এই মুহূর্তে

১০ কোটিরও বেশি জনধন অ্যাকাউন্ট বেপাত্তা, মেনেই নিল কেন্দ্র

Courtesy - Twitter and Google

নিজস্ব প্রতিনিধি: কয়েক মাস আগে সোশ্যাল মিডিয়া(Social Media) পোস্টে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ(TMC Rajya Sabha MP) তথা প্রাক্তন প্রসার ভারতীর প্রধান জওহর সরকার(Jawhar Sircar) অভিযোগ করেছিলেন, দেশে ১০ কোটিরও বেশি জনধন অ্যাকাউন্ট(Jandhan Account) নাকি ‘খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এই আবহে তিনি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীকে একটি চিঠিও লিখেছিলেন। সেই চিঠির জবাব দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী ভগবত কারাড(Bhagwat Karad)। আর সেই চিঠিতেই দেশের প্রাক্তন এই আমলার দাবিকে সত্যি বলেই মেনে নেওয়া হয়েছে। সেই চিঠি জওহর আবার তুলে ধরেছেন তাঁর ট্যুইটার হ্যান্ডেলে। চিঠির প্রতিলিপি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে নিজের পুরনো দাবি নিয়ে ফের একবার সুর চড়িয়েছেন জহর।  

শনিবার তৃণমূল কংগ্রেসকে ট্যাগ করে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম জহর সরকার লেখেন, ‘কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক মেনে নিয়েছে যে ৫১ কোটি জনধন অ্যাকাউন্টের মধ্যে ২০ শতাংশ, অর্থাৎ প্রায় ১০ কোটি অ্যাকাউন্টই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এবং তাতে কোনও লেনদেন হয় না। মন্ত্রী মেনে নিচ্ছেন যে সরকারের ১১,৫০০ কোটি টাকা অব্যবহৃত ভাবে ব্যাঙ্কে পড়ে আছে। যদিও মানুষের পকেটে টাকা পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে বড় সাফল্য এসেছে বলে দাবি করে কেন্দ্রীয় সরকার।’ উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২৮ অগস্ট চালু করা হয়েছিল জনধন অ্যাকাউন্ট স্কিম। প্রত্যন্ত এলাকাতে গরিবদের কাছেও ব্যাঙ্কের পরিষেবা পৌঁছে দিতেই এই প্রকল্পের সূচনা। বর্তমানে ৫০ কোটিরও বেশি মানুষ এই প্রকল্পের আওতায় ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট খুলেছেন। তবে এর মধ্যে প্রায় ১০ কোটি অ্যাকাউন্ট ‘অকেজো’ বলে অভিযোগ উঠেছে। সেই অভিযোগ যে সত্যি সেটা এবার মেনেও নিল নরেন্দ্র মোদির(Narendra Modi) সরকার।

জীবন জ্যোতি বিমা যোজনা, সুরক্ষা বিমা যোজনা, অটল পেনশন যোজনা বা মুদ্রা যোজনার মতো কেন্দ্রের বিভিন্ন প্রকল্পের ভর্তুকি উপভোক্তাদের কাছে পৌঁছে দিতে এই জনধন অ্যাকাউন্টের ব্যবহার করে থাকে কেন্দ্রীয় সরকার। এই আবহে দেশে এত সংখ্যক ‘বন্ধ’ জনধন অ্যাকাউন্টের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করে কার্যত বড়সড় দুর্নীতির দিকেই ইঙ্গিত দিলেন জহর সরকার। এদিকে চিঠিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছেন, কোনও অ্যাকাউন্টে টানা দু’বছর লেনদেন না হলে সেটিকে বন্ধ হিসেবে ধরে নেওয়া হয়। অবশ্য, এরপরে চাইলে সেই অ্যাকাউন্টের সঙ্গে যুক্ত কেওয়াইসি যাচাই করিয়ে সেটিকে ফের চালু করা যায়। এবং তা করতে কোনও বাড়তি খরচও লাগে না। এই আবহে ব্যাঙ্কগুলিকে বন্ধ জনধন অ্যাকাউন্টগুলিকে ফের সচল করার নির্দেশ দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।     

Published by:

Koushik Dey Sarkar

Share Link:

More Releted News:

অ্যামাজনের কীর্তি, আসলের জায়গায় খদ্দেরকে ‘নকল’ আই ফোন ডেলিভারি

যাদবপুরের সার্ভে পার্ক এলাকাতে ভুয়ো কল সেন্টার চক্রের হদিশ, ধৃত ৮

২৭ ফেব্রুয়ারি দুই ঘণ্টার জন্য বন্ধ দ্বিতীয় হুগলি সেতু

শিশুদের বিরল রোগ দূরীকরণে বিশেষ উদ্যোগ নিল কলকাতা পুরসভা

কেন্দ্রের রিপোর্টেই ফাঁস বাংলাকে নিয়ে গেরুয়ার মিথ্যা প্রচার

রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি কেমন, জানতে চাইলেন মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক

Advertisement

এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর