Comm Ad 2020-Valentine body

নাড্ডা আর অমিতের বঙ্গ সফর নিয়ে কটাক্ষ সৌগতর

Share Link:

নাড্ডা আর অমিতের বঙ্গ সফর নিয়ে কটাক্ষ সৌগতর

নিজস্ব প্রতিনিধি: আগামী বছরেই পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের ৫টি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন রয়েছে। সেই সব রাজ্যের মধ্যে অসমে ইতিমধ্যেই বিজেপি ক্ষমতায় রয়েছে। পন্ডিচারী কেন্দ্র শাসিত রাজ্য, সেখানে বিজেপির কার্যত কোনও অস্ত্বিত্বই নেই। তামিলনাড়ুতে ক্ষমতাসীন এআইএডিএমকে’র সঙ্গেই জোট ধরে রাখছে বিজেপি। আর কেরলে বিজেপির ক্ষমতা দখলের ধারে কাছে ঘেঁষতে পারেনি। বিধানসভায় তাঁদের কোনও বিধায়কই নেই। বাকি থাকলো এই বাংলা, যেখানে গত বিধানসভা নির্বাচনেই বিজেপি ৩জন সাংসদ পেয়েছে। আর লোকসভায় পেয়েছে ১৮জন সাংসদ। তাই গোটা গেরুয়া শিবিরের নজরে এখন বাংলা। যেনতেন প্রকারনে চাই এই রাজ্যের ক্ষমতা। আর তাই অমিত শাহ হোক কী জে পি নাড্ডা সকলেই আসা শুরু করে দিয়েছেন বাংলার বুকে। কিন্তু এবার বিজেপির এই দুই শীর্ষনেতার বঙ্গ সফরকেই কটাক্ষ হানলো তৃণমূল। এদিন দুপুরে কলকাতার তপসিয়ায় তৃণমূল ভবনে সাংসদ সৌগত রায় সাংবাদিক বৈঠকে তীব্র কটাক্ষ হানলেন শাহ ও নাড্ডাকে।
 
জানা গিয়েছে, আগামী মাসের ৮-৯ তারিখ বাংলায় ২দিনের সফরে আসছেন নাড্ডা। জেলাতে সাংগঠনিক বৈঠকের পাশাপাশি কলকাতায় হতে পারে জেপি নাড্ডার একটি সভা। যদিও তাঁর সফরসূচি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। চলতি মাসে জেপি নাড্ডার নেতৃত্বে উত্তরবঙ্গের প্রশাসনিক ভবন উত্তরকন্যা অভিযানের কথাও ছিল। তবে পরে সেই সফর বাতিল হয়ে যায়। পরিবর্তে রাজ্যে আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠকে ২০০টি আসনের টার্গেটও বেঁধে দেন তিনি। এবার ৮ ও ৯ ডিসেম্বর জেপি নাড্ডার রাজ্য সফরের কথা শোনা যাচ্ছে। এদিন সেই নাড্ডার সফরকে কটাক্ষ হেনে সৌগত রায় বলেন, ‘হিমাচলের মত ছোট রাজ্য থেকে এসেছেন জে পি নাড্ডা। যেখানে মাত্র ৪টে লোকসভা আসন। উনি পরামর্শ দেবেন বাংলা নিয়ে, যেখানে ৪২টা আসন। বাংলাটা বুঝুন আগে। এখনকার সমস্যা কী জানুন। পরিযায়ী পাখিদের মতো বেড়াতে এসেছেন।’ 
 
এরপরই সৌগতের নিশানায় চলে আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তাঁকে কটাক্ষ হেনে সৌগত বলেন, ‘ভেবেছিলাম, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে অমিত শাহ এখানে এসে বিএসএফ নিয়ে খবর নেবেন। গরু পাচার রোখা যাচ্ছে কি না খোঁজ করবেন। রাজ্যের নিরাপত্তা নিয়ে বলবেন। নেপালে ভারত বিরোধী কিছু হচ্ছে কিনা তা জানতে চাইবেন। তা না করে বাঁকুড়ায় ভুল একটি মূর্তিতে মালা দিলেন। কলকাতায় আমার কেন্দ্রের পাশে এসে মতুয়া বাড়িতে খেলেন। এসব কি ওঁকে সাজে? বল্লভভাই প্যাটেল কি এসব করতেন?’ বস্তুত বিরসা মুন্ডা মূর্তি বিতর্কে যে জঙ্গলমহলের বুকে বিজেপি এততা চাপে পড়ে যাবে সেটা গেরুয়া শিবিরেরে কার্যত কেউই বুঝতে পারেননি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও এখন বাঁকুড়া সফরে গিয়ে অমিত শাহকে নাম না করেই বার বার কটাক্ষ হানছেন তাঁর মধ্যাহ্নভোজের কর্মসূচি নিয়ে। কার্যত গোট ঘটনা নিয়ে যতই সময় গড়াচ্ছে ততই মুখ পুড়ছে বিজেপির।

Comm Ad 005 TBS

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-LDC Momo

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-Valentine RC

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-LDC Momo
Comm Ad 2020-WB Tourism RC