চার পুরসভার ভোটের ভবিষ্যৎ নির্ধারণে শনিবার বৈঠকে কমিশন

Published by:
https://www.eimuhurte.com/wp-content/uploads/2021/09/em-logo-globe.png

Arghya Naskar

14th January 2022 5:36 pm | Last Update 14th January 2022 6:11 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি: আগামী ২২ জানুয়ারি রাজ্যের চার পুরসভায় ভোট হবে কিনা তা নিয়ে বিশেষ বৈঠক ডাকল রাজ্য নির্বাচন কমিশন। আগামী শনিবার রাজ্য নির্বাচন কমিশনের অফিসে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। চার পুরসভার ভোট নিয়ে রাজ্যের অবস্থান জানতে মুখ্যসচিবের সঙ্গেও বৈঠক করবে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কমিশনার সৌরভ দাস। শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের তরফে নির্বাচন কমিশনকে একগুচ্ছ বিষয়ে উত্তর দিতে বলা হয়। আদালতের তরফে জিজ্ঞাসা করা হয়, কোভিডের এই পরিস্থিতিতে কী ভোট ৪ বা ৬ সপ্তাহের জন্য পিছিয়ে দেওয়া যেতে পারে? যদি তা সম্ভব হয় তাহলে কমিশন তা আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে জানিয়ে দিক। অর্থাৎ রাজ্যের চারটি পুরনিগমে আগামী ২২ জানুয়ারি যে নির্বাচন রয়েছে ও এই কোভিড পরিস্থিতিতে তা স্থগিত রাখতে কলকাতা হাইকোর্টে যে মামলা দায়ের করা হয়েছিল সেই মামলাতেই হাইকোর্ট সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা রাজ্য নির্বাচন কমিশনের হাতেই তুলে দিল।

সেই বিষয়েই রাজ্যের সঙ্গে ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সঙ্গে আলোচনা করে বিস্তারিত তথ্য আদালতে দিতে চাইছে কমিশন। আগামী শনিবারই এই বিষয়ে বিস্তারিত জানাবে কমিশন। ২২ জানুয়ারি ভোট হচ্ছে কিনা তা শনিবারেই জানা যাবে বলে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে। আগামী ২২ তারিখ বিধাননগর, চন্দননগর, আসানসোল ও শিলিগুড়ি পুরনিগমে নির্বাচন রয়েছে। কিন্তু রাজ্যে এখন কোভিডের বাড়বাড়ন্ত দেখে ভোট নিয়ে উদ্বেগ ছড়িয়েছে নানান মহলে। অনেকেই মনে করছেন এই আবহে ভোট হলে তা কোভিডের সংক্রমণ আরও বাড়িয়ে দিতে অনুঘটক হয়ে উঠবে। যা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে মামলা হয়। যার শুনানিতে গত বৃহস্পতিবার একগুচ্ছ প্রশ্ন করে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে। বৃহস্পতিবার এই মামলাতেই রাজ্য নির্বাচন কমিশন ও রাজ্য সরকার একে অপরের কোর্টে বল ঠেলেছিল নির্বাচন স্থগিত করার আইনি ক্ষমতা প্রসঙ্গে। তার জেরে ক্ষুব্ধ হয়েছিল হাইকোর্টও। যা শুক্রবার আদালত হস্তক্ষেপ করে কমিশনকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সেই সিদ্ধান্ত নিতে বলেছে আদালত।

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, এই বিষয়ে গত শনিবার ভার্চুয়াল বৈঠক করবে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। কথা বলবে, মুখ্যসচিবের সঙ্গে। রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্তাদের সঙ্গেও কথা বলবেন তাঁরা। তারপর ভোটের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। যদিও শুক্রবার এই মামলা নিষ্পত্তি করে দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে কমিশন ভোটের যাবতীয় সিদ্ধান্ত মামলাকারীদের জানিয়ে দিলেও হবে। আদালতের প্রশ্নের পর, শুক্রবার রাজ্য নির্বাচন কমিশনার আইনজীবীদের পরামর্শ নেন। ভোট পিছিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া কীভাবে করা যায় তার একটা রূপরেখা তৈরি করছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। 

More News:

Leave a Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

নজরকাড়া খবর

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

Subscribe to our Newsletter

134
মিশন দিল্লি, পিকের চাণক্যনীতি কতটা কাজ দিল মমতার?

You Might Also Like