Comm Ad 2020-WB Tourism body

ছত্রধর প্রসঙ্গে এবার এনআইএ ও বিজেপিকে বিধঁলেন ফিরহাদ

Share Link:

ছত্রধর প্রসঙ্গে এবার এনআইএ ও বিজেপিকে বিধঁলেন ফিরহাদ

নিজস্ব প্রতিনিধি: ছত্রধর মাহাতোকে গ্রেফতার করে তাঁকে নিজেদের হেফাজতে নিতে উঠে পড়ে লেগেছে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ। ইতিমধ্যেই তাঁর কোভিড রিপোর্ট ঘিরে এনআইএ আধিকারিকেরা শুধু যে প্রশ্ন তুলেছেন তাই নয়, ঝাড়গ্রাম জেলার সিএমওএইচ প্রকাশ মিদ্দাকে এনআইএ চিঠি পাঠিয়েছে ওই কোভিড রিপোর্ট নিয়ে বাঙ্কশাল কোর্টে এসে জবাবদিহি করতে। কার্যত তাঁকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে যে তিনি অর্থের বিনিময়ে ওই ভুয়ো কোভিড রিপোর্ট তৈরি করে দিয়েছেন আদালতে জমা দেওয়ার জন্য যাতে ছত্রধর মাহাতো গ্রেফতার হতে না পারেন। যেহেতু ছত্রধর মাহাতোর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদোহিতের অপরাধে মামলা চলছে তাই তাঁকে সাহায্য করে প্রকাশ মিদ্দাও রাষ্ট্রদোহিতা করেছেন। এনআইএ’র এই পদক্ষেপ নিয়েই এখন ঘোরালো হয়ে উঠছে রাজ্য রাজনীতি। এবার গোটা বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলে বিজেপি ও এনআইএ-কে একহাত নিলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।  
 
ফিরহাদ এদিন বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞার প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘বোমা বিস্ফোরণ মামলার সঙ্গে জড়িত সাধ্বী প্রজ্ঞার কিছু হয় না কারণ তিনি বিজেপির সাংসসদ৷ ছত্রধর মাহাতো যেহেতু তৃণমূলের সঙ্গে রয়েছেন, তাই তাঁকে নিয়ে এত উৎসাহ এনআইএ’র। ছত্রধর মাহাতোকে নিয়ে বেশি চিন্তায় পড়ে গিয়েছে বিজেপি। এই রাজনৈতিক দলটি কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিকে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করে চলেছে৷ এটা দেশের পক্ষে খুবই দুর্ভাগ্যের৷ কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিকে সবসময় নিরপেক্ষ থাকতে হয়৷ এনআইএ’র দেশের সুরক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে নজরদারি করার কথা৷ দেশের অনেক বড় বড় সমস্যা আছে৷ এনআইএ’ কে দিয়ে সেগুলির সমাধান করানো উচিত কেন্দ্রের৷ তা না করে রাজনৈতিকভাবে এনআইএ-কে ব্য়বহার করছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক৷ এতে কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলির সম্মানও নষ্ট হচ্ছে। এই প্রতিষ্ঠানগুলির উপর দেশবাসীর আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে৷ কিন্তু, বিজেপি  নিজেদের স্বার্থে কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিকে ব্যবহার করে, সেই বিশ্বাসকে নষ্ট করছে৷ ছত্রধর মাহাতো কোরোনা আক্রান্ত কি না, এ বিষয়ে ভাবার কোনও কারণ নেই।’
 
নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, স্বাস্থ্য দফতর যেহেতু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে দেখেন এবং প্রকাশ মিদ্দা যেহেতু স্বাস্থ্য দফতরের কর্মী তাই রাজ্য সরকার এখন এই মামলায় বাড়তি নজর দিচ্ছে। বিনা কারনে প্রকাশ মিদ্দাকে যাতে এনআইএ গ্রেফতার বা হয়রানি না করে তার জন্য যা যা পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজন তা স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকদের নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। অন্তত নবান্ন সূত্রে তেমনটাই জানা গিয়েছে। এনআইএ যে চিঠি পাঠিয়েছে সেই চিঠির জবাব প্রকাশ মিদ্দাকে দিতে বলে হয়েছে। এমনকি বাঙ্কশাল কোর্টে গিয়ে এনআইএ’র যা যা জানতে চাওয়ার তা জানিয়ে আসতে বলে হয়েছে। তবে বিনা কারনে প্রকাশ মিদ্দাকে যাতে এনআইএ গ্রেফতার না করে সেই বিষয়টি দেখার জন্য রাজ্য সরকারের তরফে পৃথক আইনজীবি নিয়োগ করা হবে বলেই নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে।

2020 New Ad HDFC 04

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

corona 02

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 008 Myra

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এক আধটা নয়, পুরো ১১০টি পুজোর উদ্বোধন একঘন্টার মধ্যেই সেরে ফেলে রেকর্ড গড়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি ভাবে রাজ্যের ১২টি জেলার এই ১১০টি পুজোর উদ্বোধন এদিন করে দিলেন তিনি।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

কখনও দূর্গাস্তোত্র পড়ে, কখনও শাঁখ বাজিয়ে, কখনও বা কাঁসর বাজিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে এদিন দেখা গেল একের পর এক জেলায় পুজোর উদ্বোধন করতে।

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

একই সঙ্গে নাম না করেই মাঝে মধ্যে গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে তাঁকে মা দুর্গার কাছে প্রার্থনা করতে দেখা গেল যে মা যেন বাংলাকে দাঙ্গা থেকে বাঁচান

Voting Poll (Ratio)

Pujo2020-T01

Editors Choice

Comm Ad 008 Myra