Comm Ad 2020-LDC Haringhata Meet

জল্পনায় শুভেন্দু-মমতা বৈঠক আজ রাতেই! ঘুরবে কী চাকা, তাকিয়ে বাংলা

Share Link:

জল্পনায় শুভেন্দু-মমতা বৈঠক আজ রাতেই! ঘুরবে কী চাকা, তাকিয়ে বাংলা

নিজস্ব প্রতিনিধি: ঝড় শুরু রাজ্য রাজনীতিতে। একদিকে শুভেন্দু অধিকারী দিয়ে দিয়েছেন ইস্তফা রাজ্য মন্ত্রীসভা। থেকে। সেই সঙ্গে আজ মোহন ভাগবতের সঙ্গে আজই বৈঠক থাকছে তাঁর। এর পাশাপাশি বিজেপি সূত্রে জানা যাচ্ছে আগামিকালই দিল্লির পথে পা বাড়াচ্ছেন এই জননেতা। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী সপ্তাহে দিল্লিতে বিজেপির সদর কার্যালয়ে অমিত শাহের উপস্থিতিতেই বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু এই সব হিসেবনিকেষ শেষ মুহুর্তে ঘেঁটে ঘ করে দিতে এবার আসরে নামতে চলেছেন খোদ তৃণমূলসুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, শুভেন্দুকে বৈঠকে ডেকে পাঠিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ রাতেই কালিঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে তাঁর সঙ্গে সেই বৈঠক হতে পারে শুভেন্দু অধিকারীর। তবে এই বিষয়ে প্রকাশ্যে কোনও পক্ষই মুখ খুলছে না।

এখনও পর্যন্ত যা জানা যাচ্ছে তাতে পরিষ্কার শুভেন্দুর বিজেপিতে যোগদানের বিষয়টি তাঁর নিজের ঘনিষ্ঠজন থেকে অনুগামীদের একটা বড় অংশই মেনে নিতে পারছে না। রাজ্য রাজনীতির অভিজ্ঞরাও মনে করছেন শুভেন্দু ভুল পথে পা বাড়াচ্ছেন। এখনই না হোক আগামী দিনে এই পদক্ষেপের জন্য তাঁকে কড়া মাশুল চোকাতে হবে। তাঁর যে ইমেজ ও ভাবমূর্তি রয়েছে তা রীতিমত ক্ষতিগ্রস্থ হবে যদি তিনি এমন একটি দলে যোগদান করেন যাদের বিরুদ্ধে দেশ জুড়ে ভুরি ভুরি দাঙ্গাহাঙ্গামা করার অভিযোগ রয়েছে। গুজরাত দাঙ্গাই হোক কী দিল্লির দাঙ্গা, বাবরি মসজিদ হোক কী রামজন্মভূমি, নোটবন্দি হোক কী লকডাউনকালে পরিযায়ী শ্রমিকদের নির্যাতন, জনপ্রতিনিধি কেনাবেচা হোক কী শিল্পপতিদের টাকা সহ বিদেশ পাড়িতে সহায়তার অভিযোগ, এসবেই কলঙ্কিত হয়েছে গেরুয়া শিবির। সেই শিবিরে যোগদান শুভেন্দুকে রাজনৈতিক ভাবে ধাক্কা দেবে বলেই সবাই যখন মনে করছেন ঠিক তখনই শোনা যাচ্ছে শেষ চেষ্টা একবার করতে পারেন স্বয়ং তৃণমূল সুপ্রিমো। সেই কারনেই সম্ভবত তিনি শুভেন্দুকে ডেকে পাঠিয়েছেন নিজের বাড়িতে। আর এই বৈঠকের দিকেই এখন তাকিয়ে থাকছে বাংলা। কারন এই বৈঠকের পর অনেক কিছুই আবার বদলে যেতে পারে। তৃণমূলে থেকেই যেতে পারেন জননেতা।

তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, মুখ্যত এই বৈঠকে আলোচনার আবর্তে থাকতে পারেন শুভেন্দু নিজেই। দলনেত্রী তাঁকে দল ছাড়ার কারন জিজ্ঞাসা করতে পারেন। কী কী বিষয় নিয়ে তাঁর ক্ষোভ রয়েছে সেগুলি নিজেই জানতে চাইতে পারেন দলনেত্রী। কী দাবি আছে সে সম্পর্কেই শুভেন্দুর কাছ থেকে জানতা চাইতে পারেন তৃণমূল সুপ্রিমো। আদতে তৃণমূল আপ্রাণ ভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে শুভেন্দু অধিকারীকে দলে ধরে রাখতে। কারন শুভেন্দু বিজেপিতে গেলে তৃণমূলের ভোট ব্যাঙ্কে কিছুটা হলেও ধ্বস নামবে। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলা থেকে শুধু ১৮টি আসনই পেয়েছিল তাই নয়, ৩৪ শতাংশ ভোটও পেয়েছিল। সেখান থেকে মাত্র ৩ শতাংশ বাড়তি ভোট পেয়ে তৃণমূল পেয়েছিল ২২টি আসন। তাই রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে তৃণমূল কখনই চাইবে না শুভেন্দুকে হাতছাড়া করতে। তাই দলনেত্রী নিজে এবার শেষ চেষ্টা করে দেখতে চাইছেন এই জননেতাকে দলে ধরে রাখা যায় কিনা। যদিও সেই চেষ্টা কতখানি সফল হবে তা নিয়েও সন্দেহ রয়েছে। তার থেকেও বড় প্রশ্ন নেত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে শুভেন্দু আদৌ এই বৈঠকে যোগ দেন কিনা তা নিয়েই।

Comm Ad 2020-LDC Haringhata Meet

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-himalaya RC

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 006 TBS

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC
Comm Ad 008 Myra