Comm Ad 2020-Valentine body

জীবনযুদ্ধে হার মানলেন কংগ্রেস নেতা আহমেদ পটেল

Share Link:

জীবনযুদ্ধে হার মানলেন কংগ্রেস নেতা আহমেদ পটেল

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈয়ের মৃত্যুর ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আগে ফের বড়সড় ধাক্কা খেল কংগ্রেস। বুধবার ভোররাতে জীবনযুদ্ধে হার মানলেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা আহমেদ পটেল। গুরুগ্রামের এক হাসপাতালে চিকি‍ৎসকদের যাবতীয় প্রচেষ্টাকে ব্যর্থ করে পাড়ি জমালেন অমৃতলোকে। কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধির রাজনৈতিক সচিবের আকস্মিক মৃত্যুতে রাজনৈতিক মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধি সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা শোকজ্ঞাপন করেছেন।
.
গত ১ অক্টোবর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন আহমেদ পটেল। নিজেই টুইট করে সে কথা জানিয়েছিলেন। মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পরে পরিস্থিতির ক্রমশ অবনতি ঘটতে থাকায় গত ১৫ নভেম্বর গুরুগ্রামের এক বেসরকারি হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয়। আইসিইউতে রাখা হয়। করোনার পাশাপাশি বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতার অন্যান্য শারীরিক সমস্যাও দেখা দেয়। একের পর এক অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকল হয়ে পড়ে। মঙ্গলবার বিকাল থেকেই বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতার শারীরিক পরিস্থিতির দ্রুত অবনতি ঘটতে থাকে। শেষ পর্যন্ত আজ ভোর সাড়ে তিনটে নাগাদ মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

এদিন ভোর চারটে দুই মিনিটে বাবার মৃত্যুর খবর জানিয়ে টুইট করেন প্রয়াত কংগ্রেস নেতার ছেলে ফয়সাল পটেল। টুইটে তিনি লেখেন, ‘মাস খানেক আগে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছিলেন বাবা। তার পর থেকেই শারীরিক অবস্থার অবনতি থাকে। শেষ পর্যন্ত আজ ভোর সাড়ে তিনটে নাগাদ মাল্টি অর্গান ফেলিওরের কারণে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। আপনাদের সকলের কাছে অনুরোধ, কোভিড বিধি মেনে জমায়েত করবেন না। সেই সঙ্গে শারীরিক দুরত্ব মেনে চলবেন।’

গুজরাত থেকে রাজ্যসভায় নির্বাচিত আহমেদ পটেল গান্ধি পরিবারের ঘনিষ্ঠ হিসেবেই পরিচিত ছিলেন। কংগ্রেসের কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধির রাজনৈতিক সচিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ২০০৪ সালে কেন্দ্রে ইউপিএ সরকার গঠনের ক্ষেত্রেও বিশেষ ভূমিকা নিয়েছিলেন তিনি। আটবারের সাংসদ আহমেদ পটেলের মৃত্যুতে রাজনৈতিক মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। টুইটে শোকজ্ঞাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি লিখেছেন, ‘আজীবন কংগ্রেসকে শক্তিশালী করার কাজে আত্মনিয়োগ করেছিলেন আহমেদ পটেল।’ কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধি লিখেছেন, ‘আজ সত্যি দুঃখের দিন। কংগ্রেসের একজন স্তম্ভ ছিলেন।’ প্রিয়াঙ্কা গান্ধি লিখেছেন, ‘নির্ভর করার মতো একজন মানুষ চলে গেলেন।’

 

Comm Ad 2020-tantuja-body

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 026 BM

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC
Comm Ad 2020-Valentine RC