Comm Ad 2020-WB Tourism body

'নারদ মামলায় সিবিআই মিথ্যা বলছে, প্রমাণ করে দেব,' আদালতে দাবি লুথরার

Share Link:

'নারদ মামলায় সিবিআই মিথ্যা বলছে, প্রমাণ করে দেব,' আদালতে দাবি লুথরার

নিজস্ব প্রতিনিধি: ভিন রাজ্যে নারদ মামলা হস্তান্তরের শুনানিতে আজ কলকাতা হাইকোর্টে হেভিওয়েট চার নেতার হয়ে সওয়াল করেন আইনজীবি সিদ্ধার্থ লুথরা। তিনি সিবিআই-এর আইনজীবি তুষার মেহতা বলেন, গত ১৭ মে আইনমন্ত্রী নিম্ন আদালতের বিচারপতির উপর প্রভাব খাটিয়েছেন। তুষার মেহতার এই অভিযোগকে খণ্ডন করে পাঁচ বিচারপতির উদ্দেশ্যে লুথরা বলেন, 'তুষার মেহতার বক্তব্য যদি স্বীকার করেও নিই, তাহলে আমরা কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে পড়ব। তাহলে আমাদের বলা হবে যে, মাননীয় বিচারপতিরা যে শপথবাক্য পাঠ করেছেন সেটা একটা কাগজ ছাড়া কিছু নয়। কোনও বিচারপতি মানুষের ধারণার দ্বারা প্রভাবিত হন না'

পাঁচ বিচারপতির বৃহত্তর বেঞ্চের দিকে নিজের বক্তব্যে আইনজীবি লুথরা জানান, 'আমার বিশ্বাস, যে মাননীয় বিচারপতিরা জামিনের ওপর স্থগিতাদেশ দিতেন না। ভুল ধারণার বশবর্তী হয়ে জামিন স্থগিত করেছেন। সিবিআই অত্যন্ত সৃজনশীলভাবে তাদের বক্তব্য পেশ করেছে। জামিন দেওয়ার ক্ষেত্রে হাইকোর্টের সমতুল্য ক্ষমতা নিম্ন আদালতের আছে।' লুথরার বক্তব্য শুনেই পাল্টা প্রশ্ন ছোঁড়েন বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল। তিনি চার নেতার আইনজীবিকে জিজ্ঞাসা করেন, 'এই বক্তব্যের মানে কী? আপনি কি বলতে চাইছেন যে, বিচারপতিরা তাঁদের গ্রহণ করা শপথ মেনে চলেন না?' পাল্টা নিজের বক্তব্যের যুক্তি হিসেবে লুথরা জানান, 'না, আমি বলতে চাইছি, নিম্ন আদালতের বিচারকরা শপথের সঙ্গে সাযুজ্য রেখে নির্ভয়ে রায়দান করেন। মামলায় একজন জিতবে একজন হারবে। আদালতের নিয়ম অনুযায়ী রায় পছন্দ না হলে, উচ্চতর আদালতের দ্বারস্থ হতে হয়। একটা রায় আপনার বিরুদ্ধে গ্যাছে বলে সেটাই মামলা স্থানান্তরের কোনও কারণ হতে পারে না।' 

