এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

পুরুলিয়ার মাটিতেই শিল্প আর কৃষিকে জুড়ে দিলেন মমতা

Courtesy - Facebook

নিজস্ব প্রতিনিধি: জমি আন্দোলন তাঁকে রাজ্যের বিরোধী দলনেত্রীর পদ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর পদে পৌঁছে দিয়েছে। তাই জমি নিয়ে তাঁর বাড়তি আবেগ রয়েই গিয়েছে। জমির সঙ্গে কৃষকের সম্পর্কের অনুভূতি তাই তিনি বোঝেন। একই কারণে তাঁর সরকার ও দল দুইই কৃষকদের বিরুদ্ধে গিয়ে জমি অধিগ্রহণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে চলেছে। বিরোধীদের দাবি, রাজ্য সরকারের এই অবস্থান ও ভূমিকা শিল্পনাশা। বাস্তব কিন্তু ভিন্ন কথাই বলছে। সঠিক পরিকল্পনা ও নীতি নিয্যে এগোলে শিল্পের অভাব হয় না। ধ্বংস হয় না কৃষি ও কৃষক সমাজও। এদিন অর্থাৎ মঙ্গলবার রাজ্যের অন্যতম প্রান্তিক জেলা পুরুলিয়ার(Purulia) মাটিতে দাঁড়িয়ে তিনি মেলবন্ধন ঘটালেন শিল্প(Industry) ও কৃষি(Agriculture)। এদিন তিনি পুরুলিয়ার সভা মঞ্চ থেকে রঘুনাথপুরে জঙ্গল সুন্দরী শিল্পনগরীর(Raghunathpur Jangal Sundari Shilpa Nagari) বুকে গড়ে ওঠা শ্যাম স্টিলের ইস্পাত কারখানার উদ্বোধন যেমন করেছেন তেমনি পাশের পশ্চিম বর্ধমান জেলার পানাগড়েরও ধানসিঁড়ে গ্রুপের একটি ইস্পাত কারখানার উদ্বোধন করেন। আবার ধান বিক্রি নিয়েও এদিনের সভা থেকে বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)।

রঘুনাথপুরের জঙ্গলসুন্দরী শিল্পনগরীর বুকে লছমনপুর এলাকায় ৬০০ একর জমিতে গড়ে উঠেছে শ্যাম স্টিলের ইস্পাত কারখানা। এই কারখানার এদিন শুধু First Phase’র উদ্বোধন হয়েছে। এদিন যে অংশের উদ্বোধন হয়েছে তা নির্মাণে খরচ হয়েছে ১৫০০ কোটি টাকা। কারখানার ৪টি ফেজ গড়ে তুলতে মোট ৪৫৯১ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে। কারখানা পূর্ণ দমে চালু হয়ে গেলে সেখানে প্রত্যক্ষ ভাবে ১০ হাজার এবং পরোক্ষ ভাবে আরও ২০ হাজার মানুষ কাজ পাবেন। অন্যদিকে পানাগড়ে যে ইস্পাত কারখানাটির এদিন উদ্বোধন হয়েছে সেটি নির্মাণে খরচ হয়েছে ৫১৫কোটি টাকা। প্রাথমিকভাবে সেখানে আড়াইশো জনের কর্মসংস্থান হচ্ছে। এদিনের এই দুই শিল্প কারখানার উদ্বোধনকে সামনে রেখে মুখ্যমন্ত্রীর শিল্পবান্ধব অবস্থানকে তুলে ধরতে মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বার্তা দিয়েছেন কৃষক সমাজকেও। জানিয়েছেন, ‘যাদের ধান নষ্ট হয়েছে, সরকার আপনাদের টাকা দেবে। আপনার চাল বাইরে না বেচে দয়া করে প্রতিবছর রাজ্য সরকারকে বিক্রি করুন। তা না হলে, এই বছর হয়ত বেশি দাম পাবেন, পরের বছর কী হবে? তখন পাশে দাঁড়াবে না কেউ। প্রয়োজনে খাদ্য দফতর, কৃষি দফতর, বাড়ি-বাড়ি গিয়ে লোকের চাল কালেকশন করে আনবে। একটা বড় গাড়ি নিয়ে গিয়ে বুথে বুথে গিয়ে দাঁড়িপাল্লায় মেপে চাল কিনে আনবেন।’

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

বিজেপির মিথ্যাচারের জবাব দিতে এসেছি, বারুইপুরে বললেন মমতা

কাঞ্চনজঙ্ঘায় ট্রেকিং করতে গিয়ে মৃত্যু বালির পর্বতারোহীর

‘বিতর্কিত’ বিজেপি প্রার্থী, কাকলির টানা চার বার জয় অনেকটাই নিশ্চিত

বসিরহাটে দাগ কাটতে ব্যর্থ বিজেপির রেখা, জয় নিশ্চিত হাজি নুরুলের

ভোটের আগেই তৃণমূল নেতাকে লক্ষ্য করে বোমা-গুলি, জয়নগরে ছড়িয়েছে উত্তেজনা

রিমলের দাপট কমতেই গরমে পুড়ছে কলকাতা- সহ দক্ষিণবঙ্গ

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর