Comm Ad 018 Kalna

জোট না একলা চলো, ঠিক করতে বৈঠক ডাকলেন রাহুল

Share Link:

জোট না একলা চলো, ঠিক করতে বৈঠক ডাকলেন রাহুল

নিজস্ব প্রতিনিধি: আদৌ কী হবে জোট, নাকি জোটের নামে পাকবে ঘোঁট! প্রশ্নটা উঠেই গেল বাম-কংগ্রেস দুই শিবিরের কিছু পদক্ষেপে। প্রদেশ কংগ্রেসের একাংশ রাজ্যের বাতাসে ভাসিয়ে দিয়েছিল কংগ্রেসই এবার জোটের নেতৃত্ব দেবে আর মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হবেন অধীররঞ্জন চৌধুরী। সেই দাবি ঘিরে ক্ষোভ ছড়িয়েছে বাম শিবিরে। প্রদেশ কংগ্রেসের এই একাংশের দাবি যে বামেরা মেনে নেবে না সেটা আলিমুদ্দিনের তরফে যেমন স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে ঠিক তেমনি সীতারাম ইয়েচুরিও এটি রাহুল গান্ধিকে জানিয়ে দিয়েছেন। এর পরেই প্রদেশ কংগ্রেসের নেতাদের সঙ্গে আগামী ২৭ নভেম্বর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে বসার কথা জানিয়ে দেন রাহুল গান্ধি। কার্যত সেই বৈঠকের জোট নিয়ে প্রদেশ কংগ্রেসের নেতাদের মতামত নেবেন রাহুল। সেই বৈঠকেই চূড়ান্ত হয়ে যাবে জোট আদৌ হবে নাকি একলা লড়াইয়ের পথে হাঁটা হবে। তবে রাহুল তাঁর মতামত জোর করে প্রদেশ কংগ্রেসের নেতাদের ওপর চাপিয়ে দিতে চান না বলেই জানা গিয়েছে।
 
জোট গড়ার পথে যে জট পাকাচ্ছে সেটা আগেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল। এমনকি এবারে জোট গড়ার কথা দুই শিবিরের তরফে বার বার বলা হলেও দুই শিবিরেই কার্যত একলা চলোর রাস্তাও খোলা রাখা হচ্ছে। আলিমুদ্দিন সূত্রে জানা গিয়েছে, বামেরা এবার আসন রফা নিয়ে এবার একটু কড়া মনোভাবই নেবে। বিশেষ করে ২০১৬ সালে বাম শরিক দলগুলি যেভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল এবার আর তার পুনরাবৃত্তি চায় না আলিমুদ্দিন। তাই বামেদের শর্ত কংগ্রেস না মানলে প্রয়োজনে বামেরা যাতে একা লড়াই করতে পারে সেই রাস্তাও এবার খোলা রাখতে চান বাম নেতৃত্ব। ইতিমধ্যেই এই কৌশলের আঁচ পেয়ে গিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেসের নেতারা। তাই তাঁরাও আসন ধরে ধরে প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ শুরু করে দিয়েছেন। দুই শিবিরই নিজের নিজের মতো করে কার্যত ঘর গোছাতে নেমে পড়েছে। ঠিক এই রকম অবস্থায় প্রদেশ কংগ্রেসের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন রাজুল গান্ধি। লক্ষ্য জোটের জট কাটানো। যদিও বিষয়টি অত সরল নয়। কারন জোট নিয়ে দুই শিবিরেই তীব্র আপত্তি রয়েছে। ইতিমধ্যেই দুই দলের নেতারা সেই জোট গঠন মেনে নিতে না পেরে দলবদলাতে শুরু করে দিয়েছেন।
 
রাহুল গান্ধির বৈঠকের জন্য ইতিমধ্যেই প্রদেশ সভাপতি ছাড়াও বিরোধী দলনেতা, সাংসদ ও বিধায়কদের বৈঠকে হাজির থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জনপ্রতিনিধি নন এমন নেতারাও থাকবেন বৈঠকে। কার্যত সেখানে চুলচেরা বিশ্লেষণ হবে জোট গড়ে ভোটে লড়লে কংগ্রেসের কতটা লাভ বা ক্ষতি। কারন জোট গড়ার পথে অন্তরায় হতে পারে দলেরই কিছু নেতা। আবার আসন রফা নিয়েও বামেদের সঙ্গে একমত নাও হওয়া যেতে পারে। তার থেকেও বড় প্রশ্ন আমজনতার সমর্থন। তাই একলা চলার রাস্তাও খোলা রাখা হচ্ছে। সব কিছু ভেবে দেখেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেই জানা গিয়েছে। একই সঙ্গে জানা গিয়েছে প্রদেশ কংগ্রেসের নেতাদের অভিমত শুনবেন রাহুল। নিজের সিদ্ধান্ত তাঁদের ঘাড়ে জোর করে চাপিয়ে দিতে তিনি চান না। প্রদেশ কংগ্রেসের নেতারা যদি জোট চান তো তিনি জোটের পক্ষেই মত দেবেন, আর রাজ্যের নেতারা যদি জোট না চান তিনি একলা চলার পথেই শীলমোহর দেবেন।

corona 01

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 006 TBS

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

2020 New Ad HDFC 05

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

খিদিরপুর থেকে শুরু করে বেহালা, হরিদেবপুর,

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

মুদিয়ালী ছুঁয়ে সোধপুর পার্ক

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

বাবুবাগান হয়ে উদ্বোধনের যাত্রা শেষ হল একডালিয়া,

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

হিন্দুস্থান পার্ক, ত্রিধারার চত্বরে এসে।

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC

Editors Choice

Comm Ad 2020-LDC Egg