এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

মুখ পুড়ছে মোদি সরকারের, বিজেপির, ডাক তাই মমতাকে

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রশ্নটা শনি সন্ধ্যাতেই তুলে দিয়েছিলেন কলকাতার মেয়র তথা রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম(Firhad Hakim)। সোজা প্রশ্ন তুলেছিলেন, ‘মমতার প্রকল্পে মমতাই বাদ!’ বস্তুত সেই প্রশ্ন নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা দেশকে। এই এক প্রশ্নের মুখ পুড়েছে মোদি সরকারের। মুখ পুড়েছে বিজেপির। আর তাই রবি দুপুরে তড়িঘড়ি করে বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে নিল রেলমন্ত্রক। জানানো হল সোমবার কলকাতার ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো(East West Metro) রেলের শিয়ালদা(Sealdha) থেকে যে পরিষেবার উদ্বোধন করার কথা রত্যেছে সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে(Mamata Banerjee)। সেই সঙ্গে আমন্ত্রণ জানানো হবে কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম এবং স্থানীয় সাংসদ বিধায়কদেরও। রবিবার রাতের মধ্যেই তাঁদের হাতে আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে যাবে। যদিও আগামিকালের এই অনুষ্ঠানে রাজ্য সরকারের তরফে বা তৃণমূলের তরফে আদৌ কেউ থাকবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যাচ্ছে।

আগামিকাল হাওড়া(Howrah) স্টেশনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো রেলের শিয়ালদা স্টেশন থেকে মেট্রো পরিষেবার উদ্বোধন করা হবে। এখনও পর্যন্ত ঠিক আছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি এই প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। অথচ সেই অনুষ্ঠান ঘিরেই শুরু হয়ে গিয়েছিল তীব্র চাপানউতোর। কেননা অনুষ্ঠানে প্রথমে আমন্ত্রণ জানানোই হয়নি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। মমতা রেলমন্ত্রী থাকাকালীন সময়েই ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের ঘোষণা তথা রূপায়ণ হওয়ার কাজ শুরু হয়েছিল। অথচ সেই মমতাকেই বাদ দিয়ে মোদি সরকার শিয়ালদা থেকে মেট্রো প্রকল্পের সূচনা করতে যাচ্ছিল। আর তার জেরেই তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে রাজ্যজুড়ে। সেই বিতর্কের মাঝেই মক্ষোম প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন ফিরহাদ হাকিম। সেই প্রশ্নবাণ নাড়া দিয়েছিল গোটা দেশকে। তাতে মুখ পোড়ে মোদি সরকারের, মুখ পোড়ে বিজেপির। আর তার জেরে তড়িঘড়ি করে এদিন রেলমন্ত্রকের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় মমতাকে আগামিকালের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানোর।

ফিরহাদ সাফ জানিয়েছিলেন, ‘বাংলার মানুষকে এভাবে বোকা বানানো যায় না। বাংলার মানুষ জানেন এই মেট্রো প্রকল্প মমতাদির পরিকল্পনা। উনিই প্রজেক্ট অনুমোদন করেছিলেন। তখন মমতাদি রেলমন্ত্রী। আর মেট্রোর কাজে প্রতি পদক্ষেপে সহযোগিতা করেছে রাজ্য। জমি দেওয়া থেকে শুরু করে একাধিক সমস্যা ছিল। সব ক্ষেত্রেই রাজ্য সরকার সহযোগিতা করেছে। তারপরেও সৌজন্যবোধের এমন অভাব? বাহানা করে উদ্বোধন থেকে রাজ্যকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। মমতা যাওয়ার জন্য লালিত নয়। কেন্দ্র যদি এ ভাবে অসহযোগিতা করে, তাহলে সহযোগিতা করা কি রাজ্যের পক্ষে সম্ভব?’ শেষে ছিল মক্ষোম তীর, ‘মমতার প্রকল্পে মমতাই বাদ!’ এই প্রশ্নই বিদ্ধ করে মোদি সরকারকে। তার জেরেই এখন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মমতাকে আমন্ত্রণ জানানোর পাশাপাশি আমন্ত্রণ জানানো হবে ফিরহাদ সহ হাওড়ার সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, উত্তর কলকাতার সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, বিধায়ক নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় সহ স্থানীয় সাংসদ ও বিধায়কদের। যদিও মমতা বা ফিরহাদ কিংবা সুদীপ-প্রসূনরা আদৌ আগামিকালের অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ থাকছে। উল্লেখ্য, আগামিকাল এই প্রকল্পের উদ্বোধন হলেও আমযাত্রীরা আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শিয়ালদা থেকে মেট্রো ধরে সেক্টর ফাইভ অবধি যেতে পারবেন। ২০ মিনিট অন্তর পাওয়া যাবে সেই ট্রেন।

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

১জুন শেষ দফার ভোটের দিন কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি

মোদির রোড-শোর পাল্টা পদযাত্রা মমতার, সাক্ষী উত্তর কলকাতা

‘আর সাত-আট দিন প্রধানমন্ত্রী বলতে পারবেন, তার পর আর থাকবেন না’, মোদিকে কটাক্ষ মমতার

রত্না হাজির সভায়, নাম না করে শোভনকে তুলে ধরলেন মমতা

‘এখন বার বার আসছে, ভোট মিটলে আর দেখা মিলবে না’, মোদিকে কটাক্ষ অভিষেকের

Cyclone Rimal জীবন কেড়েছে ৩ শত গাছের, ৫গুণ ক্ষতিপূরণ চায় শহর কলকাতা

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর