এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




ঝাড়খণ্ডের তোলাবাজ দুস্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত মানিকচকের তিন মৎস্যজীবী




নিজস্ব প্রতিনিধি,মানিকচক: ঝাড়খণ্ডের তোলাবাজ দুস্কৃতিদের হাতে আক্রান্ত মানিকচকের তিন মৎস্যজীবি। নিখোঁজ এক। বুধবার মানিকচকের নারায়নপুর চর সংলগ্ন গঙ্গা নদীর বক্ষে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। ঘটনাকে ঘরে আহত মৎস্যজীবীদের পক্ষ থেকে মানিকচক থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের।ঘটনা সম্পর্কে জানা গেছে বুধবার গঙ্গা নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে দেখেন তাদের মাছ ধরার জাল তুলছেন ঝাড়খণ্ডের(Jharkhand) বেশ কিছু ব্যক্তি। তাদের বাধা দিতেই দুষ্কৃতীরা মৎস্যজীবীদের কাছে টাকা দাবি করে। মৎস্যজীবীরা টাকা দিতে অস্বীকার করতেই দুষ্কৃতীরা মৎস্যজীবীদের ওপর চড়াও হয়। নৌকায় থাকা বাঁশ দিয়ে মারধর করা হয় তাদের। কোনক্রমে সেখান থেকে তিনজন মৎস্যজীবী পালিয়ে বাঁচেন। গ্রামে ফিরে সমস্ত ঘটনা জানায় স্থানীয় বাসিন্দাদের।

পরবর্তীতে এলাকার বহু সংখ্যক এলাকাবাসী সেই এলাকায় ধাওয়া করতেই সেখান থেকে চম্পট দেয় ঝাড়খন্ডের দুষ্কৃতীরা।এই ঘটনায় লালমোহন চৌধুরী (২১), সিংহাসন চৌধুরী(১৮) ও ধনুয়া চৌধুরী(১৭) আহত হয়। তারা বর্তমানে মানিকচক হাসপাতালে(Manickchak Hospital) চিকিৎসাধীন। তবে সমরলাল চৌধুরী নামের ব্যক্তি ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে। ইতিমধ্যে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার মানিকচক থানায় লিখিত অভিযোগও করেন মৎস্যজীবীরা। মানিকচক হাসপাতালে আহত অবস্থায় থাকা মৎস্যজীবী সিংহাসন চৌধুরী বলেন, গঙ্গা নদীতে চারজন ঝাড়খণ্ডের দুষ্কৃতী নৌকা নিয়ে তাদের ঘিরে ধরে এবং জানায় মাছ ধরতে গেলে টাকা দিতে হবে। আমরা টাকা দিতে না পারায় আমাদের মারধর করা হয়েছে।

ঘটনার পর থেকে ভয়ের মধ্যে রয়েছেন প্রাণে ফিরে আসা মৎস্যজীবীরা। লালমোহন সিং নামে মৎস্যজীবীর দাবী,বিগত কয়েক বছর আগে রাতের অন্ধকারে এই গ্রামেরই এক মৎস্যজীবী মাছ ধরতে গিয়ে দুই দিন নিখোঁজ থাকার পর তার মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছিল। কিন্তু এখন রাতে নয় দিনের আলোতেই অস্ত্র নিয়ে হামলা করছে ঝাড়খণ্ডের দুষ্কৃতীরা।যদিও মৎস্যজীবীদের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করেছে মানিকচক থানার পুলিশ।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

১৩৯৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মীত হওয়া দ্বিতীয় ঈশ্বরগুপ্ত সেতুই হবে রাজ্যের দীর্ঘতম

মুখ্যমন্ত্রীর ট্যুইট বার্তায় স্বস্তিতে বাংলাদেশ ফেরত পড়ুয়ারা

জেলায় এসেছিল ৩৪৭ কোটি, পড়ে আছে ২৪৭.০৮ কোটিরও বেশি

মালদার মহদীপুর আন্তর্জাতিক স্থলবন্দরের সীমান্ত দিয়ে আমদানি – রপ্তানি বন্ধ

শিব পূজোয় মাতবেন বীরভূমের বক্রেশ্বর ধামের বাসিন্দারা

গোপনে নাবালিকা মেয়ের বিয়ে,বাড়ির সামনে ধর্না অবস্থান কন্যাশ্রী ক্লাবের

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর