Comm Ad 2020-LDC epic

৭১ কেজি আবর্জনা মিলল গরুর পেটে

Share Link:

৭১ কেজি আবর্জনা মিলল গরুর পেটে

নিজস্ব প্রতিনিধি: গরুর পেটে পাওয়া গেল আবর্জনা। পথভ্রষ্ট গর্ভবতী গরুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তার পেট থেকে বেড়িয়ে আসে কয়েক কেজি আবর্জনা। যা প্রশ্নের মুখে ফেলেছে দেশের দূষণের পরিমান ও গবাদিপশুর পথভ্রষ্ট হওয়ার ঘটনাকে।
 
ফেব্রুয়ারীর শেষে একটি গরুকে ধাক্কা মারে একটি গাড়ি। ঘটনার খবর পেয়ে সেটিকে উদ্ধার করে হরিয়ানার ফরিদাবাদের অ্যানিমেল ট্রাস্টের সদস্যরা। তাকে উদ্ধার করেই চিকিৎসকেরা লক্ষ্য করেন গরুটি যন্ত্রনায় কষ্ট পাচ্ছে। তারপরই পশু চিকিৎসকরা তার অস্ত্রপ্রচারের সিদ্ধান্ত নেন। অস্ত্রোপ্রচারের মাধ্যমে ফরিদাবাদের পশুচিকিৎসকদের একটি দল এক গর্ভবতী গরুর পেট থেকে বের করলেন ৭১ কেজি ওজনের আবর্জনা। কিন্তু গরুটিকে বা তার শাবককে বাঁচাতে পারেন নি তাঁরা।
 
ট্রাস্টের সদস্য রবি দুবে জানান, টানা ৪ ঘন্টা ধরে চলে এই অস্ত্র প্রচার। সেই সঙ্গেই বেড়িয়ে আসে পেরেক, মার্বেল, প্লাস্টিক-সহ ৭১ কেজি ওজনের আবর্জনা। চিকিৎসকেরা তার অপরিনত শাবকটিকেও বের করেন। তিনি জানান, “শাবকটি পেটের ভিতর বেড়ে ওঠবার জায়গা পায়নি, তাই মারা গিয়েছে। অস্ত্রোপ্রচারের তিনদিন পর গরুটিও মারা যায়।” রবি দুবে আরও জানান , তার ১৩ বছরের অভিজ্ঞতার মধ্যে এই প্রথম তিনি এত আবর্জনা পেয়েছে। তা বের করতে ভালো গায়ের জোর প্রয়োগ করতে হয়েছিল।
 
এর আগেও গরুটির একবার অস্ত্রোপ্রচার হয়। তখন চিকিৎসকেরা তার পেট থেকে ৫০ কেজি আবর্জনা বের করেন। এরপর আবার সেই একই ঘটনা। রবি দুবে জানান, গরু আমাদের জন্য পবিত্র হলেও কেউ তাঁদের কথা ভাবেন না। এই গরুটি শহরের যেকোনও প্রান্ত থেকে ময়লা আবর্জনা খেয়েছিল।  সারাদেশে প্রায় ৫ লক্ষ গরু ঘুরে বেড়ায়। তাদের বেশিরভাগই গোগ্রাসেই প্লাস্টিক বা আবর্জনা খেয়ে নেয়।
 
দক্ষিণ অন্ধ্রপ্রদেশের প্রানি ও পরিবেশ সংগঠন ‘করুনা’র ভাইস প্রেসিডেন্ট রমুলা ডি’সিলভা জানান,”রাস্তার ধারে যেখানে গরু ঘুরে বেরাতে দেখবেন আপনি নিশ্চিত থাকুন তাঁদের পেটেও প্লাস্টিক বা আবর্জনা আছে।” বেশ কয়েক বছর আগে করুনা সোসাইটিতে ৩৫ টি গরু হাজির হয়। তাদের মধ্যে একটি হঠাৎই মারা যায়। তাকে ময়নাতদন্ত করে দেখা যায় পেটে প্রচুর আবর্জনা রয়েছে। শুধু তারই নয়, বাকি গরুগুলিকে পরীক্ষা করে দেখা যায় তাদের পেটেও একই ভাবে জমে আছে আবর্জনা।
 
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সরকার গবাদি পশুর সুরক্ষার আইন জারি করলেও গবাদি পশুর সুরক্ষা অধরাই থেকে গিয়েছে। তবে গরু পাচার বা তার মাংস বিক্রির সঙ্গে যুক্ত বা যুক্ত থাকার সন্দেহে ব্যক্তিদের ওপর আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়। সেক্ষেত্রে কৃষকদের পুরনো বা বয়স্ক গবাদি পশু বিক্রি বা বলির জন্য দিয়ে দেওয়া বন্ধ করতে হয়েছে। কোনও কোনও রাজ্যে গরুকে খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করা বা বলি দেওয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
 
 
২০১৭ র একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছিল দেশে প্রতিবছর প্রায় এক হাজার গরু মারা যায় ভুলবশত প্লাস্টিক খেয়ে নেওয়ার ফলে।  

Comm Ad 2020-WB Tourism body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-himalaya RC

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-LDC Egg

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC
Comm Ad 2020-himalaya RC