Comm Ad 2020-Valentine body

প্রাণখুলে হাসুন! ব্যবহার করুন হাস্যরস বোধ

Share Link:

প্রাণখুলে হাসুন!  ব্যবহার করুন হাস্যরস বোধ

নিজস্ব প্রতিনিধি: Sense of humour বা হাস্যরস বোধ। এটি একটি বোধ বা sense, যা আমাদের জীবনে খুবই প্রয়োজন।আমরা সচরাচর এটা নিয়ে চর্চা করি না।

কেন জীবনে হাস্যরসের প্রয়োজন

অন্যের দিক থেকে দেখতে গেলে হাস্যরস বোধ আমাদের যোগাযোগ ব্যবস্থাকে অনেক কার্যকর এবং সুন্দর করে তোলে। এতে ব্যক্তিত্ব আকর্ষণীয় হয়। অন্যজন আপনাকে পছন্দ করবে, আপনার সঙ্গ কামনা করবে এবং সাথে থাকতে চাইবে।

নিজের দিক থেকে এটি কষ্টের বোধকে কমায়, দৃষ্টিভঙ্গিকে পরিবর্তন করতে সাহায্য করে, নিজেকে হাসিখুশি রাখতে সাহায্য করে।

বাচ্চার সাথে সুস্থ এবং সুন্দর সম্পর্ক বজায় রাখার ক্ষেত্রে হাস্যরস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবসময় বলে থাকি বাচ্চার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ ভাবে মেশার জন্য। হাস্যরস বন্ধুত্বপূর্ণ যোগাযোগ তৈরি করতে খুবই সাহায্য করে। এক্ষেত্রে বাচ্চারা সহজভাবে বাবা-মার সাথে যোগাযোগ করতে পারে।

স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক হাস্যরস অনেক সুন্দর ও সহজ স্বাভাবিক করতে পারে। যে কোন জোকস শুনে শেয়ার করা, মজার কোনো ঘটনা শেয়ার করা থেকে শুরু করে হাসিখুশি খোলামেলা সম্পর্ক দুজনেই পছন্দ করেন।

শিক্ষার ক্ষেত্রে আমরা যারা শিক্ষকতার কাজে নিযুক্ত এবং আমরা যারা শিক্ষার্থী উভয় পক্ষই অনুভব করি যে, হাস্যরসের মাধ্যমে শিক্ষাদান ছাত্রছাত্রীকে শিক্ষা গ্রহণ করতে উদ্বুদ্ধ করে। তাদের মনোযোগ বজায় রাখতে সাহায্য করে এবং শিখন পদ্ধতি টা অনেক আরামদায়ক এবং আনন্দপূর্ণ করে তোলে।

গবেষণায় দেখা গেছে যে হাস্যরস আপনার মানসিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে পারে, আপনার আকর্ষণ বাড়িয়ে তুলতে পারে এবং আপনার নেতৃত্বের দক্ষতার উন্নতি করতে পারে।হাস্যরসের মাধ্যমে একটি কঠিন জীবনও সহজ এবং দক্ষ হয়ে উঠতে পারে। গবেষণায় আরও দেখা গেছে এটি মনের ও শরীরের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ায়। নেতিবাচক জীবনকে একটি ইতিবাচক কাঠামো দিতে সাহায্য করে। হাসি কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে পারে এবং হৃদস্পন্দন, রক্তচাপ এবং পেশী টান কমায়।

এখন প্রশ্ন হল এটি কি অভ্যাস করা যেতে পারে?

সকলের হাস্যরসের বোধ একরকম নয়। জীবনে নেতিবাচকতা কমাতে এটি কিছুটা হলেও অভ্যাস করা যেতে পারে।

১) কমেডি বিষয়ের ছবি দেখা, বই পড়া, জোকস পড়া সেটা শেয়ার করা। এগুলি তাৎক্ষণিকভাবে বিক্ষিপ্ত মন কে হাস্যরসের উপাদান দিয়ে ইতিবাচকতা বাড়ায়।

২) যে কোন জিনিসের মজার দিকটি দেখার অভ্যাস করা যেতে পারে। এটি অভ্যাসের মাধ্যমে খারাপ পরিস্থিতিতেও ভালো থাকা যায়।

