corona 01

শুভেন্দুর পাশে খেজুরি, বাতিল তৃণমূলের সভা! সৌগত রায়ও রাখলেন ধোঁয়াশা

Share Link:

শুভেন্দুর পাশে খেজুরি, বাতিল তৃণমূলের সভা! সৌগত রায়ও রাখলেন ধোঁয়াশা

নিজস্ব প্রতিনিধি: ধোঁয়াশা থেকেই গেল। কোনও পক্ষই স্পষ্ট কিছু জানালেন না। তবে এটা বোঝা গেল এখনই বড় কোনও পদক্ষেপ কেউই নিচ্ছেন না। জননেতা যেমন দল না ছেড়েই নিজের মতো করে কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন তেমনি দলও এখনই তাঁর বিরুদ্ধে বড় কোনও পদক্ষেপ নেবে না। তবে পর্দার পিছনে অনেক কিছুই হবে দুই তরফেই। এটাই আপাতত শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্কের নির্যাস। এর প্রমাণও মিলেছে এদিন। একদিকে তৃণমূল ভবনে সাংসদ সৌগত রায় জানালেন, শুভেন্দুর সঙ্গে তাঁর কী আলোচনা হয়েছে তা তিনি জানাবেন না তেমনি শুভেন্দু এদিনও দলের পতাকা ও ব্যানার ছাড়াই খেজুরিতে একটি কর্মসূচিতে যোগ দেন। আবার এদিনই শুভেন্দু ঘনিষ্ট এক তৃণমূলে নেতার দেহরক্ষী প্রত্যাহার করে নিয়েছে জেলা প্রশাসন। তাই ওঠাপড়া এখন চলবে। চূড়ান্ত বিচ্ছেদের পথে ভোটের আগে সম্ভবত কেউই হাঁটতে চাইছেন না।

পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরিতে এদিন ছিল শুভেন্দু অধিকারীর একটি কর্মসূচি। সেখানে যোগও দেন তিনি। সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক ব্যানারে এদিন শুভেন্দু অধিকারীকে দেখা গেল খেজুরি দিবস পালন করতে। প্রতি বছর তৃণমূলের ব্যানারেই এই কর্মসূচি পালন করে এসেছেন শুভেন্দু। এবার কিন্তু তাতে ছেদ পড়ল। মঙ্গলবার বেলা ১১টা নাগাদ  খেজুরির বাঁশগোড়াতে একটি মিছিলে যোগ দেন শুভেন্দু। সেই মিছিল শেষ হয় কামারদায়। সেখানেই সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন নন্দীগ্রাম গণআন্দোলনের নায়ক। তবে এদিন নিজের বক্তব্যে কোনও রাজনৈতিক বিতর্ক তৈরি করেননি শুভেন্দু। ২০১০ সালে সিপিএম হার্মাদদের হামলায় রক্তাক্ত হয়েছিল খেজুরি। প্রাণ হারিয়েছিলেন বহু মানুষ। ২০১০ সালের ২৪ নভেম্বর খেজুরিতে শান্তি ফিরেছিল। সেই স্মৃতিতে প্রতি বছর খেজুরি দিবস পালন করে তৃণমূল। এবার একেবারে অরাজনৈতিক ব্যানারে এই দিন পালন করলেন শুভেন্দু। মজার কথা এদিন তৃণমূলেরও একটি সভা হওয়ার কথা ছিল খেজুরি দিবস উপলক্ষ্যে। সেই সভা কিন্তু একদম শেষ মুহুর্তে এসে বাতিল করে দেওয়া হয়। কারন এদিন শুভেন্দুর পদযাত্রায় যে ভিড় চোখে পড়েছে তাতে এটা পরিষ্কার যে খেজুরি রয়েছে শুভেন্দুর পাশে।

গতকাল সৌগত রায় নিজেই জানিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে যা কিছু বলার তা আজকের সাংবাদিক বৈঠকে বলবেন। কিন্তু এদিন সাংবাদিক বৈঠকে একদল ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গিয়ে তিনি জানিয়ে দেন শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে তিনি কিছুই বলবেন না। শুভেন্দু দলেই আছে ও দলবিরোধী কোনও কথা বলেননি বা কোনও কাজ করেননি। দলে থাকতে গেলে মাঝে মধ্যে কেউ কাছে আসে কেউ বা একটু দূরে চলে যায়। কিন্তু সেটা সময় স্বাপেক্ষে মিটিয়েও যায়। সৌগত রায়ের এই বক্তব্যের পরেই এটা পরিষ্কার হয়ে যায় যে শুভেন্দুকে নিয়ে তৃণমূল এখনই কোনও বড় পদক্ষেপের পথা হাঁটছে না। বরঞ্চ তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্য নেতৃত্ব শুভেন্দু অধিকারীকে কোনওভাবেই ক্ষুব্ধ করতে চাইছে না। এদিন খেজুরিতে মিছিল শেষে সভায় শুভেন্দু বলেন, ‘‌আমি প্রত্যেক বছর ২০১০ সালের ২৪ নভেম্বরের কথা স্মরণ করাই। তাঁর কারণ, ‌২০১০–এর আগে খেজুরিতে গণতন্ত্র ছিল না। কৃষক নিজের ধান নিজে তুলতে পারত না। পুকুরে বিষ দেওয়া হত। ঘরছাড়া হতে হয়েছে অনেককে। মধ্যযুগীয় বর্বরতার সম্মুখীন হতে হয়েছে খেজুরির মানুষকে। প্রচুর মানুষ শহিদ হয়েছেন খেজুরিতে। ৩০০ বন্দুকবাজ খেজুরি দখল করেছিল। আমি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে পৌঁছে এলাকা হার্মাদ–মুক্ত করেছিলাম। খেজুরিকে ব্যবহার করে নন্দীগ্রামকে রক্তাক্ত করা হয়েছে। তৎকালীন পুলিশ হার্মাদদের সাহায্য করেছে। খেজুরিতে গণতন্ত্র, স্বাধীনতা, শান্তি বজায় থাকুক এই প্রার্থনা করি।’‌  

তবে তৃণমূল নেতৃত্ব যে একদম হাত গুটিয়ে বসে থাকবে এমনও নয়। এদিনই পুরুলিয়া জেলায় শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ হিসাবে পরিচিত জেলার প্রাক্তন সভাধিপতি সৃষ্টিধর মাহাতো ও তাঁর ছেলে সুদীপ মাহাতোর দেহরক্ষী প্রত্যাহার করে নিয়েছে জেলা প্রশাসন। অনুমান করা হচ্ছে গত সপ্তাহে শুভেন্দু অনুগামীদের ডাকা এক সভায় যোগ দেওয়ার জন্য ও জগদ্ধাত্রী পুজোর মঞ্চে শুভেন্দুর সঙ্গে বেশ কিছুক্ষন কথাবার্তা বলার জন্যই তাঁর ওপর এই কোপ নেমে এসেছে। যদিও এই নিয়ে শুভেন্দু বা সৃষ্টিধর কেউই কোনও মন্তব্য করেননি।
 

Comm Ad 2020-LDC epic

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

Comm Ad 2020-himalaya RC

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 026 BM

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের  সমাপ্তি অনুষ্ঠান

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠান

#

#

#

#

Voting Poll (Ratio)

2020 New Ad HDFC 05
Comm Ad 2020-LDC Egg