এই মুহূর্তে

খাল সংস্কারে গাফিলতি! ক্ষোভপ্রকাশ পরিবেশ আদালতের

নিজস্ব প্রতিনিধি: লাগাতার বৃষ্টি থেকে বিরতি মিললেও এখনও জলমগ্ন কলকাতার বেশ কিছু এলাকা। বিশেষ করে নিউটাউন, সল্টলেক, লেকটাউনের বিস্তীর্ণ এলাকায় জল নামতেই চাইছে না। এর মূল কারণ খাল সংস্কারে গাফিলতি। জাতীয় পরিবেশ আদালতের নির্দেশে গঠিত রাজ্যের বিশেষজ্ঞ কমিটি এমনই রিপোর্ট দিয়েছে। এই এলাকায় বাগজোলা ও কেষ্টপুর খালের বর্তমান অবস্থার কথা উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টে। ওই রিপোর্ট পাওয়ার পরেই রাজ্যে সেচ ও জলপথ পরিবহণ দফতর এবং পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করল পরিবেশ আদালত।

এই দু’টি খালের দুর্দশা নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করেছিল পরিবেশ আদালত। গড়ে দেওয়া হয়েছিল বিশেষজ্ঞ কমিটি। মামলায় আদালত বান্ধব হিসাবে যুক্ত হয়েছেন বিশিষ্ট পরিবেশ কর্মী সুভাষ দত্ত। বিশেষজ্ঞ কমিটির রিপোর্ট জমা পড়ার পরই বিচারপতি বি অমিত স্থালেকর ও বিশেষজ্ঞ কমিটির সদস্য শৈবাল দাশগুপ্তর বেঞ্চের বক্তব্য, আদালতের আশঙ্কা সঠিক ছিল। চলতি সপ্তাহের বৃষ্টিতেই তার প্রমাণ মিলল। কিন্তু পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর এবং সেচ ও জলপথ পরিবহণ দফতর এই পরিস্থিতি কেন আঁচ করতে পারল না? বিশেষ করে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের অফিস সল্টলেক সেক্টর-২ এ। সল্টলেক-নিউটাউনের কী অবস্থা, তা সবচেয়ে ভাল করে বোঝার কথা এই দফতরের।

পরিবেশকর্মী সুভাষ দত্ত দু’টি খালের বিভিন্ন অংশের ছবি তুলে এবং রাজ্যের বর্জ্য পরিশোধনকেন্দ্রগুলি নিয়ে রিপোর্ট দিয়েছেন আদালতে। যেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, রাজ্যে মোট যে বর্জ্য তৈরি হয়, এসটিপিগুলির ক্ষমতা তার মাত্র ১৬.৪৩ শতাংশ। এবং তারও মাত্র চার শতাংশ ব্যবহার হয়। এই পরিস্থিতির দ্রুত বদল দরকার। দুই দফতরের আইনজীবীকে আদালত হলফনামা দিতে বলেছে। তা বিচার করেই আদালত পরবর্তী শুনানির দিন সেচ ও জলপথ পরিবহণ দফতরের সচিবকে ব্যক্তিগত ভাবে ভার্চুয়াল শুনানিতে হাজির থাকতে বলা হয়েছে। খাল সংস্কারে কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছে, তা জানাতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। পুর-নগরোন্নয়ন দফতরের সচিবকেও হাজির থাকতে বলা হয়েছে শুনানিতে। ২৮ সেপ্টেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানি।

 

 

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

দিলীপ ঘোষ, দেবশ্রী চৌধুরীদের ‘ভাগ্য’ ঝুলে রইল

মুখপাত্র পদে কুণালের ইস্তফা গ্রহণ তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের

বন্ধ কারখানার অব্যবহৃত জমিতেই মাথা তুলবে নয়া শিল্প, নীতি রাজ্যের

প্রধানমন্ত্রীর গলায় এই সমস্ত চিপ পলিটিকস মানায় না : ফিরহাদ হাকিম

সন্দেশখালির প্রাকৃতিক দৃশ্য বারবার আকৃষ্ট করেছে চিত্র পরিচালকদের

প্রকাশ্য দিবালোকে ব্যস্ত লেকটাউনে শিশুর দেহ উদ্ধার

Advertisement

এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর