পেটে হাঁটার জন্য কী পরবেন সেলেবরা, তার প্রস্তুতি চলতে থাকে বছরের পর বছর ধরে। করোনার কারণে গত বছর আসরটি বসেনি। তাই এবার যেন তারার মেলা বসে গিয়েছিল।

নিউ ইয়র্কে শুরু হল মেট গালা ২০২১। নিউইয়র্কে এই অনুষ্ঠানে ছিল তারকাদের ভিড়। ফ্যাশন, স্টাইল ও দুর্দান্ত ডিজাউনে সব তারকারা হাজির হয়েছিলেন বিচিত্র সব পোশাক পরে। মেট গালার রেড কার্পেটে হাঁটার জন্য কী পরবেন সেলেবরা, তার প্রস্তুতি চলতে থাকে বছরের পর বছর ধরে। করোনার কারণে গত বছর আসরটি বসেনি। তাই এবার যেন তারার মেলা বসে গিয়েছিল।

দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন লিল নাসকের রাজকীয় পোশাক। সোনালি সুপারহিরোর পোশাকে হাজির ছিলেন তিনি।

দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন লিল নাসকের রাজকীয় পোশাক। সোনালি সুপারহিরোর পোশাকে হাজির ছিলেন তিনি।

সম্পূর্ণ কালো পোশাক নজর কাড়লেন কিম কারদাশিয়ান।

সম্পূর্ণ কালো পোশাক নজর কাড়লেন কিম কারদাশিয়ান।

রালফ লরেনের তৈরি পশমের পোশাকে ধরা দিয়েছেন জেনিফার লোপেজ। সঙ্গে ছিলেন বেন অ্যাফ্লেক। এ বার সামাজিক অনুষ্ঠানেও দেখা দিলেন যুগলে। মেট গালা ২০২১-এর হোয়াইট কার্পেটে অবশ্য আলাদাই হাঁটলেন জেনিফার ও বেন। ভিতরে গিয়ে মাস্ক পরেই চুম্বনে মগ্ন হলেন দুই তারকা।

রালফ লরেনের তৈরি পশমের পোশাকে ধরা দিয়েছেন জেনিফার লোপেজ। সঙ্গে ছিলেন বেন অ্যাফ্লেক। এ বার সামাজিক অনুষ্ঠানেও দেখা দিলেন যুগলে। মেট গালা ২০২১-এর হোয়াইট কার্পেটে অবশ্য আলাদাই হাঁটলেন জেনিফার ও বেন। ভিতরে গিয়ে মাস্ক পরেই চুম্বনে মগ্ন হলেন দুই তারকা।

সুপার মডেল ইমন চমত্কার পালকযুক্ত স্বর্ণ এবং বেইজ হেডড্রেস এবং স্কার্ট বেছে নিয়েছিল। মাথার পিছনে বসানো সাদা আর সোনালি হেড পিস দেখাল চক্রের মতো।

সুপার মডেল ইমন চমত্কার পালকযুক্ত স্বর্ণ এবং বেইজ হেডড্রেস এবং স্কার্ট বেছে নিয়েছিল। মাথার পিছনে বসানো সাদা আর সোনালি হেড পিস দেখাল চক্রের মতো।

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 008 Myra
Comm Ad 008 Myra