Comm Ad 005 TBS

পুজোর আগেই ঝাঁ-চকচকে রাস্তা শহরবাসীকে উপহার দিতে উদ্যোগী ফিরহাদ

Share Link:

পুজোর আগেই ঝাঁ-চকচকে রাস্তা শহরবাসীকে উপহার দিতে উদ্যোগী ফিরহাদ

নিজস্ব প্রতিনিধি: বর্ষায় প্রতি বছরই কলকাতার রাস্তার হাল খারাপ হয়। মূলত জল জমার কারনেই এই ঘটনা ঘটে। আবার প্রতি বছর পুজোর আগে ওই সব রাস্তায় সারাইয়ের কাজও হয়। এই কোভিডকালেও সেই কাজে কিন্তু কোনও বিরাম না ঘটারই প্রতিশ্রুতি দিলেন রাজ্যের পুরমন্ত্রী তথা কলকাতা পুরনিগমের মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। তিনি জানিয়েছেন পুজোর আগেই শহরবাসীকে ঝাঁ চকচকে রাস্তা উপহার দেওয়া হবে। বস্তুত শহরের রাস্তার হাল-হকিকত নিয়ে মঙ্গলবার কলকাতা পুরভবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়। পুরসভার বিভিন্ন বিভাগীয় আধিকারিক ছাড়াও পিডব্লিউডি, কেইআইআইপি সহ বিভিন্ন সংশ্লিষ্ট এজেন্সির আধিকারিকেরাও উপস্থিত ছিলেন সেই বৈঠকে।
 
এদিনের বৈঠক শেষে ফিরহাদ হাকিম জানান, ‘অনেক জায়গাতে কেইআইআইপি ভূগর্ভস্থ পাইপলাইনের কাজ চালাচ্ছে। সেখানে রাস্তা এবং জল জমার সমস্যা রয়েছে। সেই সমস্যা সমাধানে আরও কয়েক মাস সময় লাগবে। কিন্তু, পুজোর আগেই মহানগরের খারাপ রাস্তাঘাট পুনরুদ্ধার করা হবে। ১৫ অক্টোবরের মধ্যে সব কাজ শেষ হয়ে যাবে। সেই মতই আধিকারিকদের পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’ কলকাতা পুরনিগম সূত্রে জানা গিয়েছে, পুরকর্তৃপক্ষের হাতে থাকা শহরের ২৬টি রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ। সেগুলি দ্রুত সারাই করা হবে। যদিও আম্ফান পরবর্তী সময়ে শহরের বিভিন্ন রাস্তাঘাট সংস্কারের কাজে হাত লাগিয়েছে পুরনিগম। ইতিমধ্যে একাধিক রাস্তায় প্যাচওয়ার্কের কাজও সম্পন্ন হয়েছে। বিভিন্ন ওয়ার্ডের অলিগলিতেও রাস্তা সারাইয়ের কাজ চলছে। সামগ্রিকভাবে সব রাস্তা সংস্কার করতে পুরনিগমের প্রায় ৩০ কোটি টাকার প্রয়োজন। ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তাই টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ করতে বলা হয়েছে।
 
এর বাইরেও কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট, কেএমডিএ, পিডব্লিউডি এবং সেচদফতরের হাতে থাকা রাস্তাগুলির দ্রুত ঠিক করার জন্য পদক্ষেপ নেওয়ার আর্জি জানিয়েছে কলকাতা পুরনিগম। পোর্ট ট্রাস্টের হাতে থাকা হাইড রোড, স্ট্যান্ড ব্যাংক রোড, ট্রান্সপোর্ট ডিপোর্ট সহ ৯টি রাস্তার অবস্থা অত্যন্ত খারাপ। সেই ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বন্দর কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিতে বলেছেন পুরমন্ত্রী। পাশাপাশি, সেচদফতরের হাতে থাকা রাইচরণ সাধুখাঁ রোড, এম এন গাঙ্গুলি রোড এবং টি কে মুখার্জি রোড ঠিক করার জন্যও শুভেন্দু অধিকারীর দফতরকে বলা হয়েছে। তারাতলা রোড, ডায়মন্ড হারবার রোডের আংশিক, দমদম রোড, বিটি রোড, আরজিকর রোড, ক্ষুদিরাম বসু সরণি রয়েছে পিডব্লিউডি' র অধীনে। সেগুলিও পুজোর আগেই সংস্কার করতে বলা হয়েছে। কেএমডিএ'র অধীনে থাকা ইএম বাইপাস সহ চারটি রাস্তাও সংস্কার করা হবে বলে পুরনিগম সূত্রে জানা গিয়েছে।

corona 01

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 008 Myra

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে পতাকা উত্তলন দিয়ে শুরু হল শতবর্ষ পালনের উৎসব

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে পতাকা উত্তলন দিয়ে শুরু হল শতবর্ষ পালনের উৎসব

তারপর প্রদীপ জ্বালালেন কর্মকর্তা ও প্রাক্তনেরা

তারপর প্রদীপ জ্বালালেন কর্মকর্তা ও প্রাক্তনেরা

ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা রাজা সুরেশ চন্দ্র চৌধুরী

ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা রাজা সুরেশ চন্দ্র চৌধুরী

উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও অন্যান্যরা

উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও অন্যান্যরা

তবে আইএসএল খেলা নিয়ে কোনও উচ্চবাচ্যই করলেন না কর্তারা

তবে আইএসএল খেলা নিয়ে কোনও উচ্চবাচ্যই করলেন না কর্তারা

মন্ত্রী শ্রী অরূপ বিশ্বাস মহাশয়কে পুষ্পস্তবক দিয়ে অভিবাদন জানান সভাপতি

মন্ত্রী শ্রী অরূপ বিশ্বাস মহাশয়কে পুষ্পস্তবক দিয়ে অভিবাদন জানান সভাপতি

শতবর্ষযাপনের কেক কাটেন অরূপ বিশ্বাস ও ক্লাবকর্তা এবং সভ্যবৃন্দ

শতবর্ষযাপনের কেক কাটেন অরূপ বিশ্বাস ও ক্লাবকর্তা এবং সভ্যবৃন্দ

উপস্থিত ছিলেন অতীতের অনেক দিকপাল খেলোয়াড়েরা

উপস্থিত ছিলেন অতীতের অনেক দিকপাল খেলোয়াড়েরা

উপস্থিত ছিলেন বহু সভ্য ও সমর্থক

উপস্থিত ছিলেন বহু সভ্য ও সমর্থক

প্রকাশ করা হয় বিশেষ স্মারক গ্রন্থও

প্রকাশ করা হয় বিশেষ স্মারক গ্রন্থও

কিন্তু আইএসএল নিয়ে কোনও কথা না বলায় প্রকাশ্যেই হতাশ সমর্থকেরা

কিন্তু আইএসএল নিয়ে কোনও কথা না বলায় প্রকাশ্যেই হতাশ সমর্থকেরা

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

#

#

Voting Poll (Ratio)

corona 02

Editors Choice

Comm Ad 025 Confed