এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

শাহি সফরের মাঝেই মমতার শিল্পনীতিকেই মান্যতা RBI’র

Courtesy - Facebook and Google

নিজস্ব প্রতিনিধি: নিশাচরদের মতো নিশি রাতে শহর কলকাতায়(Kolkata) পা রেখেছেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সঙ্গে দেশের শাসক দলের সর্বভারতীয় সভাপতি। আর এই শাহি সফরের মাঝেই কিনা দেশের শীর্ষ ব্যাঙ্ক RBI বা Reserve Bank of India কিনা জানিয়ে দিল বাংলার অগ্নিকন্যা, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) শিল্পনীতিই বাংলা(Bengal) তথা দেশের(India) ভবিষ্যৎ। কার্যত RBI’র রিপোর্ট মুখ পুড়িয়ে দিল দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি(Narendra Modi) সহ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণেরও। একই সঙ্গে মুখ পুড়িয়ে দিল বাংলায় এসে মমতার সরকারকে উৎখাত করার ডাক দেওয়া শাহ-নাড্ডারও। দেশের আর্থিক পরিস্থিতি বিশ্লেষণে প্রতি মাসে বুলেটিন প্রকাশ করে RBI। ডিসেম্বরের বুলেটিনে তাঁরা জানিয়ে দিল নীতিগত একাধিক সিদ্ধান্তের জন্যই শিল্পের ভবিষ্যৎ হতে চলেছে বাংলা।

চলতি বছরের নভেম্বর মাসে হয়ে যাওয়া Bengal Global Business Summit 2023-তে ৫টি নীতির(Industrial Policy) কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সবটাই দূরের কথা ভেবে। কী হতে চলেছে আগামী দিনের শিল্প? কতটা পরিবেশ বান্ধব? প্রযুক্তিগত সুবিধা কী কী মিলবে? আজকের দিনে শিল্প-বাণিজ্যে নামতে হলে এগুলোই প্রাথমিক প্রশ্ন। সেই সঙ্গে সগর্বে ঘোষণা করেছিলেন, ‘Bengal will Leads India’। আর বলেছিলেন, ‘আগামী দিনে বাংলাই হতে চলেছে দেশের বুকে শিল্পের গন্তব্য’। মমতার এই ঘোষণাকেই কার্যত শিলমোহর দিল RBI। সেটাও এমন একটা সময় যখন বাংলায় এসেছেন অমিত শাহ(Amit Shah) ও জে পি নাড্ডা(J P Nadda)। বিজেপি যখন লাগাতার মমতার শিল্পনীতির নিন্দা করে চলেছে তখন সেই শাহি সফরের মাঝেই কেন্দ্রীয় সরকারি শীর্ষ ব্যাঙ্কিং প্রতিষ্ঠানের লিখিত বার্তাই বুঝিয়ে দিল, আগামী দিনে কী হতে চলেছে।

ঠিক কী বলেছে RBI? ডিসেম্বরের বুলেটিনে তাঁরা জানিয়েছে, সাম্প্রতিককালে রাজ্যগুলিতে যে নীতিগত পদক্ষেপ করা হয়েছে, তার মধ্যে বাংলায় একযোগে বেশ কিছু নতুন নীতি আনা হয়েছে। সেই তালিকায় আছে West Bengal Logistics Policy, New and Renewable Energy Manufacturing Promotion Policy, Export Promotion Policy এবং Industrial and Economic Corridor। RBI’র দাবি, এসবের ফলে রাজ্যে রফতানি বাড়বে, বিদ্যুতের চাহিদা মিটবে এবং তৈরি হবে লজিস্টিকস বা পণ্য পরিবহণ ও মজুতকরণ সংক্রান্ত পরিকাঠামো। এগুলিই বাংলাকে আগামী দিনে দেশের সর্বোচ্চ লগ্নিকারী রাজ্য হিসেবে নিয়ে যাবে শীর্ষদেশে। অর্থাৎ মমতা বাংলায় শিল্পের পরিবেশ তৈরি করতে যে পদক্ষেপগুলি নিয়েছেন, আগামী দিনে তা ডিভিডেন্ড দেবে বাংলা তথা ভারতকে। মমতার বাংলা সম্পর্কে RBI যে অত্যুক্তি কিছু করছে না, তা মনে করছেন সর্বভারতীয় বণিকসভা Confederation of Indian Industry বা CII।

এই শিল্পবাণিজ্য সংস্থার আমদানি রফতানি সংক্রান্ত জাতীয় কমিটির চেয়ারম্যান তথা Patton Group’র Managing Director বা MD সঞ্জয় বুধিয়া(Sanjay Budhia) এও প্রসঙ্গে জানিয়েছেন,‘বাংলা যে বিনিয়োগের আদর্শ জায়গা, সেটাই আরও একবার বলেছে RBI। কারণ, শিল্পবান্ধব পলিসি, ধর্মঘট বরদাস্ত না করার মতো বিষয়গুলি এগিয়ে রেখেছে বাংলাকে। এগুলি যে শুধু কথার কথা নয়, তার প্রমাণ GDP’র হিসেব। দেশের GDP’র ৭.৫ শতাংশ বাংলার দখলে। মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ, তামিলনাড়ু এবং গুজরাতের পরই বাংলার স্থান।’ একই কথা শোনা গেল বণিকসভা Merchants Chamber of Commerce and Industry’র Deputy Director General শুভাশিস রায়ের কথায়। তাঁর দাবি, ‘শুধু নয়া নীতি নয়, এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আরও কিছু পদক্ষেপ। যেমন, পর্যটনকে শিল্পের তকমা দিয়েছে রাজ্য। লিজে থাকা শিল্পের জমির মালিকানা দেওয়া হচ্ছে। ক্ষুদ্র শিল্পের বহর বাড়াতে কম জমিতেও পরিকাঠামো গড়তে নীতি এনেছে রাজ্য।’  

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

তিন তোলাবাজ যুবককে গ্রেফতারের দাবিতে শান্তিপুর থানা ঘেরাও করে ডেপুটেশন দিলেন আমজনতা

জনজাতি সম্প্রদায়কে নিয়ে মায়াপুর ইসকনের তিনদিন ব্যাপী কনভেনশন

নিউটাউনে উদ্ধার হওয়া ক্ষতবিক্ষত যুবক করুণাময়ীর এইচএসবিসি ব্যাংকের কর্মী

মালদার চাঁচলে মিঠুনের রোড শোতে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান তৃণমূলের

তৃণমূল প্রার্থী বিপ্লব মিত্রের সমর্থনে গঙ্গারামপুরে দেবের রোড শোতে জনসুনামি

‘বিজেপির ১০ জন নেতা যোগাযোগ রাখছেন’, বোমা ফাটালেন অভিষেক

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর