Comm Ad 2021 PVDA 02

সাংবাদিকদের সামনেই কাঁদলেন রাজীব! আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রীকে

Share Link:

সাংবাদিকদের সামনেই কাঁদলেন রাজীব! আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রীকে

নিজস্ব প্রতিনিধি: অপ্রত্যাশিত একদমই নয়, বরঞ্চ অনেকটাই প্রত্যাশিত। এমনটা যা হতে পারে সেটা অনেক আগেই বোঝা গিয়েছিল। সময়ের সঙ্গে সঙ্গেই বেড়ে চলেছিল দলের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব। এবার সেই দূরত্ব আর রইল না, সম্পর্কটাও ছিন্ন হয়ে গেল। রাজ্যের মন্ত্রীসভা ছেড়েই দিলেন রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের সঙ্গেও সম্পর্ক ছিন্ন হওয়াটাও কার্যত শুধুই সময়ের অপেক্ষা মাত্র। এদিন মুখ্যমন্ত্রীর কালিঘাটের অফিসে গিয়ে ইস্তফাপত্র দিয়ে আসার পাশাপাশি রাজীব গেলেন রাজভবনে। সেখানেও রাজ্যপালের হাতে তুলে দিলেন তাঁর ইস্তফাপত্র। রাজ্যপাল তা গ্রহণও করেছেন। আর রাজভবন থেকে বেড়িয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েই কথা বলতে বলতে কেঁদে ফেলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।
 
এদিন সকালে প্রথমে ফেসবুকে নিজের ইস্তফার কথা সবার আগে জানান তিনি। সেখানে তিনি বলেন, 'প্রিয় বন্ধুরা, আশা করি আপনারা ভালই আছেন। আপনাদের জানাচ্ছি যে, আমি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বনমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছি। বেশ কিছু বছর ধরে আমি দায়িত্ব এবং নিষ্ঠার সঙ্গে আমার কর্তব্য পালন করার চেষ্টা করেছি। আপনাদের প্রত্যেককে আমার বর্দ্ধিত পরিবারের অংশ বলে মনে করি। আপনাদের সমর্থন আরও বেশি করে কাজে অগ্রসর হতে ও আরও ভাল পরিষেবা দিতে আমাকে অনুপ্রাণিত করে। আমি এই প্ল্যাটফর্মে এসে আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগ করার ঘোষণা করছি এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকেও জানিয়েছি। আশা করব, আগামী বছরগুলিতে আপনাদের যথাসম্ভব ভাল পরিষেবা দিতে পারব। সেটাই আমার রাজনীতিতে থাকার কারণ।'
 
এরপরে রাজভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জানান, 'ইস্তফা দিলাম। আমি ব্যক্তিগতভাবে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির অফিসে গিয়ে ইস্তফা জমা দিয়েছি। সেইসঙ্গে একটি কপি রাজ্যপালের কাছে গিয়ে ব্যক্তিগতভাবে জমা দিয়েছি। আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। নিজের হাতে ইস্তফা পত্র নিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। আমাকে দীর্ঘদিন মন্ত্রী হিসাবে কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন। কী কাজ করেছি মানুষ বিচার করবে। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমার জীবনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবদান অনস্বীকার্য। ওঁর কাছে আমার আজীবনের কৃতজ্ঞতা। আমার মনে অনেক চাপা ক্ষোভ ছিল। আমি আড়াই বছর আগেই এই সিদ্ধান্ত নিতাম। মানুষের মধ্যে কাজের মাধ্যমে যদি কেউ ছাপ ফেলে যায় সেটাই বড় কথা। কেউ চিরকাল একই দফতরের মন্ত্রী থাকে না। আমি শেষবেলায় সৌজন্য আশা করেছিলাম মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। আমি কিছু করলেও সতীর্থের প্রতি সম্মান প্রদর্শন আশা করেছিলাম। সেচ মন্ত্রীর পদ থেকে আমাকে না জানিয়ে সরানো হয়েছিল। আমাকে টিভিতে দেখে জানতে হয়েছিল। জানতে পারি, আমাকে বন দফতর দেওয়া হল। আমি আজ অনেক যন্ত্রণা, কষ্ট নিয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরকম একটা দিন জীবনে আসবে ভাবিনি।' এই কথা বলতে বলেই কেঁদে ফেলেন রাজীববাবু।  

corona 01

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-WBSEDCL RC

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

2020 New Ad HDFC 05

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

পূর্বস্থলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১ নং ব্লকের, বেগপুর অঞ্চলের পাথর ডাঙ্গায় সংখ্যালঘু দপ্তরের বরাদ্দ ১৫,১৯,০০০ টাকায় নির্মিত জল প্রকল্প উদ্বোধনে মন্ত্রী

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ প্রকল্পের উদ্বোধনে হাজির ছিলেন রাজ্যের প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

এই বিশেষ জল প্রকল্পের ফলে উপকৃত হবেন এলাকাবাসী

কেরলে শাড়ি পরে ছবি দিলেন সানি লিওন

কেরলে শাড়ি পরে ছবি দিলেন সানি লিওন

ভগবানের দেশে হাজির থেকে খুবই আনন্দিত সানি লিওনি

ভগবানের দেশে হাজির থেকে খুবই আনন্দিত সানি লিওনি

ভারতীয় সংস্কৃতির সঙ্গে নিজেকে ভালোই মানিয়ে নিয়েছেন সানি

ভারতীয় সংস্কৃতির সঙ্গে নিজেকে ভালোই মানিয়ে নিয়েছেন সানি

সানির এই নতুন ছবি উষ্ণতার পারদ বাড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়

সানির এই নতুন ছবি উষ্ণতার পারদ বাড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়

ছুটি কাটাতেই সপরিবারের কেরল গিয়েছেন সানি

ছুটি কাটাতেই সপরিবারের কেরল গিয়েছেন সানি

২০২০ সালের কলকাতা শ্রী অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরণ হল বুধবার

২০২০ সালের কলকাতা শ্রী অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরণ হল বুধবার

উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুরসভার পুরপ্রশাসকদের চেয়াম্যান ফিরহাদ হাকিম

উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুরসভার পুরপ্রশাসকদের চেয়াম্যান ফিরহাদ হাকিম

এছাড়াও কলকাতা পুরসভার অনেক ওয়ার্ড কো অর্ডিনেটর ও পুজো উদ্যোক্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও কলকাতা পুরসভার অনেক ওয়ার্ড কো অর্ডিনেটর ও পুজো উদ্যোক্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-WB Tourism RC
Comm Ad 2020-WB Tourism RC