2020 New Ad HDFC 04

প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতি ভবনে জঙ্গি হামলার ছক

Share Link:

প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতি ভবনে জঙ্গি হামলার ছক

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: আবার একবার নিশানায় দিল্লি। এবার দিওয়ালির উৎসবের মাঝেই রাজধানীতে হামলার ছক কষছে পাকিস্তানের জইশ-ই-মহম্মদের জঙ্গিরা। গোয়েন্দা রিপোর্ট বলছে, রাজধানীর প্রায় ৪০০ টি জায়গায় এই মুহূর্তে রয়েছে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা। জঙ্গিদের নিশানায় রয়েছে খোদ দেশের প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতির আবাসও। গোয়েন্দারা জানাচ্ছেন, যে কোনও রকম নাশকতা ঘটাতে মরিয়া আতঙ্কবাদি সংগঠন।

দিল্লিতে প্রায় ৪২৫ টি জায়গায় জারি করা হয়েছে লাল সতর্কতা। হামলার আশঙ্কা রয়েছে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বহুতল এবং হোটেলেও। সূত্রের খবর, নেপাল সীমান্ত দিয়ে চার কুখ্যাত জঙ্গি ভারতে ঢুকেছে বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে জাানিয়েছে এনআইএ। জানা গিয়েছে, তাদের মূল উদ্দেশ্য দিওয়ালিতে নাশকতা ঘটানো। হামলার আশঙ্কা রয়েছে, দিল্লির রোহিনী, নর্থ ইস্ট, সেন্ট্রাল, দ্বারকা এলাকাগুলিতে।

পাশাপাশি খান মার্কেট, চাঁদনি চক, অ্যাভিনিউ মার্কেটে রয়েছে অতন্দ্র প্রহরা। সেই সঙ্গে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন, রাষ্ট্রপতি ভবন এবং সংসদ ভবনেও। কারণ এই তিন জায়গাতেও জঙ্গি হামলার ছক রয়েছে বলে উল্লেখ রয়েছে গোয়েন্দা রিপোর্টে। জইশ জঙ্গিরা, দিল্লির লক্ষ্মীনগর, আনন্দ বিহারকেও টার্গেটে রেখেছে বলে দাবি গোয়েন্দাদের। দিল্লির ২০০ টি পুলিশ স্টেশন এই মুহূর্তে হাই অ্যালার্টে রয়েছে। সজাগ রয়েছেন সাদা পোশাকের গোয়েন্দারাও। রাজধানীর পাশাপাশি দীপাবলির সময় নিরাপত্তা জোরদার করতে বলা হয়েছে কলকাতা, মুম্বই, চেন্নাইয়ের মতো শহরগুলিকেও।

2020 New Ad HDFC 04

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 006 TBS

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 008 Myra

নবান্নের কন্ট্রোলরুমে মুখ্যসচিবের সঙ্গে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রী।

নবান্নের কন্ট্রোলরুমে মুখ্যসচিবের সঙ্গে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রী।

বুধবার সারারাত নবান্নে থেকেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

বুধবার সারারাত নবান্নে থেকেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব, ডিজি-সহ অন্য কর্তারা।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব, ডিজি-সহ অন্য কর্তারা।

মঙ্গলবারের পর বুধবার বিকেলেও শহরের বিভিন্ন জায়গায় যান মুখ্যমন্ত্রী।

মঙ্গলবারের পর বুধবার বিকেলেও শহরের বিভিন্ন জায়গায় যান মুখ্যমন্ত্রী।

তাঁর সঙ্গে ছিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ও মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

তাঁর সঙ্গে ছিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ও মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

এদিন খিদিরপুর, পার্ক সার্কাস, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির মতো দক্ষিণ কলকাতার একাধিক জায়গায় যান।

এদিন খিদিরপুর, পার্ক সার্কাস, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির মতো দক্ষিণ কলকাতার একাধিক জায়গায় যান।

এদিনও স্থানীয়দের লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেন তিনি।

এদিনও স্থানীয়দের লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেন তিনি।

এই নিয়ে পরপর দু'দিন শহরের বিভিন্ন জায়গায় গেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এই নিয়ে পরপর দু'দিন শহরের বিভিন্ন জায়গায় গেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

তাঁর এই কাজকে তীব্র ভাষায় বিঁধেছেন বিরোধীরা।

তাঁর এই কাজকে তীব্র ভাষায় বিঁধেছেন বিরোধীরা।

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 025 Confed

Editors Choice

corona 02