Brand Ad - Poll 2021-01

কেষ্টর শহরেই হেরে ভূত তৃণমূল! গদিহারা পুরপ্রশাসক, উচ্ছেদ হকাররা

Share Link:

কেষ্টর শহরেই হেরে ভূত তৃণমূল! গদিহারা পুরপ্রশাসক, উচ্ছেদ হকাররা

নিজস্ব প্রতিনিধি: কেষ্টগড়, মানে বীরভূম। আর কেষ্টার শহর, মানে বোলপুর। শুধু এই বাবুমশাইয়ের জন্যই বীরভূমের লোক ভুলতে বসেছে জেলার সদর শহর সিউড়ি। কেননা সবই যে ঠিক করেন তিনি, মানে কেষ্টবাবু। আর তাও নিজের শহরে, দলের জেলা কার্যালয়ে। যা আগে ছিল সিউড়ি শহরে, শুধু কেষ্টবাবুর জন্যই সেই কার্যালয় এখন চলে এসেছে বোলপুরে। আর তার জেরে বোলপুরের লোকেরাও বলতে শুরু করেছিল জেলা সদর হিসাবে বোলপুরের নাম ঘোষণাও এবার সময়ের অপেক্ষা মাত্র। কিন্তু হিসাব মেলেনি। সিউড়ি আজও বীরভূমের জেলা সদর। ঠিক যেমনটি এবারে খাস বোলপুর শহরেও হিসাব মেলাতে পারেননি খাস কেষ্টবাবু। তাঁর নিজের শহরেই কিনা হেরে ভূত তৃণমূল! ভাবা যায়। বোলপুর শহরের লোকেরাই কিনা অনাস্থা দেখিয়ে দিল খাস কেষ্টবাবুর ওপর। কিন্তু সেই হেরে ভূত হওয়ার জেরেই এবার ধাক্কা লাগলো শহরের পুরপ্রশাসকের গদি থেকে শহরের হকারদের রুটিরুজিতে। আর তার জেরেই সরগরম বোলপুর।
 
বোলপুর শহর দীর্ঘদিন ধরেই বীরভূমের অন্যতম মহকুমা শহর। তার অর্থনীতি আবর্তিত হয় মূলত বিশ্বভারতী, শান্তিনিকেতনকে ঘিরেই। আর আছে ব্যবসা। তবে কলকাতার সঙ্গে সরাসরি ভালো রেল যোগাযোগ ব্যবস্থার দরুন এই শহর জেলা সদর সিউড়ির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেশ সেজে উঠেছে। আকারে বাড়বৃদ্ধি ঘটেছে। কিন্তু শহরের অর্থনীতি এখনও আটকে বিশ্বভারতী, শান্তিনিকেতন, পর্যটন আর ব্যবসায়। আর এসবই ধাক্কা খেয়েছে কোভিড আবহে ও বিশ্বভারতীর কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্তে। এ শহর বরাবরই বাম বিরোধী। এমনকি পরিবর্তনের আগে থেকেই এই শহরে উড়েছে তৃণমূলের বিজয়কেতন। জেলার গ্রামীণ এলাকায় বামেরা ভালো ফল করলেও বোলপুরে তাঁরা বারে বারে ধাক্কা খেয়েছে। সেই শহরেই কিনা একুশের নির্বাচনে হেরে ভূত তৃণমূল। শহরের ২০টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৪টি ওয়ার্ডে তৃণমূলকে পিছনে ফেলে এগিয়ে গিয়েছে বিজেপি। কেবলমাত্র ৪, ৫, ৮, ৯, ১২ ও ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। আবার বোলপুর বিধানসভা আসনে তৃণমূল প্রায় ২২ হাজার ভোটে জয়ী হলেও বোলপুর শহরে প্রায় ৬ হাজার ভোটে লিড তুলতে সক্ষম হয়েছে বিজেপি। আর তাতেই কার্যত মুখ পুড়েছে কেষ্টবাবুর। নিজ গড়ে, নিজের শহরে তাঁর নিজের দলই কিনা হেরে ভূত!
 
