2020 New Ad HDFC 04

৫৮ বছরের রেকর্ড ভেঙে আজ ‘সরকারি’ভাবে বিদায় নিচ্ছে বর্ষা

Share Link:

৫৮ বছরের রেকর্ড ভেঙে আজ ‘সরকারি’ভাবে বিদায় নিচ্ছে বর্ষা

নিজস্ব প্রতিনিধি : এবছরই রেকর্ড দেরীতে দেশ ছাড়ছে বর্ষা। এমনটাই জানাচ্ছে হাওয়া অফিসের 'রেকর্ড বুক'। মৌসম ভবনের তথ্য বলছে, সাধারণত পয়লা সেপ্টেম্বর রাজস্থান থেকে বর্ষা ছেড়ে যেতে শুরু করে। ৮ অক্টোবর কলকাতা থেকে বিদায় নেয় বর্ষা। অথচ এবছর সেপ্টেম্বরের শেষ দিনেও গুজরাটে গভীর নিম্নচাপের দৌলতে টানা বৃষ্টি হয়েছে। যা এককথায় নজিরবিহীন। গত ৫৮ বছরের রেকর্ড ভেঙ্গে আজ, ১০ অক্টোবর সরকারিভাবে বিদায় নিচ্ছে বর্ষা।

 

চলতি বছর বর্ষার এই রেকর্ড দেরিতে বিদায় নেওয়ায় পুজোতে আমজনতাকে ভুগিয়েছে বৃষ্টি। একাদশী, দ্বাদশীতেও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, ওড়িশা থেকে এ রাজ্যের উত্তর দিক পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা এখনও রয়েছে। তার জেরে আজ ও কাল কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী এলাকা মেঘাচ্ছন্ন থাকতে পারে। হতে পারে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিও। তবে মুর্শিদাবাদ এবং বীরভূম ছাড়াও অন্য কোনও জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। তবে আগামী ৪৮ ঘণ্টার পর থেকেই আবহাওয়ার উন্নতি হতে পারে।

 

হাওয়া দফতরের তথ্য বলছে, এবারে বর্ষার বিদায় পর্ব শুরু হবে আজ, ১০ অক্টোবর থেকে। যা শেষ এমন হয়েছিল ২০০৭ সালে। তবে বর্ষা বিদায়ের সর্বাধিক দেরির রেকর্ড এতদিন ছিল ১৯৬১ সালের ঝুলিতে। সেবছর ১ অক্টোবর বর্ষা বিদায় নিয়েছিল। কিন্তু এবার সবাইকে পিছনে ফেলছে ২০১৯। প্রশান্ত মহাসাগরীয় এল নিনোর প্রভাব কাটতেই তেজি হয়েছে মৌসুমি বাতাস। সেই কারণেই এই হাল। সেপ্টেম্বরের শেষে তাই সার্বিক ভাবে দেশে বর্ষা  ছিল ১০% উদ্বৃত্ত। এমন বৃষ্টিবহুল বছর দেশ শেষবার পেয়েছিল ১৯৯৪ সালে। আর তারপর কাছাকাছি উদাহরণ ২০১৩ সালে। সে বার ৬% বেশি বৃষ্টি পেয়েছিল দেশ। তার পর পাঁচ বছরই জুটেছিল ঘাটতি বর্ষা। তবে এবার যে এমন রেকর্ড ভাঙা বৃষ্টি হবে তা আগাম আন্দাজ করতে পারেনি মৌসম ভবন। পূর্বাভাস ছিল এবার ৯৬ শতাংশ পর্যন্ত বৃষ্টিপাত হতে পারে। কিন্তু বাস্তবে তার থেকে অনেকটাই বেশি বৃষ্টি হয়েছে চলতি বছরে। 


 

 

 

Comm Ad 020 Tantuja

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 026 BM

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 006 TBS

নবান্নের কন্ট্রোলরুমে মুখ্যসচিবের সঙ্গে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রী।

নবান্নের কন্ট্রোলরুমে মুখ্যসচিবের সঙ্গে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রী।

বুধবার সারারাত নবান্নে থেকেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

বুধবার সারারাত নবান্নে থেকেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব, ডিজি-সহ অন্য কর্তারা।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব, ডিজি-সহ অন্য কর্তারা।

মঙ্গলবারের পর বুধবার বিকেলেও শহরের বিভিন্ন জায়গায় যান মুখ্যমন্ত্রী।

মঙ্গলবারের পর বুধবার বিকেলেও শহরের বিভিন্ন জায়গায় যান মুখ্যমন্ত্রী।

তাঁর সঙ্গে ছিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ও মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

তাঁর সঙ্গে ছিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ও মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

এদিন খিদিরপুর, পার্ক সার্কাস, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির মতো দক্ষিণ কলকাতার একাধিক জায়গায় যান।

এদিন খিদিরপুর, পার্ক সার্কাস, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির মতো দক্ষিণ কলকাতার একাধিক জায়গায় যান।

এদিনও স্থানীয়দের লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেন তিনি।

এদিনও স্থানীয়দের লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেন তিনি।

এই নিয়ে পরপর দু'দিন শহরের বিভিন্ন জায়গায় গেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এই নিয়ে পরপর দু'দিন শহরের বিভিন্ন জায়গায় গেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

তাঁর এই কাজকে তীব্র ভাষায় বিঁধেছেন বিরোধীরা।

তাঁর এই কাজকে তীব্র ভাষায় বিঁধেছেন বিরোধীরা।

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 025 Confed

Editors Choice

Comm Ad 026 BM