Comm AD 12 Myra

১৫ বছর বয়সেই মহিলারা সন্তান ধারণে সক্ষম, বিয়ের বয়স বাড়িয়ে লাভ কী? প্রশ্ন কংগ্রেস নেতার

Share Link:

১৫ বছর বয়সেই মহিলারা সন্তান ধারণে সক্ষম, বিয়ের বয়স বাড়িয়ে লাভ কী? প্রশ্ন কংগ্রেস নেতার

indian women marrige

নিজস্ব প্রতিনিধি, ভোপাল: মধ্যপ্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন মন্ত্রীসভার সদস্যের মন্তব্যে বিতর্ক। মহিলাদের বিবাহের বয়সসীমা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন পূর্তমন্ত্রী সজ্জন সিং ভর্মা। মহিলাদের বিবাহের বয়সসীমা প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলে বসেন, একজন মহিলা ১৫ বছর বয়সেই গর্ভধারণে সক্ষম, তাহলে বিয়ের বয়স বাড়িয়ে ১৮-২১ করার মানে কী?

আর কংগ্রেস নেতার এই মন্তব্যেই বিতর্ক শুরু হয়েছে। সজ্জন সিং ভর্মা মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথের ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত। তাই তাঁর বিরুদ্ধে আক্রমন শানাতে পিছপা হননি বিজেপি নেতারা। মহিলাদের নিয়ে এহেন মন্তব্য করার জন্য ওই কংগ্রেস নেতার নিঃস্বার্থ ক্ষমার দাবি জানিয়ে, অবিলম্বে তাকে কংগ্রেস থেকে পদচ্যুত করার সুপারিশ করেছে মধ্যপ্রদেশের বিজেপি নেতারা। যদিও এই ঘটনায় নোংরা রাজনীতিই দেখছে মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতৃত্ব। সজ্জন সিং ভর্মার এই মন্তব্যের নিরিখে মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেসের তরফ থেকে কোনও অনুতাপ প্রকাশ না করে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন। সজ্জনের মহিলাদের বিবাহের বয়স সংক্রান্ত মন্তব্যের বিষয়ে সাফাই দিতে গিয়ে বিজেপিকেই বিঁধেছেন মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেসের মুখপাত্র ভূপেন্দ্র গুপ্তা। তিনি বলেছেন, একটি সামান্য বিষয় নিয়ে বিতর্ক তৈরি করা হচ্ছে।

ঘটনার সূত্রপাত কিছুদিন আগেই, মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান রাজ্যের মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধ সম্পর্কিত বিষয়ে একটি জনসচেতনতা অভিযানের সূচনা করেন। আর এই জনসচেতনতা মূলক অভিযানে, মহিলাদের বিয়ের বয়সের উর্দ্ধসীমা নিয়ে একটি আলোচনা সভাতেই, এই বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন কংগ্রেস নেতা সজ্জন সিং ভর্মা।


বর্তমান আইন মাফিক মহিলাদের বিয়ের সর্বনিম্ন বয়স ১৮ বছর। যেখানে ভারতীয় পুরুষেরা ২১ বছর বয়সে বিবাহযোগ্য হন। আর সেই কারণেই মহিলাদের বিয়ের বয়সও ২১ বছরে করার পক্ষপাতি মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। আর এই ঘটনাকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি কংগ্রেস নেতা সজ্জন সিং ভর্মা। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, শিবরাজ সিং চৌহান কী বড় ডাক্তার নাকি বিজ্ঞানী? যে উনি মহিলাদের বিয়ের বয়সের ১৮ থেকে ২১ বছরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন?

তিনি এও বলেছেন, আমি নিজের বক্তব্য বলিনি। ডাক্তাদের রিপোর্টের ভিত্তিতেই ওই মন্তব্য করি। ডাক্তারদের মতে, একজন মহিলা ১৫ বছর বয়সেই সন্তানধারণে সক্ষম। ১৮ বছর বয়সে একটি মেয়ে এতটাই পরিণত হয়ে যায় যে ভালোভাবে সংসার করতে পারে।

সজ্জন শুধু মধ্যপ্রদেশ নয় গোটা ভারতের মহিলাদের অপমান করেছেন বলে মত বিজেপি নেতাদের। তাঁর অবিলম্বে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছে গেরুয়া শিবির। সজ্জনের মন্তব্যের পাল্টা দিয়ে মধ্যপ্রদেশের বিজেপি মুখপাত্র রাহুল কোঠারি বলেছেন, সজ্জন সিং ভর্মা বোধহয় ভুলে গিয়েছেন তাঁর দলনেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও জাতীয় যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী, দুজনেই মহিলা। আমি কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধী মহাশয়ার কাছে আর্জি জানাচ্ছি, অবিলম্বে সজ্জন সিংকে জনসমক্ষে ক্ষমা চাইতে বলুন, তারপরে তাঁকে দল থেকে বহিস্কার করুন।

অপরদিকে এহেন মন্তব্যের জেরে সজ্জন সিং ভর্মাকে নোটিস পাঠিয়েছে জাতীয় শিশু সুরক্ষা কমিশন। কীসের বা কোন তথ্যের ভিত্তিতে একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে এই মন্তব্য করেছেন? প্রমাণসহ দুদিনের মধ্যে জবাব চেয়ে পাঠিয়েছে কমিশন। যদিও মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস মুখপাত্র ভূপেন্দ্র গুপ্তা সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়েছেন, সজ্জন শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্ন করেছিলেন, মহিলাদের বিয়ের বয়সের নিম্নসীমা ১৮ থেকে ২১ করার কারণ কী? কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান শুধুমাত্র মিডিয়ায় প্রচারের জন্য এই নাটক করছেন।

2020 New Ad HDFC 04

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 008 Myra

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

corona 02

Editors Choice

Comm Ad 2020-LDC Egg