2020 New Ad HDFC 04

ভুল জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বিহারের শিক্ষামন্ত্রীর ইস্তফা

Share Link:

ভুল জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বিহারের শিক্ষামন্ত্রীর ইস্তফা

নিজস্ব প্রতিনিধি, পটনা: বিহারের ভবিষ্যত নাগরিকদের সুশিক্ষা দেওয়ার গুরু দায়িত্ব তাঁর কাঁধে। অথচ তিনিই জানেন না দেশের জাতীয় সঙ্গীত। শুধু জানেন না তাই নয়, নিজের অপদার্থতা আর ব্যর্থতা লুকোতে গিয়ে আরও গর্হিত আচরণ করেছিলেন। জাতীয় সঙ্গীতের কথা ভুলে গিয়ে সেখানে নিজের মনগড়া শব্দও বসিয়ে দিয়েছিলেন। নীতীশ কুমারের শিক্ষামন্ত্রীর এমন কুকীর্তি নিমেষেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছিল গোটা দেশজুড়ে। শেষ পর্যন্ত সেই সমালোচনার হাত থেকে বাঁচতে ইস্তফা দিলেন বিহারের গুণধর শিক্ষামন্ত্রী মেওয়ালাল চৌধুরী। শপথ নেওয়ার মাত্র ৭২ ঘন্টার মধ্যেই ইস্তফা দিতে হল তাঁকে।

বিহারের রাজনীতিতে বরাবরই বিতর্কিত চরিত্রের মেওয়ালাল চৌধুরী। দুর্নীতি সহ একাধিক অভিযোগ থাকলেও মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ হওয়ার কারণে তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ বিরোধীদের। এমনকী সংযুক্ত জনতা দলের অনেক নেতাই মেওয়ালালকে সহ্য করতে পারেন না। কিন্তু নীতীশের রোষানলে পড়ার ভয়ে তাঁরা মুখ খোলার সাহস পান না।

গত সোমবারই নীতীশ কুমারের সঙ্গে মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন মেওয়ালাল চৌধুরী। পরের দিন মঙ্গলবার নয়া মন্ত্রীদের মধ্যে দায়িত্ব বন্টনের সময়ে নিজের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ মেওয়ালালের হাতে শিক্ষা দফতরের দায়িত্ব তুলে দিয়েছিলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী। আর তার পর থেকেই নীতীশ সরকারের বিরুদ্ধে অলআউট আক্রমণে ঝাঁপিয়ে পড়েন আরজেডি নেতারা। তিন বছর আগে ২০১৭ সালে মেওয়ালাল চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, ভাগলপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থাকাকালীন নিয়ম বহির্ভূতভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী অধ্যাপক ও জুনিয়র বিজ্ঞানীদের নিয়োগ করেছিলেন। আর্থিক সুবিধার বিনিময়েই ওই কাজ করেছিলেন তিনি। এমনকী তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগে ফৌজদারি মামলাও দায়ের হয়। সেই সময়ে বিহারে বিরোধী দলে থাকা বিজেপি নেতারাও মেওয়ালালের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন। চাপের মুখে পড়ে ঘনিষ্ঠ মেওয়ালালকে দল থেকে সাসপেন্ডও করেন জেডিইউ সুপ্রিমো নীতীশ কুমার।

দুর্নীতির অভিযোগে দল থেকে একসময়ে যাঁকে সাসপেন্ড করেছিলেন, তাঁকে কীভাবে এবার মন্ত্রিসভায় ঠাঁই দেওয়া হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিহারের মুখ্যমন্ত্রীকে লাগাতার বিঁধতে থাকেন তেজস্বী যাদব সহ আরজেডি নেতারা। নীতীশ কুমারের উদ্দেশে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, আপাদমস্তক দুর্নীতিগ্রস্থ একজনকে মন্ত্রী করে কোন নজির গড়লেন স্বঘোষিত ‘সুশাসন বাবু’ মুখ্যমন্ত্রী? এর পরেও কোন মুখে তিনি সুশাসনের কথা বলবেন?  শেষ পর্যন্ত দল এবং মুখ্যমন্ত্রীকে অস্বস্তির হাত থেকে বাঁচাতে ইস্তফার সিদ্ধান্ত নেন বিহারের শিক্ষামন্ত্রী। এদিন দুপুরেই মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের কাছে ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দেন।

 

Comm Ad 2020-LDC epic

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-LDC Egg

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 006 TBS

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC

Editors Choice

Comm Ad 2020-LDC Egg