Comm Ad 018 Kalna

সব সময় মুখে হাসি লেগে থাকতো, চাপম্যানের মৃত্যুতে শোকের ছায়া

Share Link:

সব সময় মুখে হাসি লেগে থাকতো, চাপম্যানের মৃত্যুতে শোকের ছায়া

কার্লটন চ্যাপম্যান

নিজস্ব প্রতিনিধি : ভারতীয় ফুটবল ভক্তদের জন্য খারাপ খবর। প্রাক্তন ফুটবলার কার্লটন চ্যাপম্যান প্রয়াত। এই খবরে চারিদিকে দুঃখের রেশ নেমে আসে। কর্নাটকের এই মিডফিল্ডার সোমবার ভোর তিনটে নাগাদ কোমরে ব্যথা অনুভব করেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় বেঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর। চ্যাপম্যানের বয়স হয়েছিল মাত্র ৪৯। তাঁর এই মৃত্যু যেন কেউ মেনে নিতে পারছেন না। ১৯৯৩ সালে প্রথম বার ইস্টবেঙ্গলে খেলেন। তার পর যান জেসিটিতে। তাঁর সময়ে জেসিটি দারুণ সাফল্য পেয়েছিলো। ১৪টি ট্রফি জিতেছিল। তার মধ্যে ১৯৯৬ সালে জাতীয় লিগও ছিল। ১৯৯৮ সালে ফেরেন লাল-হলুদে।

ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের কাছে তিনি ছিলেন স্পেশাল। ২০০১ সালে ইস্টবেঙ্গল জাতীয় লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়। ইস্টবেঙ্গলের জার্সিতে প্রথম বছরেই চ্যাপম্যান ইরাকের ক্লাব আল জাওরার বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করেন। এশিয়ান কাপ উইনার্স কাপের সেই ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল আল জাওরাকে। ১৯৯১ থেকে টানা দশ বছর তিনি জাতীয় দলের সদস্য ছিলেন।

তাঁর মৃত্যুতে ময়দানে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তাঁর একসময় কার সতীর্থরা ভেঙে পড়েছেন। বাইচুং বলেন, 'খুবই ভাল মনের মানুষ ছিলেন। মুখে সবসময় হাসি লেগে থাকতো। খুবই খারাপ লাগছে খবরটা শুনে।' কোচ সুভাষ ভৌমিক বলেছেন, 'খুব খারাপ খব। কার্লটন চ্যাপম্যান আর নেই। শুধু সিংহ হৃদয় ফুটবলারই ছিল না, ওর হৃদয় ছিল সোনার মতো। ওর আত্মার শান্তি কামনা করছি। খুব ভাল থাকুক ও'।

Comm Ad 018 Kalna

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

corona 02

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-himalaya RC

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-himalaya RC

Editors Choice

2020 New Ad HDFC 05