সিদ্ধার্থ লুথরাকে বিচারপতি বিন্দাল প্রশ্ন করেন তাহলে বাইরে বিক্ষোভ হচ্ছিল সেই বিষয়ে কী বলবেন? যুক্তি দিয়ে লুথরা জানান, 'বাইরে যদি প্রচণ্ড গন্ডগোল চলে, তাহলেও মাননীয় বিচারপতিদের কাজে কে বাধাদান করবে? ১৭-মে সকাল ৮টা ১০-এ সিবিআই হেভিওয়েটদের গ্রেফতার করেছে। কিন্তু, অ্যারেস্ট মেমোতে ৮ টা ৪৫ দেখিয়েছে। এটা কি সিবিআই-এর গ্রেফতারির সংজ্ঞা? জনপ্রতিনিধিদের গ্রেফতার করার আগে অনুমতি নিতে হয়। এখানে গ্রেফতারের পরে নেওয়া হয়েছে। সিবিআই-এর আধিকারিকরা দুপুর ১ টার সময় রাজ্যপালের অফিসার বাইরে বসেছিলেন। সিবিআই সর্বোচ্চ পর্যায়ে গিয়ে আইনকে নিয়ে বিদ্রূপ করেছে। আদালতের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। হেভিওয়েটদের তো বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে, অ্যারেস্ট মেমোতে গ্রেফতারির স্থান নিজাম প্যালেস কেন দেখাচ্ছে সিবিআই? এটা সাংবিধানিক নিয়মের সঙ্গে প্রতারণার সামিল। তারপরেও সিবিআই নীতি-নৈতিকতার কথা বলছে? দায়সারা কাজ করে সেটাকে ন্যায্য বলে উপস্থাপিত করতে চাইছে? অ্যারেস্ট মেমো অনুযায়ী ৪ নেতা-মন্ত্রীকে নিজাম প্যালেস থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। হলফনামা থেকে দেখা যাচ্ছে, প্রত্যেককেই সকালে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাহলে অ্যারেস্ট মেমো কি পরে যুক্ত করা হয়েছে?,' সিবিআই-এর গ্রেফতারি নিয়ে প্রশ্ন করেন লুথরা। পাল্টা বিচারপতি বিন্দাল প্রশ্ন করেন, 'সেটা হলে কি বিক্ষোভের অধিকার অর্জন করা যায়?' সেই প্রসঙ্গে লুথরা জবাবে বলেন, 'প্রোটোকল না মেনেই মদন মিত্রকে গ্রেফতার করা হয়। ২০টির ও বেশি গাড়ি নিয়ে সিবিআই আসে। পরোয়ানা ছাড়াই একজন ব্যক্তিকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। আইনজীবীদের সঙ্গে যোগাযোগের সুযোগ ছিল। তারপরও বলা হচ্ছে, সিবিআই অফিসের বাইরে লোকের জমায়েত ছিল। ভিড় নিয়ন্ত্রণের জন্যে সিবিআই স্থানীয় প্রশাসনের কাছে সাহায্য চাইতে পারত। কিন্তু তারা যেভাবে গ্রেফতার করেছে, তারপর আর সাহায্যও চাইতে পারেনি।' 

লুথরার সওয়াল জবাবের পর আর এক বিচারপতি সৌমেন সেন সিবিআই-এর আইনজীবি সলিসিটার জেনারেলকে প্রশ্ন করেন, 'গ্রেফতারির বৈধতা কি এই মামলার ক্ষেত্রে প্রাসঙ্গিক? সিবিআই-এর বক্তব্য, তারা বিক্ষোভের কারণে অভিযুক্তদের আদালতের সামনে পেশ করতে পারেনি।' সঙ্গেই পাল্টা জবাব দিয়েই আইনজীবি লুথরা জানান, 'আমার মনে হয়, সিবিআই হেফাজতে পায়নি, কারণ, গ্রেফতারিটা ছিল অতিরঞ্জিত, আইন এটার অনুমতি দেয় না। আগে সিবিআই বলেছিল, অভিযুক্তদের হেফাজতে নেওয়ার দরকার নেই এবং আর তদন্তেরও দরকার নেই। হঠাৎ করে ১৭ই মে সব শেষ হয়ে গেল? হঠাৎ করেই সুব্রত মুখোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়, এই ৪জনকে গ্রেফতার করা হল? সওয়াল-জবাবে আর এক বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন জিজ্ঞাসা করেন, 'এই প্রশ্নগুলো জামিনের সঙ্গে সংযুক্ত।  আমরা জামিনের সূক্ষ্মতা বিচার করছি না।' তুষার মেহতা জানান, 'সিবিআইকে একটা বাধা সৃষ্টি করা হয়েছিল, যেটাকে তিনি মানুষের জমায়েত বা বিক্ষোভ বলে অভিহিত করেছেন। জামিনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত বিশেষ আদালত নিতে পারে' চার নেতার আইনজীবি লুথরার উদ্দেশ্যে বিচারপতি টন্ডন প্রশ্ন করেন, 'মামলার এই পর্বে গ্রেফতারির বৈধতা নিয়ে কি বৃহত্তর বেঞ্চ আলোচনা করতে পারে?', উত্তর দিয়ে লুথরা জানান, 'কাজ করতে পারছে না বলে সিবিআই বিচারপতিদের সামনে মনগড়া কথা বলেছে। সিবিআই-এর অভিযোগ মিথ্যা। আমি তা প্রমাণ করে দেব। তখন সিবিআই-এর ঘর ভেঙে যাবে। সিবিআই দাঁত মুখ চেপে মিথ্যা বলছে। সিসিটিভি ফুটেজ বলছে, ১৭ তারিখ, নিজাম প্যালেস থেকে ঢোকা বেরনো ও আদালতে যাওয়া-আসার ক্ষেত্রে কোনও বাধা সৃষ্টি হয়নি।' এদিন টানা কয়েক ঘন্টা নারদ মামলার শুনানির পর পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ জানায় আগামী মঙ্গলবার এই মামলার পরবর্তী শুনানি।   

Comm Ad 005 TBS

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-LDC Egg

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC
Comm Ad 008 Myra