Comm Ad 2020-tantuja-body

দক্ষিণবঙ্গের বড় অংশেই বাস চলছে কেরোসিনে

Share Link:

দক্ষিণবঙ্গের বড় অংশেই বাস চলছে কেরোসিনে

নিজস্ব প্রতিনিধি: পেট্রোল আর ডিজেল দুটিই কার্যত নিত্যদিন নতুন নতুন রেকর্ড গড়ে চলেছে। অথচ রাজ্য সরকার বাসের ভাড়া বাড়াতে নারাজ। উপরন্তু রাজ্য সরকারের তরফেই চাপ দেওয়া হচ্ছে রাস্তায় বাস নামাতে। এই অবস্থায় সংকটে পড়েছেন বাস মালিকেরা। রাস্তায় বাস না নামালে রাজ্য সরকারের রোষানলে পড়ার যেমন সম্ভাবনা রয়েছে তেমনি নামালে পরে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাস চালাতে গিয়ে বড়সড় আর্থিক ক্ষতির মুখেও পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই অবস্থায় দক্ষিণবঙ্গের একটা বড় অংশের বেসরকারি বাস মালিকেরা রাস্তায় বাস নামালেও পেট্রোল বা ডিজেল দিয়ে তা চালাচ্ছেন না। বরঞ্চ তাঁরা বেছে নিচ্ছেন কেরোসিন। চড়া দরের পেট্রোল বা ডিজেলের তুলনায় কম দরের কেরোসিনই এখন তাঁদের কাছে সমস্যা সমাধানের রাস্তা হয়ে উঠেছে। তবে তার দরুন আবার বাসের যন্ত্রাংশ খারাপ হওয়ার নিদারুণ সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।
 
জানা গিয়েছে, দুই বর্ধমান, বীরভূম, দুই মেদিনীপুর ও হুগলি জেলায় এখন অনেক বেসরকারি বাস রুটেই নাকি জ্বালানি হিসাবে কেরোসিন ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে ইঞ্জিনের ক্ষতি হবে জেনেও, সাময়িক ক্ষতির খরচ সামলাতে এই পথে হাঁটছেন কয়েকজন বাসমালিক। তাঁদের যুক্তি, ডিজেলের লিটার প্রতি দাম যেখানে ৯০ টাকার বেশি, সেখানে কেরোসিন তার চেয়ে লিটারে ২০-২৫ টাকা কম। ৫০ লিটার কেরোসিনে হাজার টাকার মতো বাঁচাবে। সে ক্ষেত্রে ইঞ্জিনের যদি ক্ষতি হতে থাকে, তা হলে পরে তা সারিয়েও নেওয়া যাবে। মূলত যে সব বাস পুরনো হয়ে গিয়েছে, ইঞ্জিনের শক্তিও কমে গিয়েছে, সেই সব বাসের মালিকেরাই জ্বালানি হিসেবে কেরোসিনকে বেছে নিচ্ছেন। এমনিতেই দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে সব বেসরকারি রুটের সব বাস রাস্তায় নামেনি। কার্যত অর্ধেক বাসই এখন চলাচল করছে, বাকি অর্ধেক বসে রয়েছে। আবার কোনও কোনও রুটে সব বাসই চলছে, কিন্তু সব বাস রোজ নামছে না। একদিন অন্তর নামছে।
 
এই ব্যবস্থা নিয়ে বাস মালিকদের বক্তব্য, খরচের বহর দিন দিন বেড়ে চলেছে। ভাড়া না বাড়ায় খরচ উঠছে না।  সব জিনিসের দাম বাড়ছে। পেট্রল, ডিজেলের দাম আকাশছোঁয়া। অথচ বাসের ভাড়া বাড়াচ্ছে না সরকার। এই অবস্থায় ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাস চালালে ক্ষতি অবধারিত। তেলের দাম, যন্ত্রাংশের দাম, দেখভাল খরচা, কর্মীদের বেতন দেওয়ার পর অবশিষ্ট কিছু থাকে না, ঘুরে মালিকের পকেট থেকে দিয়েই বাস চালাতে হচ্ছে। হিসাব মতো প্রতিদিন দু’হাজার টাকা করে ক্ষতি হচ্ছে। কোনও কোনও দিন তা তিন হাজার টাকায় দাঁড়াচ্ছে। প্রতিদিন পকেট থেকে দিয়ে কি আর বাস চালানো সম্ভব! তাই বাধ্য হয়েছি কেরোসিন বেছে নিতে। কিন্তু এভাবে বেশি দিন চালানো সম্ভব নয়। আগামী দিনে হয়তো এই ব্যবসা থেকেই সরে আসতে বাধ্য হবে সব বাস মালিকেরা। সরকারের ভেবে দেখা উচিত। এ ভাবে চলতে থাকলে বাস পরিবহণ শিল্পটাই শেষ হয়ে যাবে।

Comm Ad 2020-WB Tourism body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 008 Myra

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-LDC Egg

কেওড়াতলা মহাশ্মশানে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা 
জানালেন ফিরহাদ হাকিম

কেওড়াতলা মহাশ্মশানে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা জানালেন ফিরহাদ হাকিম

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের আবক্ষ মূর্তীতে মাল্যদান করে বিশেষ শ্রদ্ধা জানালেন পুরপ্রশাসক ও রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের আবক্ষ মূর্তীতে মাল্যদান করে বিশেষ শ্রদ্ধা জানালেন পুরপ্রশাসক ও রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC
Comm Ad 008 Myra