Comm Ad 2020-LDC epic

পবিত্র দ্বীপে থাকেন শুধু পুরুষরা, প্রবেশাধিকার নেই কোনও নারীর

Share Link:

পবিত্র দ্বীপে থাকেন শুধু পুরুষরা, প্রবেশাধিকার নেই কোনও নারীর

নিজস্ব প্রতিনিধি:  ছোট্ট এক দ্বীপ ওকিনোশিমা। জাপানের দক্ষিণ-পূর্বের চারটি বড় দ্বীপের অন্যতম কিয়ুসুর উত্তর-পশ্চিম উপকূলে রয়েছে এই দ্বীপটি। প্রাচীনকাল থেকেই বিশ্বের নানা প্রান্তের সঙ্গে জাপানের বাণিজ্যের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে এই দ্বীপটি। ওই দ্বীপপুঞ্জের মধ্যেই রয়েছে চীন ও কোরীয় ভূখণ্ডের সঙ্গে সংযোগরক্ষাকারী রাস্তা। এই ওকিনোশিমায় রয়েছে মন্দির মুনাকাতা তাইশা।
 
যে দ্বীপে এই মন্দিরটি রয়েছে সেই দ্বীপে প্রবেশ নিষিদ্ধ নারীদের। ওকিনোশিমা নামে দক্ষিণ-পশ্চিম জাপানের এই দ্বীপটিকে ‘পবিত্র’ বলে মনে করা হয়। সেই কারণেই ওই দ্বীপে পুরুষরাই যেতে পারেন, নারীদের কোনওরকমভাবে প্রবেশই করতে দেওয়া হয় না। প্রাচীনকালে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে জাহাজের নিরাপদ যাত্রার জন্য এই দ্বীপেই নানা রকমের আচার অনুষ্ঠান পালিত হতো। এই দ্বীপকে কেন্দ্র করে এখনও নানা রকমের নিষেধাজ্ঞা চালু রয়েছে। ইউনেস্কো এই দ্বীপটিকেই বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে ঘোষণা করার সুপারিশ জানিয়েছে।
 
এই দ্বীপে নারীরা যেতে পারবেন না, তবে ছাড় রয়েছে পুরুষ দর্শনার্থীদের ক্ষেত্রে। পুরুষরা সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে সমুদ্রে স্নান করে তবেই মন্দিরে প্রবেশ করতে পারবেন। কয়েক শতাব্দী ধরেই এই প্রথা চালু হয়ে আসছে। ওকিনোশিমার ওই মন্দিরে থাকেন একজন পুরোহিত। তিনিই মুনাকাতা তাইশা মন্দিরে দেবীর উপাসক। ২০১৯ সাল থেকে অন্য কোনও দর্শনার্থী এই মন্দিরে প্রবেশ করতে পারেননা। মন্দির কর্তৃপক্ষই এই কথা ঘোষণা করে জানিয়েছিলেন। দ্বায়িত্বে থাকা পুরোহিতরাই গোটা ওকিনোশিমা দ্বীপটির দেখভাল করেন। প্রাচীন এবং ঐতিহ্যবাহী এই দ্বীপটি বাঁচাতেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে।
 
এর আগেও যেকোনও পুরুষরাই ইচ্ছেমতো প্রবেশ করতে পারতেন না এই দ্বীপে। সব সময়ই সীমিত সংখ্যক দর্শনার্থীদের জন্যই খোলা হত মন্দিরের দ্বার। চলতি বছরের এক উৎসবের সময় মাত্র দু’ঘণ্টার জন্য খোলা হয়েছিল মন্দিরের দ্বার। মাত্র ২০০ জন পুরুষই দ্বীপে প্রবেশের অনুমতি পেয়েছিলেন। তবে মন্দির কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, এত মানুষ দ্বীপে ঢুকতে থাকলে, খুব শীঘ্রই ওই দ্বীপ আরো ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়বে।
 
মন্দিরের এক মুখপাত্র জানান, পরের বছর থেকে পুরোহিত ছাড়া বাকি সকলের জন্য বন্ধ হতে চলেছে দ্বীপের দরজা। তিনি বলেন, ‘ইউনেস্কোর তালিকাভুক্ত হওয়ায় দ্বীপের সংরক্ষণ ব্যবস্থা নিয়ে আরো কঠোর হওয়া প্রয়োজন। ২০০ জন মানুষ এলেও ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা থেকেই যায়।’ তবে তিনি জানিয়েছেন যে, গবেষণা বা সংরক্ষণসংক্রান্ত কোনও কাজের জন্য ওই দ্বীপে যাওয়ার অনুমতি চাইলে তা পাওয়া যাবে। তবে অবশ্যই তা সীমিত সময়ের জন্যই।
 
দ্বীপে পদার্পণের আগেই পুরুষদের সম্পূর্ণ বিবস্ত্র হয়ে সমুদ্রে স্নান করে নিজেদের শুদ্ধ করে নিতে হয়। বছরে মাত্র একটি দিন, ২৭ মে মোট ২০০ জন পুরুষকে এই দ্বীপে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়। তবে দ্বীপ থেকে ফেরার সময় কোনো স্মৃতি হিসেবে কোনও কিছু নিয়ে যাওয়া নিষিদ্ধ, সামান্য ঘাসের টুকরো পর্যন্তও নয়। সেইসঙ্গে দ্বীপে যাওয়ার বিবরণ ফিরে যাওয়ার পর কখনওই কাউকে বলতে পারবেন না। মন্দিরের এক পুরোহিত জানিয়েছেন যে, পূর্ব নির্ধারিত সংখ্যার থেকে বেশি দর্শনার্থীদের এখানে প্রবেশ করতে দেয়া হয় না।
 
বছরের বাকি দিনগুলো মন্দিরের দরজা খোলা থাকে শুধু শিন্টো পুরোহিতদের জন্যই। বেশি মানুষের উপস্থিতি এই দ্বীপের শান্তি ও ঐতিহ্যের পক্ষে ক্ষতিকর বলেই মনে করেন তাঁরা। ইউনেস্কোর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, নারীরা যেহেতু গর্ভবতী হন, তাঁদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই সমুদ্র পাড়ি দিয়ে দ্বীপে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে শিন্টো পুরোহিতেরা।
 
এই মন্দিরটি ছাড়াও ওই দ্বীপে হাজারেরও বেশি সোনার আংটি এবং মূল্যবান সম্পদের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। মন্দিরের দায়িত্বে থাকা মুনাকাতা তাশিয়া গোষ্ঠীর পুরোহিতের ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী প্রাচীনকালে দেশের উন্নতি ও নাবিকদের সুরক্ষার জন্য মন্দিরের দেবীর কাছে এই রত্নগুলো উৎসর্গ করার চল ছিল।
 
প্রসঙ্গত, ভারতে কেরলের শবরীমালা মন্দিরেও এমনই চল ছিল। এই মন্দিরেও প্রাচীনকাল থেকেই মহিলাদের প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা ছিল। আদতে ঋতুমতী মহিলাদের ক্ষেত্রেই মূলত ছিল এই নিষেধ। যদিও কয়েকবছর আগে থেকে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়। ফলে মহিলারা এই মন্দিরে প্রবেশ করতে পারেন। তবে বিশ্ব ঐতিহ্যের তকমা পেলেও ওকিনোশিমা দ্বীপের দরজা নারীদের জন্য নিষিদ্ধই থেকে যাবে বলে জানিয়েছেন এই দ্বীপের মন্দিরে দেবীর সেবায় থাকা পুরহিতরা।

Comm Ad 005 TBS

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-LDC Egg

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 008 Myra
Comm Ad 008 Myra