Comm Ad 2020-WB Tourism body

মণীষ খুনের ঘটনায় সুবোধের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করলো আদালত

Share Link:

মণীষ খুনের ঘটনায় সুবোধের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করলো আদালত

নিজস্ব প্রতিনিধি: কিছুদিন আগেই উত্তর ২৪ পরগনা জেলার টিটাগড়ে থানার সামনেই খুন হয়েছিলেন প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলার তথা বিজেপি নেতা মণীষ শুল্কা। সেই ঘটনার জেরে এদিনই টিটাগড় ও ব্যারাকপুরের দুই পুরপ্রধানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করে সিআইডি। এবার এদিনই ব্যারাকপুর মহকুমা আদালত এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনার মূল অভিযুক্ত সুবোধ সিংয়ের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করলো। এই অভিযুক্ত এখন বিহারের পাটনায় বেউর জেলে বন্দি। পুলিশ পাটনা গিয়েও এই অভিযুক্তকে নিজেদের হেফাজতে নিতে পারেনি। এবার দেখার বিষয় আদালত ওয়ারেন্ট বার করায় নতুন করে পুলিশ তাকে নিজেদের হেফাজতে আনার প্রক্রিয়া শুরু করতে সক্ষম হয় কিনা।

বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় সুবোধের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারির বিষয়টি কার্যত এই ঘটনার এক নয়া মোড়। পুলিশের দাবি সুবোধকে বিহার পুলিশ তাঁদের হাতে তুলে দিলে এবং সুবোধকে জেরা করলেই জানা যাবে কে বা কারা আর কেন মণীষ শুক্লা হত্যাকাণ্ডের জন্য সুপারি কিলার দিয়েছিল। তবে সুবোধকে আদৌ বিহার পুলিশ ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের হাতে তুলে দেবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ আছে। কেননা বিহারে এখনই ক্ষমতায় রয়েছে এনডিএ জোট। সেখানকার বিধানসভা নির্বাচনেরও পরেও সেই জোটেরই ক্ষমতায় ফেরার ইঙ্গিত মিলেছে। এই রকম অবস্থায় বিজেপির অঙ্গুলিহেলনে বিহার পুলিশ আদৌ এই রাজ্যের পুলিশের সঙ্গে সহযোগীতা করবে কিনা তা নিয়েই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তবে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের আধিকারিকেরা আজ-কালের মধ্যেই আদালতের ওয়ারেন্ট নিয়ে ফের একবার পাটনা যাবেন বলেই জানা গিয়েছে। মণীষ খুনের ঘটনায় বেশ কিছু বিজেপি নেতাও রয়েছেন অন্যতম সন্দেহভাজনের তালিকায়। তাই সুবোধের নাগাল এই রাজ্যের পুলিশ আধিকারিকেরা আদৌ পাবেন কিনা তা নিয়েই সন্দেহ।
 
এদিকে সিআইডি মণীষ খুনের ঘটনায় যে দুইজন পুরপ্রধানকে তলব করেছিল সেই টিটাগড়ের পুরপ্রধান প্রশান্ত চৌধুরি ও ব্যারাকপুরের পুরপ্রধান উত্তম দাস এদিন ভবানীভবনে গিয়েছিলেন ডাক পেয়ে। তাঁদের দুইজনকেই এদিন আলাদা আলাদা ভাবে বসিয়ে জেরা করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, মণীশ শুক্লা খুনের সময় তাঁরা ঠিক কোথায় ছিলেন সেই সংক্রান্ত খোঁজখবর নেয় সিআইডি। এদিন ভবানীভবন থেকে জেরার পর বার হয়ে তাঁরা দাবি করেন, ‘বিজেপি নেতা খুনে আমরা কোনওভাবেই যুক্ত নই। তবে বিজেপি পরিকল্পনামাফিক আমাদের কালিমালিপ্ত করতে চাইছে। তাই আমাদের নাম এফআইআরে রাখা হয়েছে। সেই কারণেই সিআইডি তলব করেছিল। আমরা আজ সিআইডির সঙ্গে দেখা করেছি। তদন্তের স্বার্থে ভবিষ্যতে আবারও সিআইডি তলব করলে দেখা করব। তদন্তে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি আমরা।’

Comm Ad 005 TBS

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-Valentine RC

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 008 Myra

Editors Choice

Comm Ad 026 BM