2020 New Ad HDFC 04

​ইস্টবেঙ্গলকে নিয়ে কী বললেন প্রাক্তন ফুটবলাররা?

Share Link:

​ইস্টবেঙ্গলকে নিয়ে কী বললেন প্রাক্তন ফুটবলাররা?

নিজস্ব প্রতিনিধি: শতবর্ষের উৎসবের মধ্যে যে আশা নিয়ে দেশের সেরা ফুটবল লিগ আইএসএলে যোগ দিয়েছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল, তা পূরণ হয়নি একেবারেই। বরং এমন একটা পরিস্থিতির মধ্যে পড়ে যায় ক্লাব, যে পরিস্থিতির মধ্যে তাদের কখনও পড়তে হয়নি। ২০০৯-১০ মরশুমে আই লিগে তারা ১৪ দলের মধ্যে ন’নম্বরে ছিল এবং ১৯৯৯-২০০০ জাতীয় লিগ মরশুমে তারা সাত নম্বরে ছিল। কিন্তু ১১ দলের আইএসএলে ন’নম্বরে থাকাটা সম্ভবত তাদের কাছে সবচেয়ে খারাপ ফল।
 
 
সেমিফাইনালে ওঠা তিন দল এটিকে মোহনবাগান, মুম্বই সিটি এফসি ও নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি-র কাছে প্রথম তিনটি ম্যাচে হেরে চতুর্থ ম্যাচে জামশেদপুর এফসি-র সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে প্রথম পয়েন্ট পায় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের প্রাক্তন তারকা ফরোয়ার্ড রবি ফাউলারের প্রশিক্ষণাধীন এসসি ইস্টবেঙ্গল। পাঁচ নম্বর ম্যাচে গিয়ে তারা হায়দরাবাদ এফসি-র বিরুদ্ধে প্রথম গোল পেলেও জয় অধরাই থেকে যায়। জাক মাঘোমার গোলে এগিয়ে গিয়েও দ্বিতীয়ার্ধে ১৪ মিনিটের মধ্যে তিনটি গোল খায় তারা। শেষে মাঘোমা আর একটি গোল করলেও হার বাঁচাতে পারেননি।
 
এই হারের পরে টানা সাতটি ম্যাচে অপরাজিত ছিল লাল-হলুদ ব্রিগেড। এর মধ্যেই তাদের প্রথম জয় আসে ওড়িশা এফসি-র বিরুদ্ধে ৩-১ গোলে। পিলকিংটন, মাঘোমা ও ব্রাইট ইনোবাখারে গোল করেন। চেন্নাইন এফসি-র সঙ্গে দুই লেগেই ড্র করে তারা। ড্র করে এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে প্রথম লেগের ম্যাচেও। বেঙ্গালুরু এফসি-কে ১-০ গোলে হারায় তারা। এই ফলগুলোই সমর্থকদের মনে আশা জাগিয়েছিল, হয়তো ক্রমশ প্রথম চারের দিকে এগিয়ে যাবে তাদের দল। কিন্তু বেঙ্গালুরুকে হারানোর পরে লিগের শেষ দশ ম্যাচে মাত্র একটিতে জেতায় ও পাঁচটিতে হেরে যাওয়ায় সেই আশা আর পূরণ হয়নি তাদের। 
 
 
কোচ রবি ফাউলার বলেন, ‘অনেকেই অনেক কথা বলেছেন। কিন্তু আসল কথা হল, আমরা মাত্র দু’সপ্তাহ প্রস্তুতির সুযোগ পেয়েছি। তাছাড়া আমাদের দলটা তৈরি হয়েছিল আই লিগের কথা ভেবে। আমি কোনও অজুহাত দিচ্ছি না বা কারও ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছি না। কেন আমরা সফল হতে পারিনি, আমি তার কারণগুলো বলছি। সব দলই মরশুমে খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যায়। কিন্তু আমাদের অনেকটা সময়ই খারাপ গিয়েছে। কারণ, অনেকগুলো সিদ্ধান্ত আমাদের পক্ষে যায়নি। প্রতি ম্যাচেই আমরা সবচেয়ে আমাদের হাতে থাকা শক্তিশালী দলই নামিয়েছি। নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ব্রাইট, পিলকিংটন খেলতে পারেনি চোটের জন্য। যাদের নামিয়েছিলাম, তারাই তখন আমাদের হাতে থাকা সেরা ফুটবলার।’
 