৩) আপনার পরিসরে মজার মানুষদের সাথে সময় কাটান। তাদের সাথে আড্ডা দিয়ে হাসি ও মজা উপভোগ করা শিখে নিন। প্রতিটি ছোটো ছোটো হাসি জীবনের মান উন্নত করে। দৃষ্টিভঙ্গিকে উন্নত করে।

৪) সতর্ক থাকতে হবে যাতে অন্যের দুর্বলতা নিয়ে মজা করার মাধ্যমে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করার চেষ্টা না করি। অত্যধিক মজা করার মাধ্যমে কারুর অপমান যেন না হয়।

ইতিবাচক থাকুন এবং আরও হাসুন।

লেখক : পুষ্পিতা মুখার্জি (মনোবিদ ও শিক্ষিকা)

Puja21-Ad02

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

WBLDC Adv 010

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

2020 New Ad HDFC 05

নিউ ইয়র্কে শুরু হল মেট গালা ২০২১। নিউইয়র্কে এই অনুষ্ঠানে ছিল তারকাদের ভিড়। ফ্যাশন, স্টাইল ও দুর্দান্ত ডিজাউনে সব তারকারা হাজির হয়েছিলেন বিচিত্র সব পোশাক পরে। মেট গালার রেড কার্পেটে হাঁটার জন্য কী পরবেন সেলেবরা, তার প্রস্তুতি চলতে থাকে বছরের পর বছর ধরে। করোনার কারণে গত বছর আসরটি বসেনি। তাই এবার যেন তারার মেলা বসে গিয়েছিল।

নিউ ইয়র্কে শুরু হল মেট গালা ২০২১। নিউইয়র্কে এই অনুষ্ঠানে ছিল তারকাদের ভিড়। ফ্যাশন, স্টাইল ও দুর্দান্ত ডিজাউনে সব তারকারা হাজির হয়েছিলেন বিচিত্র সব পোশাক পরে। মেট গালার রেড কার্পেটে হাঁটার জন্য কী পরবেন সেলেবরা, তার প্রস্তুতি চলতে থাকে বছরের পর বছর ধরে। করোনার কারণে গত বছর আসরটি বসেনি। তাই এবার যেন তারার মেলা বসে গিয়েছিল।

দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন লিল নাসকের রাজকীয় পোশাক। সোনালি সুপারহিরোর পোশাকে হাজির ছিলেন তিনি।

দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন লিল নাসকের রাজকীয় পোশাক। সোনালি সুপারহিরোর পোশাকে হাজির ছিলেন তিনি।

সম্পূর্ণ কালো পোশাক নজর কাড়লেন কিম কারদাশিয়ান।

সম্পূর্ণ কালো পোশাক নজর কাড়লেন কিম কারদাশিয়ান।

রালফ লরেনের তৈরি পশমের পোশাকে ধরা দিয়েছেন জেনিফার লোপেজ। সঙ্গে ছিলেন বেন অ্যাফ্লেক। এ বার সামাজিক অনুষ্ঠানেও দেখা দিলেন যুগলে। মেট গালা ২০২১-এর হোয়াইট কার্পেটে অবশ্য আলাদাই হাঁটলেন জেনিফার ও বেন। ভিতরে গিয়ে মাস্ক পরেই চুম্বনে মগ্ন হলেন দুই তারকা।

রালফ লরেনের তৈরি পশমের পোশাকে ধরা দিয়েছেন জেনিফার লোপেজ। সঙ্গে ছিলেন বেন অ্যাফ্লেক। এ বার সামাজিক অনুষ্ঠানেও দেখা দিলেন যুগলে। মেট গালা ২০২১-এর হোয়াইট কার্পেটে অবশ্য আলাদাই হাঁটলেন জেনিফার ও বেন। ভিতরে গিয়ে মাস্ক পরেই চুম্বনে মগ্ন হলেন দুই তারকা।

সুপার মডেল ইমন চমত্কার পালকযুক্ত স্বর্ণ এবং বেইজ হেডড্রেস এবং স্কার্ট বেছে নিয়েছিল। মাথার পিছনে বসানো সাদা আর সোনালি হেড পিস দেখাল চক্রের মতো।

সুপার মডেল ইমন চমত্কার পালকযুক্ত স্বর্ণ এবং বেইজ হেডড্রেস এবং স্কার্ট বেছে নিয়েছিল। মাথার পিছনে বসানো সাদা আর সোনালি হেড পিস দেখাল চক্রের মতো।

Voting Poll (Ratio)

WBLDC Adv 010
WBLDC Adv 015