এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




দুর্যোগ মোকাবিলায় কলকাতা পুরসভায় রাত জাগছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম




নিজস্ব প্রতিনিধি: রিমল নিয়ে তৎপর কলকাতা পৌরসভা। কন্ট্রোলরুম খুলে ২৪×৭ তদারকি করা হচ্ছে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম(Mayor Firhad Hakim)। তিনি বলেন,আমরা সবাই দুশ্চিন্তায় আছি। এই ঝড় কলকাতা ছুঁয়ে যাবে । আবহাওয়া অফিস এর সাথে এখন যা কথা হয়েছে তাতে ৬০থেকে ৮০ কিমি বেগে যাবে ঝড়। সকল স্তরের বিভাগের ডিজি ‘র সাথে আমি মিটিং করেছি এই দুর্যোগ নিয়ে। ফিরহাদ হাকিম(Firhad Hakim) আরো বলেন, আমরা আমাদের ১৩ হাজার পার্মানেন্ট লেবার আর ৩৩৮ জন ড্রেনেজ এর লেবার রয়েছে। প্রায় ১৫ হাজার লেবার রাস্তায় নামিয়েছি এই দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য । রাত দুটোর আগে থেকে আমরা গঙ্গায় জল ফেলতে পারব না। তাই লকগেট বন্ধ করে দিতে হবে। প্রায় ৪৮০ টি পাম্প তৈরি রয়েছে।তবে চার পাঁচ ঘণ্টা জল থাকবে ।আমরা ম্যাজিশিয়ান নই। দিনরাত পরিশ্রম করছে সকলে।কলকাতার(Kolkata) অবস্থা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমরা ঠিক করার চেষ্টা করবো ।

জেসিবি ৭ টি, এছাড়া ক্রেন রাস্তায় নামানো আছে। বড়ো ক্রেন রাস্তায় রাখা রয়েছে। বড় গাছ পড়লে সেগুলো দ্রুত সরানোর জন্য । আমফান থেকে শিক্ষা নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় যেমন চেতলা ,পার্ক স্ট্রীট ,সাদার্ন এভিনিউ এসব জায়গায় রাখা হয়েছে ।গাছ পড়লে দ্রুত যাতে সরানো যায় সেকারণে। ২২ টি পাম্প সর্বদা চালানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে । রবিবার বিকেল থেকেই চালানোর কথা বলা হয়েছে। যেখানে জল জমে সেই এলাকায়। আমরা তৈরি আছি। তবে কাজ করতে কিছু সময় লাগে। বৃষ্টি শেষ হওয়ার পর ৪ বা ৫ ঘণ্টা লাগবে কলকাতা থেকে জল সরাতে। আমরা আছি সকলেই রাতে কলকাতা পুরসভায়।আমরা কলকাতা পুরসভা প্রস্তুত রয়েছি ।এই বিপর্যয় মোকাবিলায়। মুখ্যমন্ত্রী(CM) সবসময় খোঁজ নিচ্ছেন, খবর নিচ্ছেন ।আদর্শ হিন্দু বিদ্যালয়ে লোক সরিয়ে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিপদজ্জনক বাড়িতে যারা রয়েছেন তাদের জন্য । জীবনকে বিপদে ফেলবেন না । সকল বোরো মিলিয়ে অনেকগুলো ক্যাম্প রয়েছে টেম্পোরারি।প্রত্যেক বোরো তে ২টি করে স্কুল নেওয়া হয়েছে মানুষ রাখার জন্য ।

কিছু কিছু জায়গায় CSC ও WBCSC লোক দেওয়া হয়েছে। ইমারজেন্সিতে ইলেকট্রিক এর কোনো সমস্যা হলে সমাধানের জন্য ।প্রতি বোরোতে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে এই ইলেকট্রিক এর লোকদের ।যাতে সময়ের অপচয় না হয়।ঢুকতে পারছে না কর্মীরা এমন সমস্যা না হয়। কোনো নেকেড ওয়ারিং নেই বা ল্যাম্প পোস্ট খারাপ নেই রিপোর্ট দিয়েছে WBCSC। রাতে যতক্ষণ পর্যন্ত কলকাতা থেকে এই বিপর্যয় সরে যায় ততক্ষণ আমরা সকলেই আছি কলকাতা পুরসভায়(KMC)। আগামীকাল সকালে অনেকটা জায়গায় কলকাতার জলমগ্ন থাকবে হয়তো । একটু সময় দিলে এগারোটার পর সেগুলো ঠিক হয়ে যাবে। সাধারণ মানুষের উদ্যেশে বার্তা মেয়রের — মানুষকে বলবো বাড়িতে থাকুন । বিপদজ্জনক বাড়িতে থাকলে আমাদের ক্যাম্প রয়েছে সেগুলোতে আসুন নিজেকে রক্ষা করুন । কলকাতা পুরসভা ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আপনাদের জন্য এই বিপর্যয় মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে। যারা উপকূলবর্তী এলাকায় রয়েছেন তাদের বলবো ফ্লাড সেন্টার রয়েছে সেখানে চলে যাওয়া উচিত । শুধু মানুষ নয়, গবাদি পশু রাখারও ব্যবস্থা আছে ।আগে জীবন বাঁচানো উচিৎ। এমনটাই সাংবাদিক সম্মেলনে জানান ফিরহাদ হাকিম।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

নিউটাউনের শংকর নেত্রালয়ে চোখের পরীক্ষা করালেন মুখ্যমন্ত্রী

রিপন স্ট্রিটে গুলি কাণ্ডে জামশেদপুর থেকে গ্রেপ্তার কুখ্যাত গ্যাংস্টার সোনা

বাংলার তিন মন্ত্রীর সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার রাজদূতের বৈঠকের অনুমতি দিল না কেন্দ্র

রেশন দুর্নীতির সঙ্গে যোগ নেই, দাবি ঋতুপর্ণার

রাত ১১ টায় মিলবে না মেট্রো, বদল সময়সূচির

রাজভবনের সামনে শুভেন্দুর ধর্নার আবেদন খারিজ কলকাতা হাইকোর্টের

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর