এই মুহূর্তে

হড়পা বান, সঙ্গে ধস, কাঠগড়ায় সেবক রংপো রেল প্রকল্প

নিজস্ব প্রতিনিধি: সবেমাত্র বর্ষা পা রেখেছে বঙ্গভূমিতে। দিল্লির মৌসম ভবনের(Mousam Bhawan) সতর্কতা মিলিয়ে ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে উত্তরবঙ্গের(North Bengal) ডুয়ার্সের পাশাপাশি পাহাড়ের বুকেও। রবিবার রাতভর সেখানে বৃষ্টি হয়েছে। আর সেই ভারী বৃষ্টিতেও হুট করে গ্রামের ভেতরে নেমে আসে হড়পা বান(Flash Flood)। সঙ্গে ধস(Land Slide)। যা আগে কখনও দেখা যায়নি। সেই হড়পা বান আর ধসে কারও প্রাণহানীর ঘটনা না ঘটলেও গ্রামের বেশ কিছু বাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আর এই সবের জন্য গ্রামবাসীদের কাঠগড়ায় উঠেছে সেবক রংপো রেল প্রকল্প(Sevok Rangpo Rail Project) । কেননা গ্রামবাসীদের অভিযোগ, এই রেল প্রকল্পে যেভাবে পাহাড় কেটে কাজ হচ্ছে তার জেরেই এই হড়পা বান আর ধস। এই প্রকল্পের কাজ বন্ধ না হলে আগামী দিনে হড়পা বান আর ধসে গোটা গ্রাম ধ্বংস হয়ে যাবে। মারা যাবেন গ্রামের সকলেই। রবিবার রাতে হড়পা বান আসা ও ধস নামার ঘটনা ঘটেছে কালিম্পং(Kalimpong) জেলার রম্ভি(Rambhi) এলাকায়।

আরও পড়ুন ঘুরপথে বিজেপির হাত শক্ত করার পথে কুড়মি নেতারা

জানা গিয়েছে, রবিবার রাত থেকে তরাই-ডুয়ার্স সহ গোটা উত্তরবঙ্গ জুড়ে শুরু হয়েছে ভারী বৃষ্টিপাত। আর সেই বৃষ্টিপাতের জেরে কালিম্পং জেলার কালিম্পং-১ ব্লকের রম্ভি এলাকায় ধস নামে। ধসের জেরে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের একাংশ-সহ রম্ভি বাজার গ্রামের একাধিক বাড়ি। ব্যাহত হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ সেবক-রংপো রেল প্রকল্পের কাজও। আর এই ঘটনায় আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে গোটা গ্রাম। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, যেভাবে গ্রামের কথা চিন্তা না করে রেল প্রকল্পের কাজ চলছে তাতেই ক্ষতি হয়েছে। পাহাড় থেকে নেমে আসা জল নিকাশির মাধ্যমে বের করার কোনও জায়গা করা হয়নি। এমনকী প্রকল্পের কাজের সময় বড়বড় যন্ত্র চলার ফলে বেশ কয়েকটি বাড়ি আগেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এবার বর্ষার আগে ধস আটকানোর কোন ব্যবস্থাই করা হয়নি। যার জেরে আরও বেশি ক্ষতি হয়েছে। যদি অবিলম্বে পদক্ষেপ না করা হয় এবং আরও বৃষ্টি হলে গোটা গ্রাম ধসে চাপা পড়ে যাবে।  

আরও পড়ুন পথশ্রী-রাস্তাশ্রী প্রকল্পে হাজার কিমি রাস্তা নির্মাণ শেষ

সোমবার সকাল থেকেই উদ্ধারকাজে নামে বিপর্যয় মোকাবিলা দল। কালিম্পংয়ের জেলাশাসক আর বিমলা এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘বিপর্যয় মোকাবিলা দল উদ্ধার কাজে নেমেছে। বিপজ্জনক বাড়ির বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। রেল কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে ধস আটকাতে অবিলম্বে পদক্ষেপ কর‍তে বলা হয়েছে।’ যদিও গ্রামবাসীদের অভিযোগ, ‘এই হড়পা বান আর ধসের জন্য সেবক-রংপো রেল প্রকল্পই দায়ী। আমরা বহুবার বলেছি গ্রামের জন্য সুরক্ষার ব্যবস্থা করতে। কিন্তু তা করা হয়নি৷ সারা রাত আতঙ্কে কাটিয়েছি। আর একটু বৃষ্টি হলেই বাড়ি ধসে যেতো। ছোটছোট বাচ্চাদের নিয়ে কোথায় যাব ভেবে পাচ্ছি না।’ ঘটনার জেরে রেল প্রকল্পের প্রজেক্ট ম্যানেজার অরুন বরণ পাত্র জানিয়েছেন, ‘এইধরণের প্রবল বৃষ্টি হবে তা আমরা ভাবতে পারিনি। তবে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ করা হচ্ছে।’

Published by:

Koushik Dey Sarkar

Share Link:

More Releted News:

দুর্নীতি-সই নকলের অভিযোগে অনির্দিষ্টকালের জন্য সাসপেন্ড অধ্যাপক

পরীক্ষা ভাল না হওয়ায় আত্মঘাতী উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী

উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে ঢোকায় ছেলেদের টেক্কা মেয়েদের

মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের মুখে জগন্নাথ ধামের কাজের গতি বাড়ল দিঘায়

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে সন্তানকে খুন, মাকে ফাঁসির সাজা আদালতের

বিয়ের কয়েকদিন আগে গুলি করে আত্মঘাতী কনস্টেবল

Advertisement

এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর