2020 New Ad HDFC 04

কয়লাপাচার কাণ্ডে বিনয়ের ভাইকে তলব সিবিআইয়ের! চলছে তল্লাশিও

Share Link:

কয়লাপাচার কাণ্ডে বিনয়ের ভাইকে তলব সিবিআইয়ের! চলছে তল্লাশিও

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজ্য বিধানসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততই গরু আর কয়লা পাচার কাণ্ডে ক্রমশই মাটি আঁকড়ে ধরে পড়ে থাকছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। এবার কয়লাপাচার কাণ্ডে তাঁদের নজরে পড়ে গেলেন ব্যবসায়ী বিনয় মিশ্রের ভাই বিকাশ মিশ্রও। কয়লাপাচার নিয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে নোটিস পাঠিয়েছে সিবিআই। আগামী ১৫ অথবা ১৬ জানুয়ারি তাঁকে নিজাম প্যালেসে সিবিআইয়ের কার্যালয়ে ঢেকে পাঠানো হয়েছে। অনেকেই মনে করছেন যেহেতু বিনয় মিশ্র এখনও সিবিআইয়ের নাগালের বাইরে রয়েছেন তাই তাঁর সন্ধান পেতে ও মানসিকভাবে তাঁর ওপর চাপ বাড়াতে সিবিআই বিকাশ মিশ্রকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে। জিজ্ঞাসাবাদের পরে তাঁকে গ্রেফতার বা আটক করা হবে কিনা তা নিয়ে অবশ্য মুখে কুলুপ এঁটেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা বাহিনীর আধিকারিকেরা।  
 
এদিকে কয়লাপাচার কাণ্ডে এদিন সকাল থেকেই কলকাতা, হুগলির কোন্ননগর, উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বারাসত এবং পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল, রানীগঞ্জ, জামুড়িয়া ও দূর্গাপুরে বেশ কয়েক জায়গায় হানা দিয়েছে সিবিআইয়ের বিশেষ দল। ওইসব জায়গায় চলছে তল্লাশি। মোট ১০টি জায়গায় একসঙ্গে তল্লাশি চালানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। যে সব জায়গায় হানা দেওয়া হয়েছে সেগুলি কয়লাপাচারের মাথা অনুপ মাজি বা লালার পরিচিত জায়গা। কার্যত লালা ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ীদের বাড়ি ধরে ধরেই এই হানাদারি চালাচ্ছে সিবিআই। মোট ৭৫জন আধিকারিককে নিয়ে এদিন ভোর থেকে এই হানাদারি শুরু করেছে সিবিআই। তাঁদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীর জওয়ানরাও রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।
 
রানিগঞ্জের নারায়ণ নন্দা ওরফে নারায়ণ খড়্গের বাড়িতে,  বক্তা নগরে জয়দেব ও আসানসোল বাজার এলাকায় জনৈক সুজিত নামে দুই ব্যবসায়ীর বাড়িতে অভিযান চলছে। এঁরা প্রত্যেকেই লালা ঘনিষ্ঠ হিসাবেই সুবেদিত। কার্যত অন্য ব্যবসার আড়ালে এরা অবৈধ কয়লা কারবারের সঙ্গে যুক্ত দীর্ঘদিন ধরেই। হুগলির কোন্নগরের কানাইপুর শাস্ত্রীনগর এলাকায় ব্যবসায়ী অমিত সিং ও নিরজ সিং এর বাড়িতেও চলছে তল্লাশি। বড়বাজারে সঞ্জয় সিং নামে এক ব্যবসায়ীর বাড়িতেও হানা দিয়েছে সিবিআই। কিন্তু এত অভিযান চালিয়েও এখনও পর্যন্ত সিবিআই কিন্তু এটা জানতে পারেনি অনুপ মাজি এখন কোথায় আছে। সিবিআইয়ের প্রাথমিক ধারনা, গত কয়েক বছরে কয়েকশো কোটি টাকার কয়লা চুরি হয়েছে রাজ্যের খনি অঞ্চল থেকে। একইসঙ্গে তারা নিশ্চিত, এই জাল বহু দূর অবধি ছড়ানো। তদন্তে গতি আনতে রাজ্যের খনি অঞ্চলগুলিতে রীতিমতো ক্যাম্প গড়ে তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই। গোয়েন্দাদের বিশেষ দল নিয়মিত নজর রাখছে আসানসোল, দুর্গাপুর, রানিগঞ্জের খনিগুলিতে।

2020 New Ad HDFC 04

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-himalaya RC

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 008 Myra
Comm Ad 008 Myra