Comm Ad 2020-tantuja-body

বিজেপির ডাকা বনধে সাড়াই দিল না বাগনান! দোকান-বাজার সব খোলা

Share Link:

বিজেপির ডাকা বনধে সাড়াই দিল না বাগনান! দোকান-বাজার সব খোলা

নিজস্ব প্রতিনিধি: ব্যক্তিগত বিবাদকে রাজনীতির রঙ লাগিয়েও বিশেষ কিছু সুবিধা করে উঠতে পারলো না বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের ডাকা বনধ চূড়ান্ত ভাবেই প্রত্যাখান করল বাগনান। দীকান-বাজার সব তো খোলা রইলোই, বজায় থাকল যানবাহনের স্বাভাবিক গতিও। তবে কিছু কিছু এলাকায় থমথমে ভাব রয়েছে। এলাকায় যাতে কোনও রকম অশান্তি না ছড়ায় তার জন্য রয়েছে পুলিশের কড়া নজরদাররিও। তবে এদিন সকালে কিছু জায়গায় অবরোধ বিক্ষোভ করার চেষ্টা চালিয়েছিল গেরুয়া শিবিরের কর্মীরা, কিন্তু আগে থেকেই মজুত থাকা র‍্যাফ নামিয়ে সেই অবরোধ বা বিক্ষোভ হতে দেয়নি স্থানীয় প্রশাসন। সাধারন মানুষও কার্যত মুখ ফিরিয়েছে দলীয় কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে বিজেপির ডাকা ১২ ঘন্টার বাগনান বনধের থেকে।
 
হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়া মহকুমার বাগনানে গত মহাষ্টমীর রাতে নিজের বাড়ির কাছেই গুলিবিদ্ধ হন বিজেপি কর্মী তথা পেশায় ফুল ব্যবসায়ী কিঙ্কর মাঝি। অভিযোগ একটি জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই এক প্রতিবেশীর সঙ্গে বিবাদ চলছিল কিঙ্করের। সেই প্রতিবেশীর সঙ্গেই মহাষ্টমীর রাতে বিবাদে জড়িয়ে পড়েন ওই বিজেপি কর্মী। বাকবিতন্ডার মাঝে ওই প্রতিবেশীই কিঙ্করকে গুলি করে। কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে তাঁর অস্ত্রপচারও হয়। কিন্তু বুধবার সেখানেই মারা যান কিঙ্কর। সেই খবর গতকাল বিকালে বাগনানে এসে পৌঁছানো মাত্রই এলাকায় তাণ্ডব শুরু করে গেরুয়া শিবিরের নেতাকর্মীরা। বেশ কয়েকটি তৃণমূল সমর্থক পরিবারের বাড়িতে ভাঙচুর চালায় তারা। আগুনও লাগিয়ে দেওয়া হয় তাতে। দফায় দফায় মুম্বই রোড অবরোধ করেন স্থানীয় বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। বাগনান থানাও ঘেরাও করা হয়। একই সঙ্গে বৃহস্পতিবার ১২ ঘন্টা বাগনান বন্ধের ঢাকও দেওয়া হয়।
 
তবে বুধবার রাতের দিকে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পুলিশ কিঙ্কর মাঝির দেহ তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দিতে না চাওয়ায়। পুলিশের বক্তব্য, কিঙ্করের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে তাই দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে না। কিন্তু বিজেপি কর্মীদের দাবি, দেহ হস্তান্তর না করার জন্য করোনার অজুহাত দেখানো হচ্ছে। এদিন সকাল থেকেই বনধের সমর্থনে রাস্তায় নেমে পড়ে বিজেপি কর্মীরা। কিন্তু কোথাও খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। কড়া প্রশাসনিক পদক্ষেপ ও আমজনতার বনধবিমুখকতা গেরুয়া শিবিরের নেতাকর্মীদের পথে বসিয়ে ছেড়েছে। বেলা গড়ালেও এখনও কোনও অশান্তি ওই এলাকায় হয়নি। বাগনানের স্টেশনের আশেপাশে সব দোকানপাটই খোলা রয়েছে। বাসস্ট্যান্ডে দেখা মিলেছে অটো ও বাসের। তবে অন্যান্য দিনের তুলনায় রাস্তায় যানবাহন চলাচল কিছুটা কম। যাতে নতুন করে কোনও অশান্তি তৈরি না হয় তাই নামানো হয়েছে ব়্যাফও।  
 
বিজেপির ডাকা বনধ এলাকাবাসী প্রত্যাখান করায় সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকার তৃণমূল বিধায়ক অরুণাভ সেন। তিনি বলেন, ‘মানুষ বুঝে গিয়েছে পারিবারিক জমি সংক্রান্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করেই বাগনানে গুলি চলেছে। একজনের মৃত্যু হয়েছে। সব মৃত্যু সত্যিই দুঃখজনক। তবে এই ঘটনার সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। এটা বুঝেই তারা বিজেপির ডাকা বনধ উপেক্ষা করেই পথে নেমেছেন। স্বাভাবিক জীবনযাপন করেছেন। আমরা সাধারণ মানুষকে সাধুবাদ জানাই।’

Comm Ad 2020-tantuja-body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 008 Myra

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

2020 New Ad HDFC 05

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC

Editors Choice

corona 02