2020 New Ad HDFC 04

৬ আসনে লড়ে ‘ডাহা ফেল’ আসাউদ্দিন ওয়েইসির মিম

Share Link:

৬ আসনে লড়ে ‘ডাহা ফেল’ আসাউদ্দিন ওয়েইসির মিম

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিহারে আরজেডি নেতৃত্বাধীন মহাজোটের কুর্সি দখলের পথে কাঁটা হয়ে দাঁড়ানোর পরে বাংলায় ধর্মীয় বিষ ঢেলে রাজনৈতিক ডিভিডেন্ড ঘরে তোলার চেষ্টা করেছিলেন মিম সুপ্রিমো আসাউদ্দিন ওয়েইসি। কিন্তু বাংলার মুসলিমরা ‘বিজেপি বান্ধব’ পাতা ফাঁদে পা দেননি। বরং ঘৃণা ভরে প্রত্যাখান করেছেন মিম প্রার্থীদের। ফলস্বরূপ সংখ্যালঘু অধ্যুষিত যে ৬ আসনে লড়েছিল ওয়েইসির দল, সেই  ছয় আসনে শুধু জামানতই জব্দ হয়নি। এক শতাংশ ভোটও ইভিএমে টানতে পারেননি মিমের প্রার্থীরা। ফলে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের জয়ের পথে কাঁটা হতে গিয়ে জাত-কুল-মান সব হারালেন ওয়েইসির দলের ‘বিখ্যাত’ প্রার্থীরা।

বিহার বিধানসভা ভোটে অপ্রত্যাশিত ফল করার পরে বাংলার দিকে নজর দিয়েছিলেন হায়দরাবাদ ভিত্তিক ধর্মীয় সংগঠন মিমের প্রধান আসাউদ্দিন ওয়েইসি। ফুরফুরা শরিফের পিরজাদা আব্বাস সিদ্দিকির সঙ্গে হাত মিলিয়ে বঙ্গের রাজনীতিতে জাঁকিয়ে বসার একটা চেষ্টা করেছিলেন। যদিও তাতে সফল হতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত বাংলার বিধানসভা ভোটে একলা লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। সংখ্যালঘু উত্তর দিনাজপুর, মালদা ও মুর্শিদাবাদের সাত আসনে প্রার্থী দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। তবে সাত আসনে নয়, শেষ পর্যন্ত ছয় আসনে লড়েছিলেন মিমের প্রার্থীরা। ওই ছয় আসন হল, ইটাহার, জলঙ্গি, সাগরদিঘি, ভরতপুর, মালতীপুর ও আসানসোল উত্তর।

রবিবার ফলাফল প্রকাশের পরে দেখা যায় ছয় আসনে ডাহা ফেল করেছেন মিমের প্রার্থীরা। উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারে প্রায় ৫২ শতাংশ মুসলিম ভোটার। ওই আসনে মিম প্রার্থী মোফাখেরুল ইসলাম পেয়েছেন মাত্র ৮৩১ ভোট। শতাংশের হিসেবে ০.৪৩। সেখানে নোটায় ভোট পড়েছে ১,২৩৯টি।

মালদার মালতিপুরে মুসলিম ভোটার ৩৭ শতাংশের ভোট। ওই আসনে ওয়েইসির দলের প্রার্থী মওলানা মতিউর রহমান পেয়েছেন এক হাজার ৬৪৩টি ভোট। অর্থা‍ৎ ০.৮৯ শতাংশ ভোট। নোটায় ভোট পড়েছে ২ হাজার ৩২ টি। মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘি আসনে ৬৫ শতাংশ মুসলিম ভোটার। ওই আসনে মিম প্রার্থী নূরে মাহবুব আলম পেয়েছেন ৩ হাজার ৪৫০টি ভোট। শতাংশের হিসেবে এক দশমিক ৮৫। সংখ্যালঘু অধ্যুষিত আর এক আসন মুর্শিদাবাদের জলঙ্গিতেও প্রার্থী দিয়েছিল মিম। ওই আসনে প্রায় ৭৩ শতাংশ মুসলিম ভোটার। সেখানে ওয়েসির দলের আল সৌকেত জামান পেয়েছেন মাত্র ১৩৩৮ ভোট। অর্থা‍ৎ ০.৬ শতাংশ ভোট পেয়েছেন মিম প্রার্থী।

মুর্শিদাবাদের আর এক কেন্দ্র ভরতপুরে ৫৮ শতাংশ মুসলিম ভোটার। ওই কেন্দ্রে মিম প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন পেয়েছেন ২ হাজার ৭৬টি ভোট। অর্থা‍ৎ ১.১ শতাংশ ভোট পেয়েছেন তিনি। আসানসোল উত্তর কেন্দ্রে মুসলিম ভোটারের সংখ্যা ২০ শতাংশ। ওই কেন্দ্র থেকে ভোটের ময়দানে মিমের হয়ে লড়তে নেমেছিলেন দানিশ আজিজ। তিনি পেয়েছেন এক হাজার ৫১৪টি ভোট। শতাংশের হিসেবে ০.৭৮ শতাংশ। সব মিলিয়ে ০.০২ শতাংশ ভোট পেয়েছে মিম।

corona 01

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-LDC Egg

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

পূর্বস্থলী ১ নং ব্লকের দক্ষিণ শ্রীরামপুর বাজার স্যানিটাইজেশনে নামলেন বিধায়ক স্বপন দেবনাথ

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

নির্বাচনের সময় থেকেই করোনা সচেতনতা প্রচারে জোর দিয়েছেন বিদায়ী মন্ত্রী

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

করোনা নিয়ে নিজের বিধানসভার একাধিক এলাকায় সচেতনতা প্রচার চালিয়েছেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

কোভিড বিধি মেনেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন স্বপন দেবনাথ

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

নিজের এলাকাতেই ২৫ শে বৈশাখ উদযাপন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

স্বামী করণ সিং গ্রুভারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করেছেন বিপাশা

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

বিকিনিতে নিজের অনুরাগীদের মনে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন বিপাশা বসু

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

মলদ্বীপে খোশমেজাজে রয়েছেন বিপাশা

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

বিপাশার বিকিনি পরা ছবি দেখে বলাই যায় বয়স সংখ্যামাত্র

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

হাতে কাজ না থাকায় দাম্পত্য জীবন উপভোগ করছেন বঙ্গতনয়া

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 026 BM
Comm Ad 008 Myra