Comm Ad 2020-tantuja-body

কার নির্দেশে টহল, প্রশ্ন উঠছে বঙ্গে! চুপ নবান্ন

Share Link:

কার নির্দেশে টহল, প্রশ্ন উঠছে বঙ্গে! চুপ নবান্ন

নিজস্ব প্রতিনিধি: নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ রাজ্যে শেষবার যখন এসেছিলেন তখন তাঁরা সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, ভোট ঘোষণা হওয়ার পরেই বাংলায় পা রাখবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। যদিও সেই কথা কিন্তু মেলেনি। বস্তুত ভোট ঘোষণার আগেই বাংলায় পা রেখেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। ১২ কোম্পানি বাহিনী ইতিমধ্যেই চলে এসেছে, আরও ১১৩ কোম্পানি বাহিনী চলতি মাসেই ধাপে ধাপে চলে আসবে এই রাজ্যে। সেই সঙ্গে এটাও শোনা যাচ্ছে এবারের বিধানসভা নির্বাচনে বাংলায় মোট ৮০০ কোম্পানি বাহিনী মাঠে নামাবে নির্বাচন কমিশন। এত বিপুল সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী বাংলার বুকে এর আগে কোনওদিনই আসেনি। ২০১১ সালে পরিবর্তনের সময়েও মেলেনি এত বাহিনী। প্রশ্ন এই নিয়ে নয়, প্রশ্ন আজ উঠেছে বাংলার প্রশাসনিক মহলে যে ভোট ঘোষণার আগে বাংলায় আসা কেন্দ্রিয় বাহিনী কার নির্দেশে টহলদারীর কাজ শুরু করেছে। যদিও নবান্ন থেকে জানা গিয়েছে, রাজ্যের সঙ্গে এই বিষয়ে কোনও কথাই হয়নি নির্বাচন কমিশনের।
 
গতকাল থেকেই বীরভূমের নলহাটি ও পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুরে টহলদারির কাজ শুরু করেছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা। যদিও স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন থেকে শুরু করে জেলা প্রশাসনের কাছে এই নিয়ে কোনও চিঠিও দেয়নি নির্বাচন কমিশন। কেন্দ্রীয় বাহিনী স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে কোনওরকম যোগাযগ না করেই এলাকায় টহলদারিতে বেড়িয়ে পড়েছে। তা নিয়ে কারোর কোনও সমস্যার কথা এখনও সামনে আসেনি। কিন্তু প্রশ্ন কার নির্দেশে এই টহলদারী, সেই উত্তর কিন্তু মেলেনি। নির্বাচন কমিশন বাংলায় এসে বলে গিয়েছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেই কাজ করবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। বাস্তবে কিন্তু সেই তথ্য মিলছে না। নলহাটি ও পটাশপুর দুই জায়গাতেই পুলিশ প্রশাসনকে অন্ধকারে রেখেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা টহল দিতে বেড়িয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তাঁরা গ্রামের মানুষদের সঙ্গেও কথা বলছেন। এমনিতেই অভিযোগ উঠেছে যে সব এলাকা থেকে বিজেপি ফায়দা পেতে পারে সেই জায়গায় বেশি করে কেন্দ্রীয় বাহিনী নামানো হয়েছে। আর এখন সেই বিতর্কে যোগ হয়েছে, কার নির্দেশে কেন্দ্রীয় বাহিনীর এই টহলদারী। যেহেতু ভোট এখনও ঘোষণা হয়নি। রাজ্য প্রশাসন তথা রাজ্য সরকারই এখন আইনশৃঙ্খলার বিষয়টি দেখছে সেখানে কেন রাজ্য প্রশাসনকে অন্ধকারে রেখে বা তাঁদের না জানিয়ে এই টহলদারি শুরু হয়েছে, সেই প্রশ্ন কিন্তু উঠে গিয়েছে রাজ্য প্রশাসনের অন্দরের পাশাপাশি আমজনতা ও রাজনৈতিক মহলেও।
 