তবে সেই হারের জেরেই এবার তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে বোলপুর শহরের রাজনীতি থেকে অর্থনীতির ময়দানে। গতকালই বোলপুর পুরসভার পুরপ্রশাসকের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন সুশান্ত ভকত। অসুস্থতার কারণ দেখিয়েই তিনি পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। নয়া পুরপ্রশাসক হয়েছেন পর্ণা ঘোষ। জেলার রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন, বোলপুর পুর এলাকায় বিজেপির কাছে হারের জন্যই সুশান্ত ভকতকে দলীয় নেতৃত্বের কোপের মুখে পড়তে হয়েছে। খোয়াতে হয়েছে পুরপ্রশাসকের পদ। আর দলীয় নেতৃত্ব মানে যে সেটা কেষ্টবাবুই এটাও জেলার একটা ৮ বছরের বাচ্চা ছেলেও জানে। আসলে বোলপুর শহরে যে এবার একটা পরিবর্তনের হাওয়া খেলছে সেটা অমিত শাহের রায়লির দিনই বেশ বোঝা গিয়েছিল। তবে সেই পরিবর্তনের ঝড়ে শহরে যে তৃণমূল বিজেপির থেকে ৬ হাজার ভোটে পিছিয়ে পড়বে সেটা কেউই আগাম বুঝতে পারেননি। শহরের তৃণমূলের একাংশের অভিযোগ সুশান্ত ভগতই কার্যত কলাকাঠি নেড়েছেন তৃণমূলের ভোট বিজেপির দিকে পাঠিয়ে দিতে। আসলে তিনি চেয়েছিলেন বোলপুর বিধানসভা থেকে দলের টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে। কিন্তু দল তাঁকে টিকিট না দেওয়ায় তিনি দলের প্রার্থী তথা রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহকে হারাতে উঠে পড়ে লেগেছিলেন। যদিও শেষ রক্ষা হয়নি। শহরে তৃণমূল হারের মুখ দেখলেও জিতে গিয়েছে গ্রামে। আর তাতেই চন্দ্রনাথবাবু আবারই জিতে গিয়েছেন বিধানসভায়, আবারও হয়েছেন মন্ত্রী। যদিও সুশান্তবাবু নিজে এইসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
 
তবে বিতর্ক এখানেই থেমে নেই। এদিন সকাল থেকেই বোলপুর শহর জুড়ে হকার উচ্ছেদে নেমেছে প্রশাসন। রাজ্যের শাসক দল সবরকম উচ্ছেদের বিরুদ্ধে, মানবিক কারণেই। সেই শাসকের নির্দেশেই কিন্তু এদিন বোল্পুর শহরজুড়ে চলছে হকার উচ্ছেদ। আর সেটাও ইদের একদিন আগে, আংশিক লকডাউনের সময়কালে। স্বভাবাইক ভাবেই বিতর্ক বাড়ছে এই ঘটনায়। এদিন সকাল থেকেই বোলপুরের শ্রীনিকেতন রোড, প্রভাত সরণী থেকে হকারদের উচ্ছেদ করার কাজ শুরু করেছে বোলপুর পুরসভা কর্তৃপক্ষ। আর তার জেরে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে হকার মহলে। পাশাপাশি শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোরও। বিজেপির দাবি, বোলপুর পুরসভা এলাকায় হারের জেরেই এই হকার উচ্ছেদ অভিযান হচ্ছে। কেননা হকাররা সুশান্তের অনুগামী। কার্যত তাঁদের পেটে লাথি মেরেই এখন শহর থেকে সুশান্তের প্রভাব মুছে ফেলতে উদ্যোগী হয়েছে পুরকর্তৃপক্ষ। বিষয়টি যে দৃষ্টিকটু হয়ে পড়েছে সেটা তৃণমূলেরই একাংশ মেনেও নিচ্ছেন। এই বিষয়ে বোলপুর শহরের তৃণমূল নেতা দিলীপ ঘোষ জানান, 'এই মুহূর্তে বোলপুর থেকে হকার উচ্ছেদ করা ঠিক হয়নি। যে হকারদের জন্য শহরে যানজট হয় সেই হকাররা বোলপুরেই বাসিন্দা। শুক্রবার ইদ। তার আগে এভাবে হকারদের উচ্ছেদ করা দেওয়া হল। এটা খুবই মার্মান্তিক। বোলপুরের পুরসভা এলাকায় তৃণমূল ভালো ফল করতে পারেনি। তাই শহরের গরিব ব্যবায়ীদের জব্দ করতেই এই কাজ করেছে বোলপুর পুরসভা এখন অনেকেই এমনটা মনে করছেন।'

Comm Ad 018 Kalna

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

corona 02

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 026 BM

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-himalaya RC
Comm Ad 2020-Valentine RC