তবে তা সত্ত্বেও অবশ্য সে ভাবে সাফল্যের মুখ দেখতে পায়নি দলটা। এই বিষয়ে ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তন তারকা মনোরঞ্জন ভট্টাচার্য মনে করেন, টিমগেমের অভাব, ফিটনেসের অভাব ও বিদেশিদের পারফরম্যান্স ভালো না হওয়ায় দলটা এই মরশুমে সাফল্য পেল না। তিনি জানান, ‘এসসি ইস্টবেঙ্গলের মধ্যে কোনও টিমগেমই দেখতে পেলাম না। কোনও সময় মনে হয়নি দলটার মধ্যে বোঝাপড়া রয়েছে। কয়েকটা ম্যাচে দারুণ পারফরর্ম করেছে ওরা। কিন্তু অধিকাংশ সময়ে লাল-হলুদ দলটাকে মনে হচ্ছিল ছন্নছাড়া একটা টিম, যারা কেউ কাউকে চেনে না।’
 
ফিটনেস নিয়ে ইস্টবেঙ্গলের ‘ঘরের ছেলে’ বলে পরিচিত মনোরঞ্জনের বক্তব্য, ‘খুব বেশি দিন প্রস্তুতির সময় পায়নি লাল-হলুদ। তা ছাড়া লক ডাউনের জন্য অনেক ফুটবলারই অনেক দিন বাদে ফুটবল মাঠে নেমেছিল। ফলে এসসি ইস্টবেঙ্গলকে দেখে মনে হচ্ছিল দলটা ফিটনেসের অভাবে ভুগছে। অনেক ম্যাচেই দেখছিলাম দ্বিতীয়ার্ধে ক্লান্ত হয়ে পড়ছে লাল-হলুদ ফুটবলাররা। আর ফুটবলাররা একশো শতাংশ ফিট না হলে আইএসএলে দারুণ কিছু করা মুশকিল।’
 
বিদেশিদের নিয়ে এই ক্লাবের প্রাক্তন কোচ ও খেলোয়াড় মনোরঞ্জনের মত, ‘একমাত্র ব্রাইট ইনোবাখারেই যা দুর্দান্ত কিছু পারফরম্যান্স দিল। পিলকিংটন প্রিমিয়ার লিগে চুটিয়ে খেলেছে। ড্যানি ফক্সের সিভিও দারুণ। কিন্তু ফক্স-পিলকিংটনরা কেউই কিছু করতে পারল না। পরের মরশুমে তাই অর্ধেক বিদেশি পাল্টানো দরকার। কিন্তু ব্রাইটের মতো প্রতিভাকে ছাড়া উচিত নয়।’ এছাড়া কোচের কৌশলেও গলদ ছিল বলে মনে করেন তিনি।
 
আর এক প্রাক্তন ফুটবলার সুরজিৎ সেনগুপ্ত মনে করেন, ‘দু-আড়াই মাসের লম্বা লিগে পর্যাপ্ত প্রস্তুতির সুযোগ পাওয়া বা বোঝাপড়া গড়ে না ওঠার যুক্তি খাটে না। দল দিনের পর দিন এগিয়ে থেকে ম্যাচ হেরেছে বা ড্র করেছে। শেষ মুহূর্তে গোল খেয়ে ম্যাচ ড্র বা হেরে যাওয়াটা বারবার মেনে নেওয়া যায় না।’  

Comm Ad 2020-tantuja-body

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

corona 02

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-LDC Momo

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-LDC Momo
2020 New Ad HDFC 05