তবে বিষয়টি নিয়ে এখনও পর্যন্ত নবান্নের তরফে কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি। কার্যত এই বিষয়টি নিয়ে এখনই জলঘোলা করতেও নারাজ রাজ্য প্রশাসন। যতক্ষন না কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের টহলদারি নিয়ে কোনও ঘটনা বা সমস্যা সামনে না আসছে ততক্ষন বিষয়টি নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাতে চাইছে না নবান্ন। তবে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা কোথায় কী করছেন, তাঁদের থাকা খাওয়ার ক্ষেত্রে কোনও অসুবিধা হচ্ছে কিনা তা দেখছে রাজ্য প্রশাসন। কোনও রাজনৈতিক দল কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘিরে এখনও পর্যন্ত কোনও আপত্তি তোলেননি। তবে বিজেপির নেতানেত্রীরা কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহলদারিতে খুব খুশি। তাঁরা এখন প্রকাশ্যেই জানাচ্ছেন, কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহলদারিতে সাধারন মানুষ ভরসা পাবে। তাঁরা ঘর থেকে বেড়িয়ে এসে আরও একটি পরিবর্তনের জন্য ভোট দিতে পারবেন। যদিও সে কথা শুনে হাসছেন অনেকেই। বিজেপি অবশ্য আশায় আছে, জয় এবার আসবেই। ইতিমধ্যেই প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা অধুনা বিজেপি নেতা অনুপম হজরা তো বলেই দিয়েছেন, খেলা হবে নলের মুখে।

Comm Ad 2020-WB Tourism body

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 026 BM

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সরকারের হাত ধরে সল্টলেকের বুকে চালু হয়েছে প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যেখানে মিলবে পোষ্যদের চিকিৎসা পরিষেবা।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

সল্টলেকের প্রাণী সম্পদ বিকাশ ভবন প্রাঙ্গণেই এই নতুন প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এদিন উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ও স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

এই পশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে মিলবে ইসিজি, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, রক্ত সিরামের বিভিন্ন পরীক্ষা, পরজীবী সংক্রমণ সংক্রান্ত খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ, আধুনিক শল্য চিকিৎসার যাবতীয় সুযোগসুবিধা।

 আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

আগামী দিনে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিলবে পোষ্যদের চোখ, কান ও দাঁতের পরীক্ষা পরিষেবাও।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে এই নবনির্মিত পশু চিকিৎসালয় তৈরি করা হয়েছে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সারা রাজ্যে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের অধীনে ১০৪টি রাজ্য প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৮টি পলিক্লিনিক, ৩৪২টি ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ২৭২টি অতিরিক্ত ব্লক প্রাণী স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু থাকলো বাংলার বুকে।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

সল্টলেক ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে বিশেষ করে যাদের বাড়িতে ছোট পোষ্য থাকে তাঁদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে চলেছে এই নবনির্মীত প্রাণী স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি।

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

কেরলে শাড়ি পরে ছবি দিলেন সানি লিওন

কেরলে শাড়ি পরে ছবি দিলেন সানি লিওন

ভগবানের দেশে হাজির থেকে খুবই আনন্দিত সানি লিওনি

ভগবানের দেশে হাজির থেকে খুবই আনন্দিত সানি লিওনি

ভারতীয় সংস্কৃতির সঙ্গে নিজেকে ভালোই মানিয়ে নিয়েছেন সানি

ভারতীয় সংস্কৃতির সঙ্গে নিজেকে ভালোই মানিয়ে নিয়েছেন সানি

সানির এই নতুন ছবি উষ্ণতার পারদ বাড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়

সানির এই নতুন ছবি উষ্ণতার পারদ বাড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়

ছুটি কাটাতেই সপরিবারের কেরল গিয়েছেন সানি

ছুটি কাটাতেই সপরিবারের কেরল গিয়েছেন সানি

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-himalaya RC
Comm Ad 2020-WB Tourism RC