Brand-Promo-nababorsha2

বাংলার ভোটে কমিশনের ওয়েবসাইটে ব্রাত্য বাংলা

Share Link:

বাংলার ভোটে কমিশনের ওয়েবসাইটে ব্রাত্য বাংলা

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজ্যে বিজেপির বিরুদ্ধে বার বার উঠছে বাংলা ও বাঙালিকে অপমান করার অভিযোগ। বিজেপির নেতারাও বার বার আক্রমণ শানছেন বাংলা ভাষার বিরুদ্ধেও। কখনও বলা হচ্ছে বাংলা ভাষা ধ্রুপদ ভাষা নন, তো কখনও বলা হচ্ছে বাংলা বলে কোনও ভাষাই নেই। এবার সেই একইরকম মনোভাব ধরা পড়ল নির্বাচন কমিশনের মনোভাবেও। এবারেই প্রথম বাড়িতে বসে প্রার্থীদের মনোনয়ন পেশ করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে অনলাইনের মাধ্যমে। সেখানে ইংরেজি ও হিন্দিতে ফর্ম ফিলাপের ব্যবস্থা রয়েছে। পাশাপাশি থাকছে তামিল, মালায়লম ও অসমিয়া ভাষাতেও ফর্ম ফিলাপের ব্যবস্থা। অথচ সেখানে জায়গা পায়নি বাংলা। বাংলার সঙ্গেই ভোট হচ্ছে অসম, পুদুচেরি, তামিলনাড়ু ও কেরলে। অথচ সেখানে ইংরাজি ও হিন্দি ভাষার পাশাপাশি স্থানীয় আঞ্চলিক ভাষায় ফর্ম ফিলাপের ব্যবস্থা রাখা হলেও বাংলার ক্ষেত্রে তা করা হয়নি। আর এই নিয়েই এখন বড়সড় বিতর্ক বেঁধেছে। ঘটনার জেরে কাঠগড়ায় খোদ নির্বাচন কমিশন।
 
অভিযোগ উঠেছে বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে যারা যারা প্রার্থী হতে চান তাঁরা যদি অনলাইনে মনোনয়ন জমা দিতে চান তাহলে তাঁদের ইংরেজি বা হিন্দি ভাষাতে মনোনয়ন দাখিল করতে হবে। বাংলার ভোটে বাঙালিদের অধিকার দেওয়া হয়নি অনলাইনে বাংলা ভাষায় মনোনয়ন দাখিল করতে। অথচ এ রাজ্যের প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষই বাংলাভাষী। তারপরেও বাংলার ভোটে নির্বাচন কমিশন বাংলা ভাষাকেই ব্রাত্য করে দিয়েছে। বিজেপির সুরে সুর মিলিয়ে চলা নির্বাচন কমিশনের এহেন ভূমিকা ঘিরে শুধু রাজ্যের নানা মহলে নিন্দার ঝড় উঠেছে তাই নয়, কার্যত প্রশ্ন উঠে গিয়েছে কমিশনের ভূমিকা নিয়েও। অনেকেই মনে করছেন কমিশনের পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ কার্যত বলেই দিচ্ছে যে তাঁরা বিজেপির সুবিধা করে দিতেই কাজ করে চলেছেন। এহেন অবস্থায় অনেকেই মনে করছেন ইভিএমে ব্যাপক কারচুপি করেও বিজেপিকে বাংলার ক্ষমতা দখলে সাহায্য করবে কমিশন। তাঁদের ভূমিকাই কার্যত আজ আতস কাঁচের তলায়।
 
বাংলার নানা মহলে এখন কমিশনের এই ভূমিকা ঘিরে প্রশ্ন ওঠার পাশাপাশি ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বলা হচ্ছে, কমিশনের সিদ্ধান্ত অন্যায় এবং অনুচিত। প্রশাসনিক সুবিধার্থে দেশে ইংরেজি এবং হিন্দি ভাষা ব্যবহৃত হতে পারে। কিন্তু রাজ্যের বিধানসভা ভোটের অনলাইন মনোনয়নে ওই দু’টি ভাষা চাপিয়ে দেওয়া অবৈধ। রাজ্যের কোটি কোটি মানুষের সম্মানে অবিলম্বে বাংলা ভাষাতেও অনলাইনে মনোনয়ন জমা নেওয়ার ব্যবস্থা করা উচিত। নাহলে তা কমিশনের বাংলা ও বাঙালি বিদ্বেষের নমুনা হিসাবেই চিহ্নিত হবে। এই প্রসঙ্গেই রাজ্জ্যের একটি জাতীয়তাবাদী সংগঠনের তরফে কমিশনকে চিঠি দিয়ে ৭২ ঘন্টা সময় দিয়ে দেওয়া হয়েছে এই ত্রুটি শোধরাবার জন্য। নাহলে তাঁরা সুপ্রিম কোর্টে এই নিয়ে মামলা দায়ের করার কথাও কমিশনকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছে। এই বিষয়ে বাংলা জাতীয়তাবাদী সংগঠনের বক্তব্য, 'ইংরেজি এবং হিন্দি ভাষার মাধ্যমে অনলাইনে মনোনয়নের ব্যবস্থা করে কমিশন বাংলা এবং বাঙালি বিদ্বেষের পরিচয় দিয়েছে। বাঙালি জাতির জন্য এই নীতি অত্যন্ত অপমানজনক। তামিলনাড়ু আর পুদুচেরিতে প্রার্থীরা ইংরেজি আর হিন্দি ভাষার পাশাপাশি তামিল ভাষায়, কেরলে মালায়ালম ভাষায়, অসমে অসমিয়া ভাষায় অনলাইনে মনোয়ন দাখিল করতে পারবেন। তাহলে বাঙালিরা কেন বাংলা ভাষায় মনোয়ন দাখিল করতে পারবে না? কমিশন কী বাংলাতে শুধু হিন্দি ভাষী মানুষকেই প্রার্থী হিসাবে চাইছে নাকি বিজেপিকে বাড়তি সুবিধা করে দিতে আর তাঁদের প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে এই পদক্ষেপ নিয়েছে? যদি সেটাই হয় তাহলে দেশের গণতন্ত্রের পক্ষে তা হবে চূড়ান্ত বিপজ্জনক পদক্ষেপ।'   

Comm Ad 005 TBS

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-Valentine RC

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

2020 New Ad HDFC 05

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

Voting Poll (Ratio)

2020 New Ad HDFC 05
Comm Ad 008 Myra