corona 01

মন্ত্রিসভায় পেশের পথে ব্যারাকপুর পুরনিগম গঠনের প্রস্তাব

Share Link:

মন্ত্রিসভায় পেশের পথে ব্যারাকপুর পুরনিগম গঠনের প্রস্তাব

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজ্য সরকারের তরফে ঘোষণা আগেই হয়েছিল। পাশাপাশি প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছিল এলাকা সমীক্ষার। সেই সব কাজ শেষ হওয়ার পর এবার শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্যের বুকে আরও একটি পুরনিগম গঠনের জন্য আইনি প্রক্রিয়া। আর এই পুরনিগম গঠিত হতে চলেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার পশ্চিমপ্রান্তে থাকা ৮টি পুরসভা এলাকা ও ২টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা নিয়ে। এই পুরনিগমই পরিচিতি পাবে ব্যারাকপুর পুরনিগম নামে।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই পুরনিগম গড়ার প্রস্তাব পেশ হওয়ার কথা। যদিও বৈঠকের পর এই নিয়ে কোনও মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর কিংবা মন্ত্রিসভার তরফ থেকে করা হয়নি। মন্ত্রিসভায় এই প্রস্তাব পাশ হওয়ার পর তা বিল হিসাবে আনা হবে রাজ্য বিধানসভায়। সেখানে পাশ হওয়ার পরে তা রাজ্যপালের কাছে পাঠানো হবে স্বাক্ষরের জন্য। তাঁর ছাড়পত্র পেলেই এটি আইনে রূপান্তরিত হবে। তারপরেই এই পুরনিগম পরিচালনার জন্য পুরবোর্ড গঠনের লক্ষ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে সবমিলিয়ে এখনও দেড় দুই বছরের অপেক্ষা। তবে একটার পর একটি ধাপ পার হয়ে চলেছে এই পুরনিগম গঠনের লক্ষ্যে।
 
উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর মহকুমার ৮টি পুরসভা এলাকা ও ব্যারাকপুর-২ ব্লকের ২টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা নিয়ে গঠিত হতে চলেছে ব্যারাকপুর পুরনিগম। দীর্ঘদিন ধরেই এই এলাকার মানুষের দাবি ছিল ব্যারাকপুরে পুরনিগম গঠিত হোক। কারন ওই এলাকায় যে হারে জনসংখ্যা বাড়ছিল ও জনবসতি বাড়ছিল তা সামাল দেওয়ার মতো ক্ষমতা ও জোর কোনটাই ছিল না স্থানীয় পুর ও পঞ্চায়েত প্রশাসনের। আর্থক জোর না থাকার কারনে ওই সব এলাকায় পুরপরিষেবাও ঠিকঠাক ভাবে না দিতে পারার সমস্যাও বেশ কয়েকবার উঠে এসেছে। সেই সঙ্গে ব্যাহত হচ্ছিল উন্নয়নের কাজও। যে ৮টি পুরসভা এলাকা নিয়ে এই পুরনিগম গঠিত হতে চলেছে তার মধ্যে সব থেকে বড় এলাকা ভাটপাড়ার। এই পুরসভার ওয়ার্ড সংখ্যা এখন ৩৫। তারপরের বড় এলাকা নৈহাটি পুরসভার। সেখানে ওয়ার্ড সংখ্যা ৩১টি।
 
এর বাইরে আরও যে ৬টি পুরসভা এই পুরনিগমের আওতায় আসতে চলেছে সেগুলি হল ২৪টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট কাঁচড়াপাড়া পুরসভা, ২৩টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট হালিশহর পুরসভা, ২১টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট গাড়ুলিয়া পুরসভা, ২৩টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট উত্তর ব্যারাকপুর পুরসভা, ২৪টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট ব্যারাকপুর পুরসভা ও ২৩টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট টিটাগড় পুরসভা। এছাড়াও থাকছে ব্যারাকপুর-২ ব্লকের শিউলি ও মোহনপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা দুটি। সব মিলিয়ে প্রস্তাবিত পুরনিগমে ৭৫টির মতো ওয়ার্ড থাকতে পারে। থাকবে ৫টির মতো বোরোও। তবে এদিন এই প্রস্তাব পেশ হয়ে পাশ হয়েছে কিনা, তা এখনও জানা যায়নি। আজ না হলে আগামী ১৫ জুলাই পরবর্তী মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই প্রস্তাব পেশ হবে বলেই সূত্রের খবর। 

corona 01

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

corona 02

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 008 Myra

নবান্নের কন্ট্রোলরুমে মুখ্যসচিবের সঙ্গে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রী।

নবান্নের কন্ট্রোলরুমে মুখ্যসচিবের সঙ্গে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রী।

বুধবার সারারাত নবান্নে থেকেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

বুধবার সারারাত নবান্নে থেকেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব, ডিজি-সহ অন্য কর্তারা।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব, ডিজি-সহ অন্য কর্তারা।

মঙ্গলবারের পর বুধবার বিকেলেও শহরের বিভিন্ন জায়গায় যান মুখ্যমন্ত্রী।

মঙ্গলবারের পর বুধবার বিকেলেও শহরের বিভিন্ন জায়গায় যান মুখ্যমন্ত্রী।

তাঁর সঙ্গে ছিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ও মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

তাঁর সঙ্গে ছিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ও মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

এদিন খিদিরপুর, পার্ক সার্কাস, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির মতো দক্ষিণ কলকাতার একাধিক জায়গায় যান।

এদিন খিদিরপুর, পার্ক সার্কাস, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির মতো দক্ষিণ কলকাতার একাধিক জায়গায় যান।

এদিনও স্থানীয়দের লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেন তিনি।

এদিনও স্থানীয়দের লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেন তিনি।

এই নিয়ে পরপর দু'দিন শহরের বিভিন্ন জায়গায় গেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এই নিয়ে পরপর দু'দিন শহরের বিভিন্ন জায়গায় গেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

তাঁর এই কাজকে তীব্র ভাষায় বিঁধেছেন বিরোধীরা।

তাঁর এই কাজকে তীব্র ভাষায় বিঁধেছেন বিরোধীরা।

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

পূবস্হলি দক্ষিণ বিধানসভার কালনা ১নং ব্লকের শাখাটি আদিবাসী পাড়ার বাহা পুজোর উৎসব

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

সেখানেই যান মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে চান সুবিধা-অসুবিধার কথা

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

পরে একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনও করেন মন্ত্রী

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

জনগণের সঙ্গে বসে অনুষ্ঠানও দেখেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

প্রায় ঘণ্টাখানেক এই অনুষ্ঠানেই ছিলেন তিনি

#

#

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 025 Confed

Editors Choice

Comm Ad 025 Confed