Comm Ad 2020-WB Tourism body

শিল্প গড়তে জমি চাইলেই তা মিলবে বাংলায়! তবে কৃষি ধ্বংস করে নয়

Share Link:

শিল্প গড়তে জমি চাইলেই তা মিলবে বাংলায়! তবে কৃষি ধ্বংস করে নয়

নিজস্ব প্রতিনিধি: সিঙ্গুর আর নন্দীগ্রাম। রাজ্যে এই দুই জমি আন্দোলনের পীঠস্থানই বদলে দিয়েছে বাংলার রাজনীতির হিসেবনিকেষকে। সেই নতুন হিসাবেই মহাকরণ ছাড়া হয়েছিল ৩৪ বছরের বাম রাজত্ব। বাংলার মসনদে সেই ২০১১ থেকেই রয়েছে মা-মাটি-মানুষে সরকার যার নেতৃত্বে রয়েছেন বাংলার অগ্নিকন্যা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিরোধীরা এই সরকারকে বারে বারে বিদ্ধ করেছে ‘শিল্প বিরোধী’ বলে। কিন্তু প্রতিবারই জনতার কাছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিস্কার করে দিয়েছেন, তাঁর সরকার শিল্পবিরোধী নয়। তিনি ও তাঁর সরকারও চায় রাজ্যে শিল্প গড়ে উঠুক, কিন্তু কখনই তা কৃষি আর কৃষককূলের ধ্বংসসাধন করে নয়। কৃষি আর শিল্প পরস্পরের হাত ধরাধরি করে চলুক, একে অপরের পরিপূরক হয়ে উঠুক, কিন্তু কখনই একটিকে খুন করে অন্যটিকে বাড়িয়ে তোলা নয়। এবার তাই আরও একটা বিধানসভা নির্বাচন যখন বাংলার দোরে কড়া নাড়ছে ঠিক তখনই শিল্পপতিদের বিশেষ বার্তা দিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। শিল্প গড়তে চাইলে সহজেই বাংলায় মিলবে জমি।
 
মঙ্গলবার রাজ্যের শিল্পোন্নয়ন নিগমের চেয়ারম্যান রাজীব সিনহা জানিয়েছেন, এবার থেকে রাজ্যে শিল্পের জন্য জমি পাওয়ার রাস্তা আরও সহজ করা হল। সিঙ্গল উইন্ডো সিস্টেম চালুর মাধ্যমে দ্রুততার সঙ্গে মিলবে জমি। আগে রাজ্যে শিল্পের জন্য জমি পেতে অন্তত দু ধাপে আবেদন করার পর অনুমোদন পেতে বেশ খানিকটা সময় চলে যেত। ছোট ও মাঝারি শিল্প, বড় শিল্পের জন্য পৃথক জায়গায় দরখাস্ত করতে হতো। এমনকী শিল্পের কোনও পরিকাঠামো সংক্রান্ত আবেদনও করতে হত অন্যত্র। তা ধাপে ধাপে অনুমোদনের পর কাজের স্তরে পৌঁছতে অনেকটাই সময় লেগে যেত। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেকবারই বলেছেন যে শিল্পের জন্য আগ্রহীদের জমি দান এবং অন্যান্য বিষয়ে লাল ফিতের ফাঁস আলগা করতে হবে। সহজে, দ্রুততার সঙ্গে তাঁদের চাহিদা পূরণ করে দিতে হবে। সেই নির্দেশ মেনে আগেই খানিকটা গতি এসেছিল এই পদ্ধতিতে। তবে এবার সিঙ্গল উইন্ডো সিস্টেম চালু হওয়ায় প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই গোটা পদ্ধতি সম্পন্ন হয়ে যাবে।
 
রাজ্য সরকারের নতুন নিয়ম অনুযায়ী, ছোট, মাঝারি, বড়-যেকোনও ধরনের শিল্পের জন্য জমি দেওয়া হোক না কেন তা দেওয়া হবে এক জায়গা থেকেই। অর্থাৎ সিঙ্গল ইউন্ডো থেকেই জমি পেয়ে যাবেন শিল্পপতিরা। যেসব ইন্ডাস্ট্রিয়াল স্টেটে শিল্পের জন্য জমি তৈরি রয়েছে তার মধ্যে রয়েছে বাঁকুড়ায় ১৮ একর জমি, হাওড়ায় ৩৫ একর জমি, জলপাইগুড়ি ও শিলিগুড়ি মিলিয়ে ৮৪ একর জমি, মুর্শিদাবাদে ১২৯ একর জমি, পশ্চিম মেদিনীপুরে ৪৭৪ একর জমি, পশ্চিম বর্ধমানে ৩৮০ একর জমি, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ২২৭ একর জমি, হুগলিতে ১০ একর ও আলিপুরদুয়ারে ৫৪ একর জমি। সব মিলিয়ে ১৪১১ একর জমি। এছাড়াও রাজ্যের অন্যান্য জায়গায় শিল্প গড়ার মতো যে সব জমি রয়েছে তার মধ্যে নদিয়ার হরিণঘাটা ও কল্যাণীতে মিলবে ২০০ একর জমি, পশ্চিম মেদিনীপুরের গোয়ালতোড়ে মিলবে ৭৬০ একর জমি, পূর্ব মেদিনীপু্রের হলদিয়াতে পাওয়া যাবে ২১৬ একর জমি, পুরুলিয়া্র রঘুনাথপুর ও জয়পুরে মিলবে ৩১৯৯ একর জমি, বাঁকুড়ার বড়জোড়া ও গঙ্গাজলঘাটিতে মিলবে ৫৫ একর জমি, দক্ষিণ দিনাজপু্রের বালিরঘাটে মিলবে ৭ একর জমি ও ঝাড়গ্রামে মিলবে ১৯৩ একর জমি । সব মিলিয়ে ৪৬৩০ একর জমি দিতে পারবে রাজ্য সরকার।  

Comm Ad 2020-Valentine body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-LDC Egg

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

2020 New Ad HDFC 05

Editors Choice

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC