Comm AD 12 Myra

আবারও বঙ্গোপসাগরে দানা বাঁধতে চলেছে নিম্নচাপ! পুজোয় হবে বৃষ্টি

Share Link:

আবারও বঙ্গোপসাগরে দানা বাঁধতে চলেছে নিম্নচাপ! পুজোয় হবে বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিশ্বের মধ্যে সব থেকে বেশি ঘূর্ণীঝড় প্রবণ এলাকা হিসাবে আগেই চিহ্নিত হয়ে গিয়েছে উপমহাদেশের দক্ষিন পূর্বাংশ। একই সঙ্গে বিশ্ব উষ্ণায়নের জেরে ও উপমহাদেশের দক্ষিন পূর্বাংশ জুড়ে সাগরের তীরে থাকা দেশগুলিতে জনসংখ্যার হার ক্রমশই বাড়তে থাকায় সাগরের জলস্তরও ক্রমশ উষ্ণ হয়ে উঠছে। সব মিলিয়ে বঙ্গোপসাগর, আন্দামান সাগর ও ভারত মহাসাগর এলাকা ক্রমশ ঘূর্ণীঝড় প্রবণ হয়ে উঠছে। সেখানে একের পর এক নিম্নচাপের জন্ম হচ্ছে যার মধ্যে কিছু ঘূর্ণীঝড় হচ্ছে বা কিছু অতিগভীর নিম্নচাপ হয়ে স্থলভূমিতে আছড়ে পড়েছে। চলতি বছরই আম্ফান এসে ধাক্কা দিয়েছে বাংলাকে। আর সাম্প্রতিক কালে অন্ধ্র ও তেলেঙ্গানায় যে অত ভারী বৃষ্টি ও বন্যা দেখা যাচভহে তার মূলে রয়েছে একটু অতি গভীর নিম্নচাপ। আর এই সব নিম্নচাপের ঘনঘটায় এখনও পূর্ব ভারত থেকে বর্ষা বিদায় নিতে পারেনি। এবার আগামী সোমবার আরও একটি নিম্নচাপ দানা বাঁধতে চলেছে বঙ্গোপসাগরের বুকে। এর অভিমুখ অন্ধ্র-ওড়িশা উপকূল হলেও বাংলায় বারিধারা ঝরবে পুজোর মধ্যেই।
 
দিল্লির মৌসম ভবন জানিয়েছে সোমবার মধ্য বঙ্গোপসাগরে এই নিম্নচাপ দানা বাঁধবে। তা উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয় বুধবার কী বৃহস্পতিবার অন্ধ্র-ওড়িশা সীমান্ত ছুঁয়ে স্থলভূমিতে প্রবেশ করবে গভীর নিম্নচাপ হিসাবে। এর জেরে উত্তর অন্ধ্র ও দক্ষিন ওড়িশায় ভালো বৃষ্টি হবে। বাংলায় এই নিম্নচাপের সরাসরি কোনও প্রভাব পড়বে না। কিন্তু এই নিম্নচাপের কারনে মৌসুমি অক্ষরেখা অনেকটাই নীচে নেমে আসবে। তার জেরে তা সাগর থেকে জলীয় বাষ্প টানতে সক্ষম হলে পুজোর মধ্যে বাংলায় বিশেষ করে দক্ষিনবঙ্গের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্ত ভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। তবে সবটাই নির্ভর করবে ওই অক্ষরেখা কতটা জলীয় বাষ্প টানতে সক্ষম হয় তার ওপরে। সাধারঞ বর্ষা বিদায়ের মুহুর্তে মৌসুমি অক্ষরেখা দুর্বল হয়ে পড়ে। তারওপর সাগরে নিম্নচাপ থাকায় সেটিও সাগর থেকে জলীয় বাষ্প টানবে। এর ফলে এই অক্ষরেখা কতখানি জলীয় বাষ্প টানতে পারবে সেই নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।
 
তবে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের আধিকারিকদের ধারনা পুজোর সময় ষষ্ঠী থেকে অষ্টমী এই মৌসুমি অক্ষরেখার হাত ধরে কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে বিক্ষিপ্ত ভাবে ভারী বৃষ্টি হবে। সেই বৃষ্টি একনাগাড়ে না চললেও দ ফায় দফায় হবে। আবার নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, দুই বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও বীরভূমে মাঝারি মাপের বৃষ্টি হতে পারে। উত্তরের জেলাগুলিতে বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। তবে দুই দিনাজপুর ও মালদায় হালকা বৃষ্টি হলেও হতে পারে।

Comm Ad 2020-tantuja-body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 006 TBS

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 008 Myra

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 026 BM

Editors Choice

corona 02