Comm Ad 005 TBS

জিতেও কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে তৃণমূল, শক্তপোক্ত বিরোধী বেঞ্চ

Share Link:

জিতেও কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে তৃণমূল, শক্তপোক্ত বিরোধী বেঞ্চ

নিজস্ব প্রতিনিধি: টানা তিনমাস টান টান উত্তেজনার অবসান। গতবারের চেয়েও বেশি আসন পেয়ে তৃতীয়বারের জন্য বাংলার মসনদে তৃণমূল কংগ্রেস। ধুয়ে মুছে সাফ বাম-কংগ্রেস। তবে বাংলার প্রধান বিরোধী দলের তকমা পেল বিজেপি। এটাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠতে পারে শাসকদলের কাছে। কারণ বাম-কংগ্রেসের তুলনায় বর্তমানে অনেক বেশি শক্তিশালী দল বিজেপি। যার ছাপ পড়বে রাজ্য বিধানসভাতেও। 

একটা সময় কংগ্রেস বাংলার রাজত্বে থাকলেও বিরোধী শিবির ছিল শক্তপোক্ত। ৩৪ বছরের বাম জমানাতে কংগ্রেস কিন্তু সেভাবে দলকে মেলে ধরতে পারেনি। যা করে দেখিয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস। ১৯৯৮ সালে দল গঠন করেই ২০০১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ৬০টি আসন দখল করেছিল। ২০০৬ সালে আসন সংখ্যা কমলেও তৃণমূলের দাপট কমেনি। যার ফলস্বরূপ ২০১১ সালে রাজ্যে ক্ষমতায় আসে দল। একসময় যে জায়গায় ছিল তৃণমূল এখন সেই স্থানেই উঠে এল বিজেপি। ৩টি আসন থেকে একধাপে ৭৭।  যা স্বাভাবিকভাবেই চিন্তার বিষয় শাসকদল তৃণমূলের। কৃষ্ণনগর উত্তর বিধানসভা থেকে জিতে আসা মুকুল রায় জীবনে প্রথমবার বিধায়ক হলেও, খুব সম্ভবত তিনিই রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা হতে পারেন। অন্যদিকে নন্দীগ্রামে মমতাকে হারানো শুভেন্দু অধিকারীও বিজেপির এখন একটা ভরসাদায়ক মুখ। তিনিও অন্যতম ভূমিকা নিতে পারেন বিধানসভা কক্ষে। 

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, একুশের নির্বাচন যতটা না তৃণমূল বনাম বিজেপি হয়েছে, তার চেয়েও বেশি মানুষ ভেবেছে কেন্দ্রের শাসকদলের অনাচার নিয়ে। করোনা পরিস্থিতিতে ডাহা ফেল মোদি সরকার। সারাদেশে নতুন কোনও শিল্প, চাকরি নেই। বেকারত্বের হার সর্বকালীন রেকর্ড করেছে। অর্থনীতি কার্যত ভেঙে পড়েছে। পেট্রোপণ্য, রান্নার গ্যাস থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের আকাশছোঁয়া দাম। তার ওপর বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে সাম্প্রদায়িক হিংসা, নারী-নির্যাতনের কথা এ রাজ্যের কারও অজানা নয়। সবকিছু বিচার করেই একুশের নির্বাচনে রাজ্যবাসী মূলত বিজেপির বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে। এদিকে সিরপিএম বা কংগ্রেসের সেই ঝাঁঝ নেই, ফলত বিজেপিকে রুখতে পারে একমাত্র তৃণমূল। অনেকটা এই ভাবনা থেকেই তৃণমূলে সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোট পড়েছে। হয়তো সেই কারণেই ২১৩ আসন পাওয়ার পরেও হাফ ছেড়ে বাঁচার উপায় নেই জোড়াফুল শিবিরের। কারণ, দলের নিচুতলার নেতাদের দুর্নীতি সম্পর্কেও ওয়াকিবহল বাংলার মানুষ। এই পরিস্থিতিতে বাংলার মানুষকে সঙ্গে নিয়ে চলতে হলে, প্রথমেই ইস্তেহার মেনে কাজ শুরু করতে হবে তৃণমূলকে। 

শুধু তাই নয়, ওয়াকিবহল মহলের মতে প্রধান বিরোধী দলের তকমা পাওয়া বিজেপি আরও কঠোর ভাষায় তৃণমূলের শাসনের ব্যর্থতা ও ভুলগুলো ধরিয়ে দেবে। সেগুলির সমালোচনা না করে দ্রুত ভুল শুধরে নিতে হবে সরকারকে। রাজনীতির মাঠে সংকীর্ণ হিন্দুত্ববাদকে ছড়িয়ে দিয়ে বিজেপির বড় জনসমর্থন তৈরির সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যায় না। সেক্ষেত্রে রাজ্যে শান্তির পরিবেশ বিঘ্ন ঘটানোর সুযোগ খুঁজবে বিজেপি, তা পরিস্কার। কিন্তু রাজ্যে যাতে কোনওরকম হিংসা না হয়, সেদিকটাও নিশ্চিত করতে হবে তৃতীয়বারের তৃণমূল সরকারকে। তা না হলে, শক্ত বিরোধী দল বিজেপির ভবিষ্যৎ ক্রমশ উজ্জ্বল হয়ে উঠতে পারে বঙ্গ রাজনীতিতে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

Comm Ad 2020-LDC epic

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 026 BM

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-himalaya RC

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

Voting Poll (Ratio)

2020 New Ad HDFC 05
Comm Ad 008 Myra