Comm Ad 2020-tantuja-body

সময়ের থেকে পিছিয়ে নাড্ডা! দেরী করে পা রাখলেন বঙ্গে

Share Link:

সময়ের থেকে পিছিয়ে নাড্ডা! দেরী করে পা রাখলেন বঙ্গে

নিজস্ব প্রতিনিধি: কথায় বলে সময়ের থেকে পিছোতে নেই। তাল মিলিয়ে পা ফেলতে হয় সময়ের সঙ্গে। কিন্তু তা আর করে কোথায় দেখাতে পারলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগৎপতি নাড্ডা। এদিন বাংলায় এক দিনের সফরে আসছেন তিনি সেকথাই সবাই জানে। তাঁর দিনের পুরো কর্মসূচিই থাকছে পূর্ব বর্ধমান জেলাতে। তাঁর আসার কথা ছিল বেলা ১১টার সময়ে। অথচ তিনি কাটোয়াতে পৌঁছালেনই ১২টা ৫০ মিনিট নাগাদ। কার্যত ঘোষিত সময়ের থেকে প্রায় ২ ঘন্টা পিছিয়ে। স্বাভাবিক ভাবেই এই ঘটনা নিয়ে এখন হাসি ঠাট্টায় মজেছে তৃণমূল সহ বাম-কংগ্রেসও। কেউ বলছেন নাড্ডা বাবার ঘুম থেকে উঠতে দেরী হয়েছে কেউ বা বলছে পেট সাফা হতে দেরী হয়েছে। সত্যি যাই হোক না কেন বাস্তব এটাই যে, নাড্ডা ইজ লেট।
 
নির্ধারিত সফরসূচি ছিল দিল্লি থেকে বিমানে কলকাতায় এসে দমদম থেকে কাটোয়ায় যাবেন নাড্ডা। কিন্তু দেরী করে দিল্লি থেকে রওয়ানা দেওয়ায় নাড্ডার বিমান নামে অন্ডালে। বেলা ১২টা নাগাদ অন্ডালে নামেন নাড্ডা। সেখান থেকে হেলিকপ্টারে করে নাড্ডা চলে আসেন কাটোয়া। দুপুর ১২টা ৫০ মিনিট নাগাদ তাঁকে কাটোয়ার হেলিপ্যাডে স্বাগত জানান দিলীপ ঘোষ, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়রা। এরপরই নাড্ডার কনভয় রওয়ানা দেয় কাটোয়া শহরের রাধাগোবিন্দ মন্দিরের পথে। সেখানে পুজো দেন নাড্ডা। এরপর দুপুর ১টা ২০ নাগাদ জগদানন্দপুর গ্রামে পৌঁচ্ছান নাড্ডা। সেখানে তিনি যোগ দেন তাঁর দলীয় কর্মসূচিতে। ‘কৃষক সুরক্ষা অভিযান’ কর্মসূচির সূচনা করে সেই মঞ্চ থেকেই নাড্ডা বলেন, ‘বাংলার জনতা বিজেপিকে চাইছে। ক্ষমতায় এলে কৃষকদের উন্নয়ন করবে বিজেপির সরকার। এই রাজ্যে তাই পরিবর্তনের জন্য মনস্থির করেছেন রাজ্যবাসী। দুর্গা মার নামে শপথ নিয়ে বলছি কৃষকদের সঙ্গে নিয়ে পরিবর্তন আনব। ২৪ থেকে ৩১ জানুয়ারি রাজ্যে কৃষক ভোজের আয়োজন করা হবে। আয়ুষ্মান প্রকল্প থেকে সাধারণ মানুষকে বঞ্চিত করে রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী। কথা দিচ্ছি বিজেপি ক্ষমতায় এলে আমরা এই প্রকল্প চালু করবো বাংলায়।’
 
তবে নাড্ডার এই সফর ঘিরে বেশ সাজো সাজো রব পড়েছে বর্ধমান শহরে। সেখানে আজ বিকালে রোড শো করবেন নাড্ডা। সেই সময় দলের কর্মীরা তাঁকে গোলাপের পাপড়ি ছুঁড়ে স্বাগত জানাবেন। তাই বর্ধমান শহরে বিজেপির কার্যালয়ে শনি সকালেই এসে পৌঁছেছে বস্তা বস্তা ফুল। যার মধ্যে বেশিরভাগটাই গোলাপ। এদিন কাটোয়াতে কর্মসূচি শেষ করে বর্ধমান শহরের পথে রওয়ানা দেবেন নাড্ডা। প্রথমে ঠিক ছিল তিনি সড়ক পথেই যাবেন। কিন্তু দেরী করে আসায় এখন ঠিক হয়েছে হেলিকপ্টারে করে নাড্ডা কাটোয়া থেকে বর্ধমানে যাবেন। সেখানে আলিশায এলাকায় তৈরি হয়েছে হেলিপ্যাড। হেলিপ্যাড থেকে প্রথমেই যাবেন নবনির্মীত জেলা কার্যালয়ে। সেখান থেকে সর্বমঙ্গলা মন্দিরে পুজো দিতে যাওয়ার কথা ছিল নাড্ডার। কিন্তু মন্দির দুপুরবেলা বন্ধ থাকে বলে সম্ভবত এবারে আর সেখানে পুজো দেওয়া হবে না নাড্ডার। এরপরই নাড্ডা যোগ দেবেন রোড শোতে। বীরহাটা থেকে কার্জন গেট পর্যন্ত জি টি রোডে এই কর্মসূচি হবে। রোড শো চলাকালীন দলের সর্বভারতীয় সভাপতির উদ্দেশ্যে ফুলের পাপড়ি ছড়িয়ে দেবেন কর্মীরা। বর্ধমান শহরে তাঁকে স্বাগত জানাতে এই উদ্যোগ। প্রত্যুত্তরে লাল গোলাপ দিয়ে তাঁদের অভিনন্দন জানাবেন জে পি নাড্ডা। এর জন্য এদিন সকালের মধ্যেই বিজেপির কার্যালয়ে চলে এসেছে প্রায় ৩০ হাজার গোলাপ ফুল। রোড শোর পর বর্ধমানের কার্জন গেটে দলীয় কর্মী সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখতে পারেন নাড্ডা।

Comm Ad 2020-WB Tourism body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-LDC Egg

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-Valentine RC

Editors Choice

Comm Ad 2020-WB Tourism RC